অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামিদের দণ্ড বাড়ানো দরকার: আদালত



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম বরগুনা
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের শিশু ও কিশোর আসামিদের অপরাধ নির্মূল করার জন্য অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামিদের সাজা বাড়ানো দরকার বলে মন্তব্য করেছেন বরগুনার শিশু আদালত।

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় অপ্রাপ্তবয়স্ক ১৪ আসামির রায় পড়ে শোনান জেলা শিশু আদালতের বিচারক মো. হাফিজুর রহমান। এ রায়ের অবজারভেশনে এ মন্তব্য করেছেন আদালত। এছাড়াও রায়ের অবজারভেশনে নিহত রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নর প্রসঙ্গেও মন্তব্য করেছেন আদালত।

রাষ্ট্র পক্ষের আইনজীবী আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল বলেন, রায়ের অবজারভেশনে আদালত বলেছেন- ‘বাংলাদেশে কিশোর অপরাধীদের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। অপরাধের তুলনায় কিশোরদের শাস্তির পরিমান কম হওয়ায় গডফাদাররা কিশোরদের ব্যবহার করছে। তাই আদালত বলেছেন, কিশোর অপরাধ নির্মূলের জন্য অপ্রাপ্তবয়স্ক আসামিদের শাস্তির পরিমান আরো বৃদ্ধি করা প্রয়োজন । কারণ কিশোর অপরাধীদের শাস্তি বৃদ্ধি করা না হলে এদের অপরাধের পরিমান দিন দিন বৃদ্ধি পাবে।

তিনি আরও বলেন এ ঘটনার সাথে জড়িত মিন্নির অনৈতিক ও বেপরোয়া জীবনযাপনের কারণে রিফাত হত্যাকাণ্ড সংগঠিত হয়েছে। এই কিশোর আসামিরা প্রাপ্তবয়স্ক দণ্ডিত আসামিদের সহযোগী হিসেবে কাজ করেছেন। পারিবারিক শিক্ষা, নৈতিক শিক্ষা ও মৌলিক শিক্ষার অভাবে এই কিশোররা বিপদগামী হয়েছেন। তাই এই আসামিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হলে দেশে কিশোর অপরাধের সংখ্যা এবং কিশোর গ্যাংয়ের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে।