মেয়রের ওপর হামলার প্রতিবাদে গৌরীপুরে আধাবেলা হরতাল



উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, গৌরীপুর (ময়মনসিংহ)
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহের গৌরীপুর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামের ওপর হামলার প্রতিবাদে গৌরীপুর পৌর শহরে সোমবার (০৮ মার্চ) আধাবেলা হরতাল পালিত হচ্ছে। ফলে শহরে ব্যবসায়ীরা দোকান-পাট বন্ধ রেখেছে। যানবাহন চলাচলও প্রায় বন্ধ। তবে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

এ বিষয় গৌরীপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম বলেন, আমার ওপর হামলার প্রতিবাদে স্বপ্রণোদিত হয়ে সাধারণ মানুষ ও ব্যবসায়ীরা দোকান-পাট বন্ধ রেখে শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ জানিয়েছে। তবে এটি হরতাল কিনা বলতে পারছি না। এ বিষয়টি নিয়ে ষড়যন্ত্র করে কেউ যেনো অস্থিতীশীল পরিবেশ তৈরি করতে না পারে সেজন্য সবাইকে সর্তক থাকার আহ্বান জানাচ্ছি।

জানা গেছে, রোববার (০৭ মার্চ) দুপুরে গৌরীপুর পৌরসভার মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলামের সমর্থক ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য তানজীর আহমেদ রাজীবের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে দু’পক্ষের ১০ জন আহত হয়। রাজীব ময়মনসিংহ-৩ গৌরীপুর আসনের সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদের ছেলে।

আরও পড়ুন: গৌরীপুরে মেয়র ও এমপিপুত্রের সমর্থকদের সংর্ঘষ

সংঘর্ষের ঘটনা নিয়ে মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম ও তানজির আহমেদ রাজীব পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করেছেন। নিজবাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম অভিযোগ করেন, নির্বাচনের আগে আমাকে মিথ্যা মামলায় আসামি করায় আমি দলের মনোনয়ন পাইনি। পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে নির্বাচনে জয়ী হই। নির্বাচনে আমাকে পরাজিত করতে না পেরে আমাকে হত্যার জন্য রাজীবের পরিকল্পনায় হামলা করা হয়। হামলার সময় আমাকে লক্ষ্য করে গুলি ছোঁড়া হয়।

তানজীর আহমেদ রাজীবের অভিযোগ, ৩০ জানুয়ারি পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচন করায় পরিকল্পিতভাবে তার ওপর হামলা করে মেয়রের সমর্থকরা। আমার বিরুদ্ধে মেয়রের অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা।

অপরদিকে, রোববার (০৭ মার্চ) সন্ধ্যায় ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি। সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করেন মেয়র ও তার সমর্থকরা তার গাড়িবহরে হামলা করেছে।

স্থানীয়রা জানান, মেয়রের সমর্থকদের ডাকে হরতাল পালিত হচ্ছে।

গৌরীপুর কাঁচা বাজার সমিতির সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম বলেন, পৌর মেয়রের ওপর হামলার প্রতিবাদে আমরা ব্যবসায়ীরা সোমবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ হরতাল পালন করছি।

গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) খান হালিম সিদ্দীকী বলেন, গৌরীপুরে কোথাও হরতাল পালিত হচ্ছে না। হরতালের সমর্থনে কোথাও পিকেটিং হয়নি। হরতালের নামে কিছু লোক দোকান-পাট বন্ধ রেখেছে। শহরের মানুষ স্বাভাবিক ভাবে চলাচল করছে। হরতাল প্রতিহত করতে পুলিশ মাঠে আছে।