ঢাকা সিটিতে বাসের ভাড়া প্রতি কিমিতে ৫০ পয়সা বাড়ছে!



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর গণপরিবনের শৃঙ্খলা ফেরানোর লক্ষে বাস রুট রেশনালাইজেশন কার্যক্রম সঠিক পথেই এগিয়ে চলছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে ‍নূর তাপস। তিনি বলেন, ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত আমাদের যে নতুন রুটে দুটি কোম্পানির বাস চলবে। এরইমধ্যে বিআরটিএ থেকে এ রুটের ভাড়া নির্ধারণের কাজ শেষ হয়েছে। প্রতি কিলোমিটার বাস ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ২টাকা ২০ পয়সা। খসড়া এ ভাড়া মন্ত্রণালয় থেকে অনুমোদন লাভ করলে চূড়ান্ত হবে।

মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বুড়িগঙ্গা হলে বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির ১৬তম সভা শেষে মেয়র এসব কথা বলেন। কমিটির পূর্ববর্তী বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১ এপ্রিল থেকে ঘাটারচর থেকে কাঁচপুর পর্যন্ত রুটে কোম্পানি ভিত্তিক বাস চালানোর কথা। তবে ১৬তম বৈঠক শেষে সেই সিদ্ধান্ত থেকে কিছুটা সরে আসার আভাস পাওয়া গেছে মেয়রের কথায়। অর্থাৎ ১ এপ্রিলে নতুন রুটে বাস চালু করা সম্ভব নাও হতে পারে।

মেয়র তাপস বলেন, আামরা এখনো মনে করছি যে শুরু করতে পারব। তবে বাসগুলোকে মেরামত করতে হবে। এটুক বলতে পারি আমরা প্রক্রিয়াগত কাজগুলো শেষ করতে পারব।

তিনি বলেন, এরইমধ্যে বাস মালিকদের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ চেয়েছি। সহজ শর্তে অর্থাৎ ৪ শতাংশ সুদে যেন বাস মালিকদের ঋণ দেওয়া হয়, যাতে বাস মালিকরা তাদের বাসগুলো মেরামত করতে পারে। টাকা দিলে তারা কার্যক্রমটা করতে পারবে সেটাও আমরা আগাচ্ছি। এরইমধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংককে চিঠি দিয়েছি। তাছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর মৌখিকভাবে সম্মতি দিয়েছেন। বাস মালিকরা টাকা পেলে বাসগুলোর মেরামত কাজ সম্পন্ন করে সড়কে দেওয়া হবে। সে প্রেক্ষিতে মেরামতের কাজ করতে হয়তো একটু সময় লাগতে পারে। তবে প্রক্রিয়াগতভাবে এপ্রিল নাগাদ এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব।

মেয়র বলেন, এরইমধ্যে বিআরটিএ এই রুটের ভাড়া নির্ধারণ করে দিয়েছে। খসড়া ভাড়া অনুযায়ী প্রতি কিলোমিটার ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে ২ টাকা ২০ পয়সা। বিআরটিএ’র খসড়া প্রস্তাবনা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে মন্ত্রণালয় চূড়ান্ত করে জানিয়ে দেবে।

ভাড়ার বিষয়ে মেয়র বলেন, যেহেতু সেবার মানটা আরও উচ্চমানের হবে যাত্রীদের আরামদায়ক সেবা দেবে সেজন্য ভাড়া প্রতি কিলোমিটার ২ টাকা ২০ পয়সা।

খন্দকার এনায়েতুল্লাহ বলেন, যে ভাড়াটা বিআরটিএ এর পক্ষ থেকে মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে ২ টাকা ২০ পয়সা প্রতি কিলোমিটার সেই ভাড়া এরইমধ্যে ভাড়া পুনঃনির্ধারণী কমিটির সভায় বসে ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে। সেটা মন্ত্রণালয় অনুমোদন দিলে এখানে বাস্তবায়ন করা হবে। এটা প্রস্তাবিত ভাড়া। যেহেতু এই গাড়িগুলো আধুনিকায়ন করা হবে, সিট পরিবর্তন করা হবে, আরামদায়ক করা হবে, যার ফলে এই ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে। কমিটির পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত যে সকল প্রস্তাব এসেছে সেই প্রস্তাবের সাথে আমরা বাস মালিক পক্ষ একমত আছি।

তিনি বলেন, গাড়ি মেরামত বাবদ বাস মালিকরা প্রতি গাড়ির জন্য ৪ শতাংশ সুদে ৩ লাখ করে টাকা পাবে। সেই টাকা পাওয়ার পর কমপক্ষে দুই মাস লাগবে গাড়ি মেরামত করতে। সেক্ষেত্রে আপাতত মনে হয় এপ্রিলে চালু হচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, ঘাটারচর-কাঁচপুর ‍রুটে রজনীগন্ধা এবং মালঞ্চ দুটি পরিবহনের ১৫৫টি গাড়ি চলবে।

প্র্র্রসঙ্গত, ঢাকা সিটিতে বর্তমান প্রতি কিলোমিটার বাস ভাড়া বিআরটিএ নির্ধারিত ১টাকা ৭০ পয়সা। অর্থাৎ প্রস্তাবিত নতুন ভাড়া প্রতি কিলোমিটার ৫০ পয়সা বাড়ানো হচ্ছে। বলা হচ্ছে নতুন রুটে। যেহেতু পুরো রাজধানী জুড়ে এই বাস রুট রেশনালাইজেশনের কাজ চলবে তাই প্রস্তাবিত বাস ভাড়া পুরো সিটির জন্যই তখন বাস্তবায়িত হবে।