এইচএসসি পরীক্ষার রুটিন প্রকাশ আগামী সোম-মঙ্গলবার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

আগামী সোম অথবা মঙ্গলবার এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার তারিখসহ সব ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১টায় করোনাকালীন শিক্ষার বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা জানান।

এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার সব প্রস্তুতি আমাদের রয়েছে। কারণ পরীক্ষার আগ মুহূর্তে তা বন্ধ হয়েছে। আমাদের প্রশ্নও তৈরি করা আছে। কিন্তু ১৪ লাখ পরীক্ষার্থীর সঙ্গে একজন করে অভিভাবক কেন্দ্রে গেলেও শিক্ষাকসহ ২৫ থেকে ৩০ লাখ লোকের সম্পৃক্ততা থাকে। যারা অধিকাংশই গণপরিবহন ব্যবহার করবে। সেজন্য আমরা এখনও সিদ্ধান্ত নিতে পারিনি।

তিনি বলেন, শীতে করোনার সেকেন্ড ওয়েব আসতে পারে, সেটিও আমরা মাথায় রেখেছি। তবে কেউ কেউ নাকি পরীক্ষা ছাড়াই মূল্যায়ন চাইছেন। সেক্ষেত্রে আমরা সেটি নাকচ করছি না, কারণ সব চেষ্টার পরও পরীক্ষা নেওয়া গেলো না তাহলে কি আমাদের শিক্ষার্থীরা কি এগিয়ে যাবে না। সেক্ষেত্রে পরীক্ষা ছাড়া মূল্যায়নের সম্ভবনা থেকেই যাচ্ছে, আমাদের সেটিও ভাবতে হবে।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, এইচএসসির বিষয়ে কি কি পদক্ষেপ নেওয়া যায় সব কিছু আমরা ঠিক করেছি। আগামী সোম বা মঙ্গলবারের মধ্যে পরিপূর্ণ পরিকল্পনা তারিখসহ ঘোষণা করতে পারব। কতটুকু পরীক্ষা নেবো, কি পদ্ধতিতে নেবো সেটি সেদিন জানাতে পারব। তবে পরীক্ষার্থীদের আমরা অন্তত চার সপ্তাহ সময় দেবো। চেষ্টা করব দ্রুততম সময়ের মধ্যে কতো নম্বরের মধ্যে পরীক্ষা নিয়ে এটি সম্পন্ন করতে পারি। আর জেএসসি পরীক্ষার ফলাফলও আমরা মূল্যায়নে নিয়ে আসতে পারি।

তিনি আরও বলেন, সকল প্রস্তাবনা নিয়েই সোম বা মঙ্গলবার আবার সবার সামনে আসবো। কিন্তু আমাদের পরীক্ষার্থীরা যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। সবাই যেন দুশ্চিন্তা ছাড়া পরীক্ষা দিতে পারে সেদিকে আমরা লক্ষ্য রাখছি। আর যারা পরীক্ষা দিতে পারবেন না তাদের কিভাবে মূল্যায়ন করা হবে, সেটি সোম-মঙ্গলবার জানাবো।

এইচএসসির ক্ষেত্রে সিলেবাস কমছে না জানিয়ে তিনি বলেন, এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সিলেবাস শেষ হয়েছিল। কারণ পরীক্ষা ঠিক আগ মুহূর্তে সেটি স্থগিত হয়েছে। তাই এইচএসসির ক্ষেত্রে সিলেবাস কমছে না।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান সংযুক্ত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, করোনা মহামারি পরিস্থিতিতে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যঝুঁকির কথা বিবেচনায় এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত রাখা হয়েছে। তবে এই পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলেই পরীক্ষার আয়োজন করা হবে বলে জানিয়ে আসছিল শিক্ষা মন্ত্রণালয়। সর্বশেষ এই পরীক্ষার বিষয়ে আন্তশিক্ষা সমন্বয়ক বোর্ডকে প্রস্তাব তৈরি করে মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে বলা হয়। এর প্রেক্ষিতে গত ২৪ সেপ্টেম্বর আন্তবোর্ডের সভায় সব বোর্ডের চেয়ারম্যানদের পরামর্শে তিনটি প্রস্তাব তৈরি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।