নতুন থানায় যুক্ত হতে অনীহা ঈশ্বরগঞ্জের দুই ইউনিয়নের বাসিন্দাদের



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ময়মনসিংহ
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ থানাকে পৃথকীকরণ করে চারটি ইউনিয়ন নিয়ে পৃথক থানা করার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। চারটি ইউনিয়ন নিয়ে নতুন থানা হওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হলেও তাতে সংযুক্ত হতে অনীহা প্রকাশ করছে দুটি ইউনিয়নের বাসিন্দারা। অনেকে আন্দোলনে নামারও ঘোষণা দিচ্ছেন।

জানা গেছে, উপজেলার আঠারবাড়ি ইউনিয়নের রায়বাজারে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারিতে একটি পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা হয়। তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উদ্বোধন করেন তদন্তকেন্দ্রটি। আঠারবাড়ি ও সরিষা ইউনিয়নের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও মামলার তদন্ত হতো কেন্দ্রটিতে। এ অঞ্চলে বৃহৎ বাজার হওয়ায় এলাকাটিতে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রটির প্রয়োজনীয়তা ছিলো। কিন্তু রায়বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রটিকে আঠারবাড়ি পূর্ণাঙ্গ থানা করার দাবিতে ইউনিয়নটির লোকজন দাবি তোলে নানা কর্মসূচি পালন করেন।

এলাকাবাসীর দাবির বিষয়টি বিবেচনা নিয়ে ইতোমধ্যে রায়বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রটিকে আঠারবাড়ি থানা হিসেবে প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ শুরু হয়েছে। উপজেলার ১১ টি ইউনিয়ন ভেঙে নতুন এ থানা গঠনের কার্যক্রম চলছে। নতুন থানায় আঠারবাড়ি ও সরিষা ইউনিয়নের পাশাপাশি জাটিয়া ও সোহাগী ইউনিয়নকেও নতুন সংযুক্ত করা হচ্ছে। নতুন থানা গঠনের বিষয়ে বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) সরেজমিন এলাকাটি পরিদর্শন করতে যান ময়মনসিংহ রেঞ্জের ডিআইজি ব্যারিস্টার হারুন অর রশিদ।

আঠারবাড়ি থানা হতে যাচ্ছে এমন খবরে ইউনিয়নের বাসিন্দাদের মধ্যে আনন্দ বইছে। কিন্তু নতুন থানায় জাটিয়া ও সোহাগী ইউনিয়ন যুক্ত হবে এমন খবর ছড়িয়ে পড়ায় তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে। দুটি ইউনিয়নের নাগরিকরা আঠারবাড়ি থানার সাথে সংযুক্ত হতে অনাগ্রহ প্রকাশ করছেন। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে তীব্র সমালোচনা। অনেকে আন্দোলনে নামার ঘোষণা দিয়েছেন। কোনো মতেই আঠারবাড়ি থানার সাথে সংযুক্ত হতে চান না বাসিন্দারা। ঈশ্বরগঞ্জ থানার সাথেই যুক্ত থাকতে চান সোহাগী ও জাটিয়া ইউনিয়নের বাসিন্দারা।

জাটিয়া ইউনিয়নের বাসিন্দা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী রেজাউল শুভ বলেন, জাটিয়া ইউনিয়ন আঠারোবাড়ি থানায় যাওয়া জনদুর্ভোগ ছাড়া আর কিছুই না। যেখানে ঈশ্বরগঞ্জ থানায় আমরা সহজে কম সময়ে আসতে পারি সেখানে আঠারবাড়ি ১৫-২০ কি. মি. যেতে আমাদের অনেক সময় নষ্ট হবে। জাটিয়া ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা সদর লাগোয়া একটি ইউনিয়ন। আমার কেন উল্টোদিকে যাব। আমরা জাটিয়া ইউনিয়নবাসী তা কখনো মানবো না। প্রয়োজন হলে আমরা মানববন্ধনসহ কঠোর আন্দোলনে নামবো।

সোহাগী ইউনিয়নের বাসিন্দা মোফাজ্জল হোসেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টির প্রতিবাদ জানিয়ে লিখেছেন, আঠারবাড়ী থানা হতে যাচ্ছে এটা সোহাগীবাসীর জন্য কোন আনন্দের বিষয় নয়। বরং এটা আমাদের জন্য যেমন লজ্জার তেমনি ভোগান্তির সুবিশাল সুযোগ হতে যাচ্ছে। প্রিয় সোহাগীর একজন স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে এর বিরোধিতা করছি এবং তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি, প্রয়োজনে আন্দোলন করবো তবুও পিছিয়ে পরবো না।

সোহাগী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. হাবিবুর রহমান ও জাটিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শামছুল হক ঝন্টু বলেন, ঈশ্বরগঞ্জের সাথে তাদের এলাকার মানুষের যোগাযোগ বেশি। আঠারবাড়িতে তাদের স্থানান্তর হলে মানুষের ভোগান্তি বাড়বে। এমনটি যেনো না করা হয় প্রশাসনের কাছে জোর দাবি থাকবে। তার পরেও যদি আঠারবাড়ির সাথে সংযুক্ত করা হয় তাহলে তারা আইনী প্রক্রিয়ায় মাধ্যমে প্রতিবাদ জানাবেন।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি মো. আবদুল কাদের মিয়া সাংবাদিকদের জানান, চারটি ইউনিয়ন নিয়ে নতুন থানা হতে যাচ্ছে। এটি অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। সে বিষয়টি সরেজমিন পরিদর্শন করেছেন রেঞ্জ ডিআইজি মহোদয়।