‘শেখ হাসিনার রাষ্ট্রে মাস্তানি চলে না’



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ

  • Font increase
  • Font Decrease

 

ঢাকা: সংসদ সদস্য হাজি সেলিমের পুত্র কর্তৃক নৌ বাহিনীর এক কর্মকর্তাকে মারধরের ঘটনায় সরকারের তাৎক্ষণিক পদক্ষেপ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ বলেন, “এই ঘটনায় প্রমাণিত হয়েছে শেখ হাসিনার রাষ্ট্রে মাস্তানির কোনো জায়গা নেই। এটি কোন নতুন ঘটনা নয়। জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতিটি পদক্ষেপেই বার বার প্রমাণিত হচ্ছে, এই রাষ্ট্রে নাগরিকদের নিরাপত্তা রয়েছে। কেউ নাগরিকদের উপর কোন অন্যায় করে পার পাবে না। শেখ হাসিনার বাংলাদেশে কোন মাস্তানি চলবে না।”

তিনি বলেন, “বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা এদেশে বিচারহীনতার ব্যবস্থার বিপরীতে প্রকৃত আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত করেছেন। রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন, বাংলাদেশে কেউই আইনের উর্ধ্বে নয়। তিনি এটি বুঝিয়ে দিয়েছেন।”

দুষ্টের দমনের জন্য রাষ্ট্রের ‘কোয়ার্সিভ পাওয়ার’ ব্যবহারের প্রয়োজন রয়েছে। বঙ্গবন্ধু হত্যার পর থেকেই খুনি চক্র এবং তাদের সুবিধাভোগীরা এদেশে বিচারহীনতা প্রতিষ্ঠিত করেছিল। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু এবং বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার শাসনামলে কোন অপরাধীকে কখনোই প্রশ্রয় দেয়া হয়নি। বরং দল মত নির্বিশেষে যে-ই অপরাধ করেছে, তারই বিচার হয়েছে। হাজি সেলিমের পুত্রের ঘটনাটি সকল গুণ্ডা মাস্তানদের জন্য আরেকটি পরিষ্কার বার্তা যে, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা আইনের শাসনে বিশ্বাসী। এই রাষ্ট্রে কোন গুণ্ডামি-মাস্তানির কোন সুযোগ নেই। সকল গুণ্ডামি-মাস্তানির বিরুদ্ধে রাষ্ট্রযন্ত্র সক্রিয় রয়েছে।