শিক্ষকের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থী ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সাভার (ঢাকা)
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সাভারের আশুলিয়ায় মাদরাসার এক শিশু (৮) শিক্ষার্থীকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে আটকে রাখা অভিযুক্ত শিক্ষককে পালাতে সহযোগিতা করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিষ্ঠানটির ভবন মালিকের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় গাজীরচট আয়নাল মার্কেট এলাকার দারুল কুরআন নূরানী হাফিজিয়া মডেল মাদরাসায় এই ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণ চেষ্টায় অভিযুক্ত মাদ্রাসার শিক্ষকের নাম আব্দুল আজিজ (২৮)। তবে তার বিস্তারিত পরিচয় জানা যায়নি। অন্যদিকে অভিযুক্ত আব্দুল আজিজকে পলায়নে সহযোগিতাকারীর নাম আব্দুর রাজ্জাক। তিনি মাদ্রাসা ভবনের মালিক বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর বাবা বলেন, ওই এলাকায় একটি বাসায় ভাড়া থেকে আমি রিকশা চালাই ও আমার স্ত্রী গার্মেন্টসে চাকরি করে। আমার কন্যা সন্তানকে ওই এলাকার দারুল কুরআন নূরানী হাফিজিয়া মডেল মাদরাসায় লেখাপড়া করানোর জন্য ভর্তি করি। প্রতিদিনের মত মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকাল ৭টায় মেয়েকে ওই মাদরাসায় রেখে কাজে চলে যাই। পরে সন্ধ্যায় মেয়েকে বাসায় নিয়ে গেলে জানায়, তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছে। চকলেট কিনে দেওয়ার কথা বলে শিক্ষকের ঘরে নিয়ে এই ধর্ষণ চেষ্টা করা হয় বলে শিশু শিক্ষার্থী অভিযোগ করে। পরে ঘটনা জানাজানি হলে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে রাখে ভবন মালিক। অভিযোগ উঠেছে আব্দুল রাজ্জাক অনৈতিক সুবিধা নিয়ে তাকে ছেড়ে দেয়। এ ঘটনায় ভবন মালিক মুখ খুলতে রাজি হয়নি।

এ ব্যাপারে বাড়ির মালিক আব্দুর রাজ্জাক খানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি উত্তেজিত হয়ে ওঠেন। এমনকি পলাতক অভিযুক্ত মাদরাসা শিক্ষকের পরিচয় জানাতে অস্বীকৃতি জানান।

বিষয়টি সম্পর্কে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফজর আলী জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে। একই সাথে তাদের গ্রেফতারে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে।