টাঙ্গাইলে শিশু অপহরণের পর হত্যা: দুইজনের যাবজ্জীবন



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা

কারাদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে শিশুকে অপহরণের পর হত্যা মামলায় দুইজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দি‌য়ে‌ছেন আদালত। সেই সঙ্গে প্রত্যেককে ১ লাখ টাকা করে জরিমানা করা হ‌য়ে‌ছে।

মঙ্গলবার (২৬ জানুয়া‌রি) দুপুরে টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন আসামি‌দের উপ‌স্থি‌তি‌তে এ রায় ঘোষণা করেন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ঘাটাইল উপজেলার রামপুর এলাকার মো. শাহজাহানের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন (৩০) ও গোপালপুর উপজেলার কামাক্ষা বাড়ি এলাকার হিরালাল আর্য্যের ছেলে গৌতম চন্দ্র আর্য্য।

এছাড়াও ১০ বছর করে কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হ‌লেন, জেলার ঘাটাইল উপজেলার নিয়ামতপুর এলাকার মো. আব্দুল হালিমের ছেলে মো. হাসান আলী (১৭) ও ভূঞাপুর উপজেলার রুহুলী পশ্চিম পাড়া এলাকার ফজলুল হকের ছেলে মো. সোহেল (১৭)।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (এপিপি) শাহানশাহ মিন্টু জানান, ভূঞাপুর উপজেলার রুহুলী গ্রামের মাজেদা বেগমের নাতী মাসুদ রানা সয়ন ২০১৩ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মাটিকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যায়। পরে দণ্ডিত আসামিরা শিশু সয়নকে মোটরসাইকেলে এ‌সে তা‌কে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে আসামিরা শিশুটির পরিবারের কাছে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে শিশু মাসুদ রানা সয়নকে হত্যা করে।

এ ঘটনার প্রেক্ষিতে ২০১৩ সালের ৩ অক্টোবর শিশুটির নানী মাজেদা বেগম বাদী হয়ে ভূঞাপুর থানায় অজ্ঞাত নামীয় একটি মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে এ মামলায় গৌতম চন্দ্র আর্য্য, হাসান আলী ও মো. সোহেল আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।

আসামীপক্ষের আইনজী‌বী শামীম চৌধুরী দয়াল বলেন, আদালতের রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। এ মামলায় আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করবো।