সাভারে গণধর্ষণ ও বলাৎকারের অভিযোগে গ্রেফতার ৪



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সাভার (ঢাকা)
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সাভারে পৃথক স্থানে শিশু ও গৃহবধূ ধর্ষণের অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় পৃথক মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগীরা।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) দুপুরে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাভার মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত সাইফুল ইসলাম।

এর আগে বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সাভারের আনন্দপুর এলাকা থেকে ১ জন ও সাভারের বিভিন্ন এলাকা থেকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতাররা হলেন, রংপুর জেলার মিঠাপুকুর থানার বাসিন্দা মনোয়ার হোসেন। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ চেষ্টা ও বলাৎকারের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অন্যান্যরা হলেন, নওগাঁ জেলার পত্নীতলা থানার শুভলডাঙ্গা গ্রামের মৃত মিরাজ মন্ডলের ছেলে মহিদুল মন্ডল (৪০), নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর থানার কালনা কাটাবাড়ি এলাকার আতোয়ারের ছেলে তরিকুল ইসলাম (২৪) ও দিনাজপুর জেলার বোচাগঞ্জ থানার শুকদেবপুর এলাকার সোলমান আলীর ছেলে মোজাহারুল ইসলাম (২৫)।

পুলিশ জানায়, ২৮ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় রান্নার সময় মায়ের পাশে খেলা করছিলো কন্যা শিশুসহ অপর এক শিশু। এ সময় চকলেট দেওয়ার কথা বলে মনোয়ার নামের এক যুবক কক্ষে নিয়ে দুই জনকেই ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় একজনকে ধর্ষণে ব্যর্থ হয় মনোয়ার। তবে অপর শিশুকে বলাৎকারের অভিযোগ ওঠে তার বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্থানীয় শালিসি হলেও সাভার থানায় মামলা দায়ের করেন কন্যা শিশুটির বাবা।

এদিকে সাভারের বাজার রোডে রিকশা ওয়ালার স্ত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়। এজাহারের তথ্য মতে, ভুক্তভোগী নারীকে নানা সময় মহিদুল কু-প্রস্তাব দিয়ে আসতো। রাজি না হওয়ায় বুধবার রাত তিনটার দিকে সুযোগ বুঝে ঘরে ঢুকে মহিদুল ও তার সঙ্গীরা পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা দায়ের করেছে ভুক্তভোগী নারী।

সাভার মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক সাইফুল ইসলাম জানান, মামলা দায়েরের পর অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত সকলকে গ্রেফতার করে আজ দুপুরে আদালতে পাঠানো হয়েছে।