কিশোরগঞ্জে একই গর্তে মিলল স্বামী-স্ত্রী ও সন্তানের মরদেহ



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কিশোরগঞ্জ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে স্বামী, স্ত্রী ও তাদের সন্তানকে নিজ ঘরের পেছনে মাটি চাপা দিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে একই গর্ত থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশের ধারণা পারিবারিক জমি জমার বিরোধের কারণে তাদের হত্যা করা হয়।

নিহতরা হলেন-কটিয়াদীর বনগ্রাম ইউনিয়নের জমশাইট গ্রামের মৃত মীর হোসেনের ছেলে মো. আসাদ মিয়া (৫৫), তার স্ত্রী পারভিন (৪৫) ও তাদের আট বছর বয়সী ছেলে লিয়ন। নিহত মো. আসাদ মিয়া জমশাইট বাজারের ব্যবসায়ী।  

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে আসাদের ছোট ভাই দ্বীন ইসলাম, মা জুমেলা খাতুন ও বোন নাজমা বেগমকে আটক করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, নিহত আসাদের তিন ছেলে। বাকি দুই ছেলে মোফাজ্জেল ও তোফাজ্জেল বাড়িতে না থাকায় তারা এ নির্মম হত্যাকাণ্ড থেকে বেচে গেছে।

জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে বড় ছেলে তোফাজ্জল বাড়িতে গিয়ে বাবা-মা ও ছোট ভাইকে পায়নি। আত্মীয়স্বজনের কাছে জিজ্ঞেস করলেও তারা কোনও তথ্য দিতে পারেনি। মেঝেতে রক্তের ছোপ দেখে সে পুলিশের কাছে গেলে পুলিশে নিখোঁজদের সন্ধানে মাঠে নামে। রাত ৯টার দিকে বাড়ির পেছনে একটি নির্জন স্থানের গর্ত থেকে একটি হাত দেখা যাওয়ার পর এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তিন জনের মরদেহ উদ্ধার করে।

কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পারিবারিক বিরোধের কারণে এ হত্যাকাণ্ড ঘটতে পারে বলে জানান পুলিশ সুপার। এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন ধরে পৈত্তিক সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিরোধ চলছে। প্রায় সময় এ নিয়ে ভাইয়ের সাথে আসাদের ঝগড়া লাগত।