বিটিআরসির তরঙ্গ নিলাম থেকে আয় ৩ হাজার কোটি টাকা



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বিটিআরসির তরঙ্গ নিলাম

বিটিআরসির তরঙ্গ নিলাম

  • Font increase
  • Font Decrease

দ্রুত পরিবর্তনশীল টেলিযোগাযোগ খাত, গ্রাহকদের মোবিলিটি এবং উচ্চতর ডাটারেটের চাহিদার উত্তরোত্তর বৃদ্ধি -এ বিষয়গুলোর ওপর গুরুত্বারোপ করে বিটিআরসি’র আয়োজনে আজ (৮ মার্চ) রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে ১৮০০/২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের তরঙ্গ নিলাম অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সকাল ১১টায় দেশের চার মোবাইল অপারেটরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে শুরু হয় টেলিযোগাযোগ খাতের বহুল আলোচিত এ নিলাম অনুষ্ঠানটি। এবারের নিলামে ভিত্তিমূল্য ধরা হয় সরকারের পুর্বানুমোদনপূর্বক ২০১৮ সালের নিলামের বিক্রয় মূল্য অনুযায়ী অর্থাৎ, ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের ১ মেগাহার্জ তরঙ্গ মূল্য ১৫ বছরের জন্য ৩১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার হারে এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডের ১ মেগাহার্জ তরঙ্গ মূল্য ১৫ বছরের জন্য ২৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার হারে। ২০১৮ সালের অকশনে নিলামকৃত তরঙ্গ অপারেটর তার চাহিদা অনুযায়ী ২-জি বা ৩-জি অথবা ৪-জি লাইসেন্সের মেয়াদে তরঙ্গ বরাদ্দ গ্রহণের সুযোগ রাখা হয়েছিল।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো. আফজাল হোসেন অনুষ্ঠানে নিলাম সংশ্লিষ্ট বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য প্রদান করেন।

এবারের নিলামে প্রাপ্ত তরঙ্গ, বরাদ্দের তারিখ থেকে ৫.৫৯ বছর মেয়াদকালের জন্য প্রযোজ্য চার্জের সাথে সংশ্লিষ্ট ভ্যাট যোগ করে প্রাপ্ত সর্বমোট চার্জের ২৫% অগ্রিম আগামী ২২ মার্চ মধ্যে পরিশোধ সাপেক্ষে সাময়িক তরঙ্গ বরাদ্দ পত্র জারি করা হবে। তরঙ্গ বরাদ্দপত্র জারির তারিখ থেকে প্রতি এক বছর অন্তর বাৎসরিক ১৫% হারে বাকি ৭৫% চার্জ পাঁচটি কিস্তিতে পাঁচ বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। নিলামে সর্বমোট প্রস্তাবিত ২৭.৪ মেগাহার্জ (১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে ৭.৪ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে ২০ মেগাহার্জ) তরঙ্গ প্রদানের নিষ্পত্তি হয়। যার থেকে সরকারের আয় হবে ভ্যাটসহ প্রায় তিন হাজার কোটি টাকা।

কমিশনের স্পেকট্রাম বিভাগের কমিশনার এ.কে.এম. শহীদুজ্জামানের সভাপতিত্বে প্রায় ১২ ঘণ্টাব্যাপী অনুষ্ঠিত এ নিলামে গ্রামীণফোন ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড হতে ৩১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার/মেগাহার্জ দামে ০.৪ মেগাহার্জ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড হতে ২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার/মেগাহার্জ দামে ০৫ মেগাহার্জ এবং ৪৬.৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার/মেগাহার্জ দামে ০৫ মেগাহার্জ তরঙ্গ বরাদ্দ পেয়েছে। সুতরাং, ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে গ্রামীণ ফোনের বর্তমান তরঙ্গ ১৯.৬ মেগাহার্জ হতে ২০.০ মেগাহার্জে এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে গ্রামীণফোনের বর্তমান তরঙ্গ ১০ মেগাহার্জ হতে ২০ মেগাহার্জে উন্নীত হলো।

রবি ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড হতে ২.৬ মেগাহার্জ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড হতে ২৯ মিলিয়ন মার্কিন ডলার/মেগাহার্জ দামে ০৫ মেগাহার্জ তরঙ্গ বরাদ্দ পেয়েছে। সুতরাং, ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে রবি -এর বর্তমান তরঙ্গ ১৭.৪ মেগাহার্জ হতে ২০.০ মেগাহার্জে এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে রবি -এর বর্তমান তরঙ্গ ১০ মেগাহার্জ হতে ১৫ মেগাহার্জে উন্নীত হলো।

বাংলালিংক ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড হতে ৪.৪ মেগাহার্জ এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ড হতে ৫.০ মেগাহার্জ তরঙ্গ বরাদ্দ পেয়েছে। সুতরাং, ১৮০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে বাংলালিংক -এর বর্তমান তরঙ্গ ১৫.৬ মেগাহার্জ হতে ২০.০ মেগাহার্জে এবং ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে বাংলালিংক -এর বর্তমান তরঙ্গ ১০ মেগাহার্জ হতে ১৫.০ মেগাহার্জে উন্নীত হলো।

টেলিটক ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক নিলামে অংশগ্রহণ করেও শেষ পর্যন্ত কোনো তরঙ্গ কিনতে পারেনি। সুতরাং, ২১০০ মেগাহার্জ ব্যান্ডে টেলিটক -এর বর্তমান তরঙ্গ ১০ মেগাহার্জ ব্যবহার করেই তাদের সেবা প্রদান কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে।

বরাদ্দকৃত তরঙ্গে চলতি বছরের ০৯ এপ্রিল হতে অপারেটরগণ সেবা দিতে সক্ষম হবে। বিটিআরসি আশা করে তরঙ্গ বরাদ্দ করায় মোবাইল টেলিযোগাযোগ এর গুণগত মান বৃদ্ধি পাবে।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে মোবাইল প্রযুক্তির শুরুর দিকে ১৯৯৬ সালে তিনটি অপারেটরকে বিনামূল্যে তরঙ্গ বরাদ্দ দিয়ে সেই সময়ের সরকার প্রধান, আমাদের আজকের প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত দূরদর্শীতার পরিচয় দিয়েছিলেন। যা, আজকের ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে বিটিআরসি তথা সরকারকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে।