স্টুডেন্ট ওয়েজ-শহিদ আনোয়ার পাশা বিজয়স্মারক প্রবন্ধ প্রতিযোগিতা



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মহান মুক্তিযুদ্ধের শহিদ বুদ্ধিজীবী আনোয়ার পাশা (১৫ এপ্রিল ১৯২৮- ১৪ই ডিসেম্বর ১৯৭১ বাংলা সাহিত্যে স্মরণীয় হয়ে আছেন তাঁর 'রাইফেল রোটি আওরাত' উপন্যাসের মধ্য দিয়ে। ১৯৭১ এর এপ্রিল-জুন কালপর্বে 'নতুন মানুষ, নতুন পরিচয় এবং নতুন একটি প্রভাত'- এর আশাবাণী অর্থাৎ স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্ন ব্যক্ত করে লেখা এ উপন্যাসের গর্বিত প্রকাশক ঐতিহ্যবাহী 'স্টুডেন্ট ওয়েজ'। এই কালজয়ী বই শুধু আমাদের গর্ব নয়, বাংলা সাহিত্যের অমূল্য সম্পদ।

আনোয়ার পাশা স্বাধীন বাংলাদেশের ভোর দেখার আগেই শহিদ হন পাকিস্তানি হানাদার ও তাদের দেশীয় দোসরদের হাতে। তবে তিনি বেঁচে আছেন লাখো পাঠকের অন্তরে। বাংলাদেশ সরকার তাঁকে দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান 'স্বাধীনতা পুরস্কার'-এ ভূষিত করেছেন।

১৬ ডিসেম্বর ২০২০ থেকে শুরু হচ্ছে মহান মুক্তিযুদ্ধে বিজয়ের ৫০ বছরের পরিক্রমা। একই সঙ্গে পূর্ণ হতে যাচ্ছে আনোয়ার পাশার 'রাইফেল রোটি আওরাত' রচনারও ৫০ বছর।

এই দুই মহান মুহূর্তকে স্মরণীয় করে রাখতে আনোয়ার পাশার সকল বইয়ের প্রকাশক 'স্টুডেন্ট ওয়েজ' আয়োজন করেছে 'শহিদ আনোয়ার পাশা বিজয়স্মারক প্রবন্ধ প্রতিযোগিতা।'

যেকোনো বয়সের যে কেউ আনোয়ার পাশার 'রাইফেল রোটি আওরাত  ও বাংলাদেশ: ৫০ বছর পর ফিরে দেখা' এই বিষয়ে সর্বনিম্ন ১০০০ শব্দ এবং সর্বোচ্চ ২০০০ শব্দের মৌলিক প্রবন্ধ আগামী ১৬ ডিসেম্বর ২০২০ বাংলাদেশের ৫০-তম বিজয় দিবসের মধ্যে পাঠাতে পারবেন। ইমেইল বা ফেসবুক মেসেঞ্জারেও  জমা দিতে পারেন লেখা।  জমাকৃত প্রবন্ধের মধ্যে বিচারকমণ্ডলীর বিবেচনায় নির্বাচিত প্রবন্ধসমূহ ইমেরিটাস অধ্যাপক এবং 'আনোয়ার পাশা রচনাবলি'-র সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর সম্পাদনায় 'রাইফেল রোটি আওরাত ও বাংলাদেশ: ৫০ বছর পর ফিরে দেখা' শিরোনামে স্টুডেন্ট ওয়েজ থেকে গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হবে।