চাঁদা না দেওয়ায় ইটভাটায় সন্ত্রাসী হামলা, শ্রমিকদের মারধর



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মেহেরপুর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

মেহেরপুরের গাংনীতে চাঁদা না দেওয়ায় ছয়টি ইট ভাটায় সন্ত্রাসী হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় তারা শ্রমিকদের মারধরও করেছে। এমনকি চাঁদা পরিশোধ না করা পর্যন্ত ইটভাটাগুলো বন্ধ রাখার হুমকি দিয়েছে সন্ত্রাসীরা।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) গভীর রাতে সন্ত্রাসীরা ওইসব ইটভাটায় হামলা চালায়। এ সময় তারা শ্রমিকদের কাছে মোবাইল নাম্বার দিয়ে গেছে।

ভাটা মালিকরা জানিয়েছেন, গভীর রাতে যখন শ্রমিকরা ইট পোড়ানোর কাজে ব্যস্ত তখন ১০/১৫ জন সশস্ত্র সন্ত্রাসী প্রথমে থানা রোডে পান্না ব্রিকসকে হানা দেয়। এসময় ইট পোড়ানোর শ্রমিকদের মারধর করে। পর্যায়ক্রমে পার্শ্ববর্তী দোয়েল ব্রিকস, পায়রা ব্রিকস, টুইস্টার ব্রিকস, আস্থা ব্রিকস ও এএসবি ব্রিকসে হানা দিয়ে তাণ্ডব চালায় তারা।

এএসবি ব্রিকস স্বত্বাধিকারী আনোয়ার হোসেন জানান, সন্ত্রাসীরা হানা দিয়ে শ্রমিকদের মারধর করে ২০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে গেছে। এসময় ইটভাটার যানবাহনও ভাঙচুর করেছে তারা।

ইট ভাটা মালিকরা জানান, সন্ত্রাসীরা শ্রমিকদের বেধড়ক মারপিট করেছে। আহত কয়েকজন শ্রমিককে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সন্ত্রাসীরা এসময় যোগাযোগের জন্য কাগজে মোবাইল নাম্বার লিখে দিয়ে গেছে। ওই নাম্বারে যোগাযোগ করে চাঁদা পরিশোধ না করা পর্যন্ত ইটভাটা বন্ধ রাখার হুমকি দিয়েছে।

অন্যদিকে, এ ঘটনায় শ্রমিকদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। ফলে তারা দিনে কাজ করলেও রাতে আর করবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে।

বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান বলেন, ‘ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। এসব ঘটনায় জিডি দায়ের করা হলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’