রাজশাহীর চরাঞ্চলে যাচ্ছে সৌর বিদ্যুৎ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
রাজশাহীর চর এলাকায় সোলার হোম সিস্টেম স্থাপনের উদ্বোধন ।

রাজশাহীর চর এলাকায় সোলার হোম সিস্টেম স্থাপনের উদ্বোধন ।

  • Font increase
  • Font Decrease

বৃহত্তর রাজশাহীর চরাঞ্চলে বিদ্যুতের আলো ছড়াতে এবার সৌর বিদ্যুৎ স্থাপন করবে বিদ্যুৎ বিভাগ। এজন্য ওই এলাকায় বিদ্যুৎ বিতরণকারী সংস্থা নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানির (নেসকো) মাধ্যমে ৬ হাজার ২৪০ গ্রাহকের বাড়িতে সোলার হোম সিস্টেম চালু করা হচ্ছে। এতে প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ১৩ কোটি ৯৩ লাখ ২০ হাজার ৪৮০ টাকা।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) মুজিববর্ষে শতভাগ বিদ্যুতায়নের লক্ষ্যে রাজশাহী জেলার পবার হরিপুর ইউনিয়নের চরমাঝারদিয়াড়ে নেসকোর নিজস্ব অর্থায়নে সোলার হোম সিস্টেম স্থাপন কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়। অনলাইনে এই কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এমপি।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘শতভাগ বিদ্যুতায়নের লক্ষ্যে আমরা এই কাজ করে যাচ্ছি। বিদ্যুৎ যত দ্রুত যাবে, ততই দেশের উন্নতি হবে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে গ্রামে, চরের দুর্গম এলাকায় বিদ্যুৎ দেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি আমরা। এসব দুর্গম এলাকার মানুষ এখন বিদ্যুতের আলোতে আলোকিত হবে।’

অনুষ্ঠানে অতিরিক্ত সচিব এবং নেসকোর চেয়ারম্যান এ.কে.এম. হুমায়ূন কবীরের সভাপতিত্বে অনলাইনে যুক্ত থেকে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন। অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন বিদ্যুৎ সচিব ড. সুলতান আহমেদ ও নেসকো’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক জাকিউল ইসলাম প্রমুখ।

সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিন বলেন, ‘চর এলাকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি আজ পূরণ হতে চলেছে। চরবাসীর মধ্যে জাগরণ শুরু হয়েছে। চরে এই বিদ্যুতের আলো ছড়িয়ে দিলে তাদের শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও কৃষির উন্নয়ন ঘটবে। যা মূলত দেশেরই উন্নয়ন। চরের মানুষের সঙ্গে সঙ্গে সবাই আজ খুব খুশি।’

বিদ্যুৎ সচিব ড. সুলতান আহমেদ বলেন, ‘রাজশাহীবাসীর জন্য আজ অনেক আনন্দের দিন। ১৯৭২ সালের সংবিধান অনুযায়ী বঙ্গবন্ধু দেশের ঘরে ঘরে বিদ্যুতের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সেই লক্ষ্যেই শতভাগ বিদ্যুতায়নের কাজ করে যাচ্ছি। গ্রিডের প্রায় বেশিরভাগ এলাকায় এখন বিদ্যুৎ চলে গেছে।’

প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীর চর আসাড়িয়াদহ, চর মাজারদিয়ার, চর খিদিরপুর এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের চর আলাতুলির মোট ৩৮ হাজার মানুষের মধ্যে ৬ হাজার ২৪০ জন গ্রাহক এই বিদ্যুৎ সুবিধা পাবেন। নিজস্ব অর্থায়নে ইনফ্রাস্ট্রাকচার ডেভেলপমেন্ট কোম্পানির (ইডকল) মাধ্যমে নেসকো এই সোলার দেবে। আজ থেকে ২৫ বাড়িতে সৌর বিদ্যুৎ সরবরাহের মাধ্যমে কাজ শুরু করেছে ইডকল। আগামী ১৫ নভেম্বরের মধ্যে এই চার চরের ৬ হাজার ২৪০ গ্রাহক বিদ্যুতের আওতায় আসবে। এই সোলার সিস্টেমে আছে ৬৫ ওয়াট পিক শক্তি। যা দিয়ে চারটি লাইট জ্বলবে, দুইটি ফ্যান ও একটি টেলিভিশন চলবে। এর মধ্যে প্রতিটি বাল্ব ৪ ওয়াট করে, ৯ ওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন ২টি ফ্যান ও ১৮ ওয়াটের টিভি।