‘মন্ত্রিপরিষদ সচিবের বক্তব্যে এমপিদের অধিকার ক্ষুণ্ন হয়েছে’



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ নিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিবের বক্তব্যে ক্ষুব্ধ হয়েছেন বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম। তিনি বলেছেন, অদ্ভুত লাগে। ক্যাবিনেট সেক্রেটারি উনি ব্যাখ্যা করতেছেন। যে ২৮ তারিখে আমরা রেজাল্ট দিব। এই সময়ের মধ্যে অর্ডিন্যান্স করার সময় নাই, আমরা বিল করব, বিল পাস করে ওই দিন দিয়ে দিব। এটা কি রকম হলো? আন্ডার মাইন্ড অব দ্য পার্লামেন্ট। তারা কীভাবে আগে বলতে পারে বিলটা পাস করে আমরা দিয়ে দেব। এরকম স্ট্যাবল পার্লামেন্ট বানায়া তো লাভ নেই।

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদ অধিবেশন শুরু হয়। এরপর ইন্টারমিডিয়েট এন্ড সেকেন্ডারি এডুকেশন অর্ডিন্যান্স ১৯৯৬ অধিকতর সংশোধন কল্পে আনিত একটি বিল ‘ইন্টারমিডিয়েট এন্ড সেকেন্ডারি এডুকেশন সংশোধন বিল-২০২১ উত্থাপন করেন শিক্ষামন্ত্রী। বিল উত্থাপনে সংসদ সদস্যদের সন্মান ক্ষুন্ন হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

ফখরুল ইমাম বলেন, মন্ত্রিপরিষদ কি করে আগে বলে দেন রেজাল্ট দিয়ে দেব। এটা আমার আপত্তি রইল। অর্ডিন্যান্সে ১৯৯৬ পাওয়ার অফ গভর্নিং বডি পরিবর্তন করেছেন। সেখানে কন্ট্রোল অফ এক্সামিনেশনকে পাওয়ার দেওয়া আছে। সেটা কিন্তু বন্ধ করা হয় নাই। কাজেই এটা কি পাওয়ার অব গভর্নিং বডি পারে? নাকি আলাদাভাবে পাওয়ার অফ এক্সামিনেশনের নির্দেশনায় এটা করবে।

তাছাড়া সংবিধানের ১৭ ধারায় পরীক্ষার কথা বলা আছে। এখন পরীক্ষাও উঠায় দিবেন এটাতে সংবিধানের ধারা ১৭ ধারা সাথে সাংঘর্ষিক হবে কিনা আপনার (স্পিকার) কাছে উপস্থাপন করলাম। ওখানে পরীক্ষার কথা বলা আছে পদ্ধতির কথা বলা আছে আজকে পরীক্ষার ব্যত্যয় হচ্ছে পদ্ধতির ব্যত্যয় হচ্ছে সেটাও আজকে সাংঘর্ষিক কিনা সেটা আপনার কাছে তুলে ধরলাম।

কিভাবে সংসদ সদস্যদের অবমূল্যায়ন করা হয়। আইনমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, সুপ্রিম কোর্টের এপ্রিলের ডিভিশনের একটা রায় আছে, সংসদ সদস্যরা মন্ত্রিপরিষদ সচিবের ওপরে। হঠাৎ করে জুলাই মাসে...এরপর স্পিকার বলেন এটা কি বিলের সাথে সম্পৃক্ত? জবাবে ফখরুল ইমাম বলেন, এটা আমার সম্মানের সাথে সম্পর্কিত আমার এমপিদের সম্মানের সাথে সম্পর্কিত। পরে স্পিকার বলেন এটা এখন বলতে পারেন না। এই বলে তার মাইক বন্ধ করে দেওয়া হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিবের বক্তব্যে প্রসঙ্গে পরে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পত্রিকায় কিভাবে কি রিপোর্ট আসছে আমার জানা নাই। কিন্তু আমি বলেছি যেহেতু ১৮ তারিখ সংসদ শুরু হবে, তারপর দ্রুততার সাথে উত্থাপনের চেষ্টা করব। যেদিন সংসদ পাস করবে, যদি সংসদ পাস করে তারপর আমরা দ্রুততার সঙ্গে ফলাফল দেব। এটি অবশ্যই সংসদের এখতিয়ার। সংসদ কবে পাস করবে তার ওপর নিশ্চয়ই কথা বলবার এখতিয়ার নেই। সংসদের এখতিয়োরের ওপর কারো হাত দেবার সুযোগ নাই।