রংপুরে ওএমএস’র চালসহ আটক ৩



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
ওএমএস’র চাল কালোবাজারে বিক্রির উদ্দেশ্যে পাচারের ঘটনায় আটক তিন/ ছবিঃ বার্তা২৪.কম

ওএমএস’র চাল কালোবাজারে বিক্রির উদ্দেশ্যে পাচারের ঘটনায় আটক তিন/ ছবিঃ বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

 

রংপুরে সরকারের কম মূল্যে দেওয়া ওএমএস’র চাল কালোবাজারে বিক্রির উদ্দেশ্যে পাচারের ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাচার কাজে নিয়োজিত থাকার অপরাধে তাদেরকে জরিমানা করাসহ অনাদায়ে সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে নগরীর আলমনগর রবার্টসনগঞ্জ এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করে। এতে নেতৃত্ব দেন রংপুর জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদ হাসান মৃধা।

আটকরা হলেন- রংপুর মহানগরীর আলমনগর দরদিপাড়া এলাকার মৃত ইকবালের হোসেনের ছেলে আবু আসলাম (৫৫) ও মৃত ইসমাইল বাবুর ছেলে ইসমাইল হোসেন (৫৬) এবং বাবুপাড়া সাজাপুর এলাকার মৃত কলিম উদ্দিন ছেলে আসফাক আলী (৫২)।

অভিযানে একটি অটোরিক্সা ও দুইটি অটোভ্যানে করে পাচারের জন্য নিয়ে যাওয়া ৪৯ বস্তা চাল উদ্ধার করাসহ ৩ জনকে আটক করা হয়। এসময় ওএমএস’র ডিলার মমিন উদ্দিন পালিয়ে যায়।

পরে আটক তিন কর্মচারীকে পাচারকাজে নিয়োজিত থাকার অপরাধে ৫৫ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে ৩ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এছাড়া ওএমএসের ডিলার মমিন উদ্দিনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদ হাসান মৃধা জানান, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা অধিদপ্তর (এনএসআই) এর সদস্যরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রর্বাটসনগঞ্জ এলাকায় অভিযান চালায়। এতে জনগণের মাঝে কম মূল্যে বিক্রির জন্য খাদ্য অধিদফতর থেকে আনা ওএমএস’র চাল মজুদ করা অবস্থায় পেয়েছি। সেখানে আটক ৩ জনকে জরিমানা করা হয়। এছাড়া ডিলারের নামে নিয়মিত মামলা করার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

এদিকে জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা অধিদফতরের সদস্যরা আরও জানান, রংপুরে দীর্ঘদিন থেকে খাদ্য অধিদফতরের সরকারি ওএমএস চাল উত্তোলন করে নিজ গোডাউনে রেখে কালোবাজারে বিক্রি করে আসছে ডিলাররা। অন্য ডিলারদের ব্যাপারেও অনুসন্ধান করা হচ্ছে।