বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে মুক্ত বিমান চলাচল চুক্তি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে বিমান চলাচল চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. মহিবুল হক এবং বাংলাদেশে মার্কিন রাষ্ট্রদূত আর্ল আর. মিলার নিজ নিজ দেশের পক্ষে এ চুক্তি স্বাক্ষর করেন।

ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাস এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এটি দু’দেশের সমঝোতায় স্বাক্ষরিত প্রথম দ্বিপাক্ষিক বিমান পরিবহন চুক্তি। এই চুক্তির আওতায় যুক্তরাষ্ট্রের ওপেন স্কাই শীর্ষক আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল নীতিমালার সাথে সামঞ্জস্য রেখে বাংলাদেশের সাথে আধুনিক বিমান চলাচল সম্পর্ক প্রতিষ্ঠিত হল। যাত্রী ও পণ্য পরিবহনের পরিমাণ ও চলাচল সংখ্যা উন্মুক্ত করা, আকাশসীমা ব্যবহারের সুযোগ উন্মুক্ত করা, বিমান ভাড়া করার পদ্ধতি সহজ করা এবং বিমানের কোড যৌথভাবে ব্যবহারের সুযোগ উন্মুক্ত করার বিষয়গুলো এ চুক্তিতে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। স্বাক্ষরের পরই এ চুক্তি কার্যকর হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এর মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রের ইন্দো-প্যাসিফিক স্ট্রাটেজির সমর্থনে বাংলাদেশের সাথে এই চুক্তির ফলে শক্তিশালী অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক অংশীদারিত্ব আরো সম্প্রসারিত হবে। দুদেশের মানুষের সম্পর্ক উন্নয়ন এবং বিমান সংস্থা, ভ্রমণ কোম্পানি ও ক্রেতাদের জন্য নতুন সুযোগ সৃষ্টি হবে। বিমান সংস্থাগুলো ভ্রমণকারী ও পণ্য পরিবহনকারীদেরকে আরো সাশ্রয়ী সুবিধাজনক ও কার্যকর বিমান পরিবহন সেবা দিতে পারবে। যার ফলে পর্যটন ও ব্যবসা-বাণিজ্য উৎসাহিত হবে। এ চুক্তির আওতায় দু’দেশের সরকার বিমান চলাচলে উচ্চ মানের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অঙ্গীকারবদ্ধ। ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে বেসামরিক বিমান চলাচল সহজিকরণ আরও এক ধাপ এগিয়ে যাবে।

যুক্তরাষ্ট্রের বিমান চলাচল নীতিমালা এবং বাংলাদেশের ওপেন স্কাই বিমান পরিবহন চুক্তি সম্পর্কে তথ্য পাওয়া যাবে ডিপার্টমেন্ট অফ স্টেট এর ওয়েবসাইটে https://www.state.gov/civil-air-transport-agreements/।