মানুষকে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দেবে সরকার

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে এক ব্রিফিং এ মন্ত্রিপরিষদ সচিব

মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে এক ব্রিফিং এ মন্ত্রিপরিষদ সচিব

  • Font increase
  • Font Decrease

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনা ভ্যাকসিনের প্রথম চালানে তিন কোটি ডোজ সরকার কিনতে যাচ্ছে, যা মানুষকে বিনা মূল্যে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

সোমবার (৩০ নভেম্বর) মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষে এক ব্রিফিং এ সরকারের এই সিদ্ধান্তের কথা জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে ভার্চ্যুয়াল এই বৈঠক হয়।

তিনি বলেন, গত ১৪ অক্টোবর ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউট উৎপাদিত অক্সফোর্ডের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন বাংলাদেশ সরকারের কাছে তিন কোটি ডোজ বিক্রির প্রস্তাব প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন দিয়েছেন। গত ৫ নভেম্বর স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সঙ্গে সিরাম ইনস্টিটিউট ও বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের মধ্যে ত্রিপক্ষীয় সমঝোতা স্মারক সই হয়। ভ্যাকসিনের টাকা সরকার দিয়ে দিচ্ছে। প্রথম চালানের ভ্যাকসিন মানুষকে বিনামূল্যে দেওয়া হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার প্রটোকল অনুযায়ী, কারা আগে পাবে, তা ঠিক হবে।

এছাড়াও মাস্ক ব্যবহারে চলতি সপ্তাহেই কঠোর হচ্ছে সরকার বলে জানান খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আগেই আমরা বলেছি, এই সপ্তাহ থেকে আরেকটু স্ট্রং অ্যাকশনে যাব। আমার মনে হয়, ঢাকার বাইরে পজিটিভ, ডিসিরা বলছেন, জেলা সদরে মানুষ মোটামুটি কেয়ারফুল হচ্ছে। ঢাকা শহরে বোধহয় এখনও পুরোপুরি কেয়ারফুল হয়নি; তবে মোটামুটি একটা বার্তা যাচ্ছে যে, ফাইন হয়ে যাবে, ফাইন দিতে হবে ৫০০ টাকা। বলেছি এখন থেকে ম্যাক্সিমাম ফাইন করো, না হলে আমরা আরও ইনস্ট্রাকশন দেব। বলেছি সর্বোচ্চ জরিমানা করতে।’

তিনি বলেন, ‘আস্তে আস্তে আমাদের জেলে নেওোর দিকে যেতে হবে। কী করবে, না যদি শোনে, আমরা তো উই ক্যান নট টেক রিক্স, আমাদের যতটুকু সম্ভব করতে হবে, আমরা বলে দিয়েছি। আমরা আর সাত থেকে ১০ দিন দেখব, তারপর ইনস্ট্রাকশন দিয়ে দেব- আরও কঠোর পানিশমেন্টে যাও। যথাসম্ভব বেশি করে ফাইন করা হবে এবং স্ট্রং পানিশমেন্ট দেয়া হবে।’

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস