সাত দফা দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রীকে স্মারক লিপি প্রদান বাপসুর



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ফিজিওথেরাপি কলেজ নির্মাণসহ সাত দফা দাবি বাস্তবায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনায় স্মারক লিপি প্রদান করেছে বাংলাদেশ ফিজিওথেরাপি স্টুডেন্টস ইউনিয়ন (বাপসু)।

বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) স্মারক লিপি প্রদানের জন্য আগারগাঁও মোড় থেকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রা করে বাপসুর সদস্যরা।

পুলিশি বাধার ফলে বাপসুর ৩ সদস্যের প্রতিনিধিকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। প্রতিনিধিরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে স্মারক লিপি জমা দেন। পরে শ্যামলী, শিশুমেলার সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন।

বাপসুর সদস্যরা জানান, বাপসু সারা বাংলাদেশের ফিজিওথেরাপি শিক্ষার্থীদের একমাত্র ছাত্র কল্যাণমূলক সংগঠন। এই সংগঠনটি সারা বাংলাদেশের ফিজিওথেরাপি শিক্ষার্থীদের সকল দাবি আদায়ের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে।

১৯৭২ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাত ধরে এই দেশে সর্বপ্রথম ফিজিওথেরাপি প্রফেশনের আবির্ভাব ঘটে। এই পেশাটা বিভিন্ন সমস্যায় জর্জরিত। সমস্যাগুলো সমাধানের লক্ষ্যে কয়েক বছর ধরে আমাদের আন্দোলন চলে আসছিল। আমাদের দাবিগুলোর মধ্যে সর্ব প্রথম দাবিটি ছিল স্বতন্ত্র ফিজিওথেরাপি কলেজ বাস্তবায়ন। ২০০৯ সালে টানা ৫২ দিনের অবস্থান কর্মসূচির পর মহাখালীর সাততলা বস্তিতে জায়গা বরাদ্দ দেয়াসহ ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়। কিন্তু জায়গা বরাদ্দ দেওয়ার পরেও নানা ধরণের অশুভ তৎপরতার কারণে ফিজিওথেরাপি কলেজটি এখন পর্যন্ত বাস্তবায়ন করা হয়নি।

এই রকম বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে ফিজিওথেরাপি শিক্ষার্থীগণ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক বরাবর ৭ দফা দাবি উত্থাপন করেছিল।

দাবিগুলো হলো-১. দ্রুত "বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিওথেরাপি"এর ভবন নির্মাণ  বাস্তবায়ন করতে হবে। ভবন নির্মাণ না হওয়া পর্যন্ত অস্হায়ী ক্যাম্পাসে কলেজের শিক্ষা  কার্যক্রম  শুরু করতে হবে।  

২. সরকারি প্রতিষ্ঠানের ইন্টার্ন ফিজিওথেরাপিস্টদের জন্য মাসিক ইন্টার্ন ভাতা  প্রদান করিতে হবে এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে ইন্টার্ন ভাতা প্রদান বাধ্যতামূলক করতে হবে।

৩. সরকারি হাসপাতাল/স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে ফিজিওথেরাপিস্টদের ১ম শ্রেণির পদ সৃজন ও নিয়োগ প্রদান করতে হবে।

৪. ফিজিওথেরাপি তে ভর্তি পরীক্ষা দেয়ার জন্য ন্যূনতম জিপিএ (এসএসসি+এইচএসসি) ০৯.০০ নির্ধারণ করতে হবে।

৫. সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিষয়ভিত্তিক পর্যাপ্ত শিক্ষক নিয়োগ দিতে হবে এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে বিষয়ভিত্তিক পর্যাপ্ত  শিক্ষক  থাকা বাধ্যতামূলক করতে হবে।

৬. সকল জেলা-উপজেলা পর্যায়ের স্বতন্ত্র ফিজিওথেরাপি  বিভাগ ও জনবল নিয়োগ দিতে হবে।।

৭. ফিজিওথেরাপি শিক্ষার্থীদের জন্য সরকারী পর্যায়ে উচ্চশিক্ষার ব্যবস্থা করতে হবে।

বাপসুর প্রতিনিধিরা মনে করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাপসুর সাত দফা দাবির সাথে একাত্মতা ঘোষণা করে দাবিগুলো বাস্তবায়নে সচেষ্ট হবেন।