৪৩তম বিসিএসে নিয়োগ পাবেন ১৮১৪ জন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

৪৩তম বিসিএসের মাধ্যমে বিভিন্ন ক্যাডারে এক হাজার ৮১৪ জনকে নিয়োগ দিতে সরকারি কর্ম কমিশনকে (পিএসসি) চাহিদা পাঠিয়েছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নিয়োগ, পদোন্নতি ও প্রেষণ (এপিডি) অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন সোমবার (২৩ নভেম্বর) সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

সূত্র জানায়, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পিএসসিতে ৪৩তম সাধারণ বিসিএসের চাহিদা পাঠিয়েছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় মোট ১ হাজার ৮১৪ পদের চাহিদা পাঠিয়েছে। এতে শিক্ষায় নেওয়া হবে সবচেয়ে বেশি। এখানে পদসংখ্যা ৮৪৩টি। এ ছাড়া প্রশাসনে ৩০০, পুলিশে ১০০, পররাষ্ট্রে ২৫, অডিটে ৩৫, ট্যাক্সে ১৯, কাস্টমসে ১৪, সমবায়ে ২০, ডেন্টাল সার্জন ৭৫ জন এবং অন্যান্য ক্যাডারে ৩৮৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে।

অপরদিকে ৪২তম বিশেষ বিসিএসের মাধ্যমে দুই হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দিতে যাচ্ছে সরকার। এ লক্ষ্যে ‘বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বয়স, যোগ্যতা ও সরাসরি নিয়োগের জন্য পরীক্ষা) বিধিমালা, ২০১৪’ তে সংশোধন আনা হয়েছে।

সাধারণ বিসিএসের মাধ্যমে নিয়োগ দিতে পিএসসি প্রিলিমিনারি তথা এমসিকিউ, লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষা নিয়ে নিয়োগ দেয়। আর বিশেষ বিসেএসের ক্ষেত্রে শুধু প্রিলিমিনারি ও মৌখিক পরীক্ষা নিয়ে নিয়োগ দেয়।

জানা যায়, বুধবার পিএসসি বিশেষ সভা আহ্বান করেছে বলে জানিয়েছে। সেখানে ৪২তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের তারিখ চূড়ান্ত হবে। আর এর পরের সপ্তাহে ৪৩তম বিসিএসের বিষয়ে আলোচনা করবে পিএসসি।

প্রসঙ্গত, ৪১তম বিসিএসে প্রিলিমিনারি পরীক্ষার অপেক্ষায় রয়েছেন সাড়ে চার লাখের বেশি প্রার্থী। গত বছরের ২৭ নভেম্বর ৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি।

এতে বিভিন্ন পদে ২ হাজার ১৩৫ কর্মকর্তা নিয়োগ দেওয়ার কথা রয়েছে। এ ছাড়া ৪০তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা নিয়েছে পিএসসি। এখন মৌখিক পরীক্ষার দিন ঘোষণার অপেক্ষায় আছেন প্রার্থীরা।

উল্লেখ্য, সর্বশেষ ৩৯তম বিশেষ বিসিএস নেওয়া হয় চিকিৎসকদের জন্য।