বিএনপির গণতন্ত্র ওরস্যালাইনের মতো: কাদের



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপির গণতন্ত্র ওরস্যালাইনের মতো বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টায় সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদফতরের রাজশাহী জোনের কার্যক্রমের পর্যালোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

তিনি বলেন, বিএনপির গণতন্ত্র মানে ‘হ্যাঁ’, ‘না’ ভোট। বিএনপির গণতন্ত্র মানে ১৫ ফেব্রুয়ারি ভোটারবিহীন নির্বাচন। তাঁদের গণতন্ত্র মানে মাগুরা, ঢাকা-১০ এর উপনির্বাচন। তাঁদের গণতন্ত্র মানে এক কোটি ২৩ লাখ ভুয়া ভোটারের প্রস্তুতি। বিএনপির গণতন্ত্র ছিল আধা সের পানি, এক মুষ্টি গুড় আর এক চিমটে লবণ দিয়ে তৈরি ওরস্যালাইনের মতো। নিজ দলে নেই গণতন্ত্রের চর্চা, নেই কাউন্সিল, নেই গঠনতন্ত্রের অনুসরণ, আজ তাঁরা গণতন্ত্রের বুলি ফোটাচ্ছেন। শুধু বিএনপির অসহযোগিতার কারণে গণতন্ত্রের মসৃণ যাত্রা বার বার হোঁচট খাচ্ছে।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি বলে- সরকার নাকি জনবিচ্ছিন্ন। এ কথা তারা প্রায়শই বলে। গত ১৩ বছর ধরে ধারাবাহিক ব্যর্থতার গ্লানি বইতে গিয়ে বিএনপি এসব কথা বলে। জনগণ দ্বারা তারা প্রত্যাখাত। ব্যর্থ হয়ে এখন তাঁরা আন্দোলনের হাঁকডাক দিচ্ছে। বিএনপি বলছে, আওয়ামী লীগের সাথে গণতন্ত্রের সম্পর্ক নাই। করোনার এই সময়ে আমরা রাজনৈতিক বিরূপ মন্তব্য করতে চাই না। পারস্পরিক দোষারোপও করা কারোরই করা উচিত নয়। কিন্তু নিত্যদিন তাঁদের এই কথার জবাব সরকার পক্ষকেও দিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বিএনপি মহাসচিবের গত কয়েকদিনের কথাবার্তা শুনে মনে হচ্ছে- হেফাজতে ইসলামের সাম্প্রতিক যে তাণ্ডবলীলা তা শুধু তারা পৃষ্ঠপোষকতাই নয়, বরং সহিংস ঘটনায় বিএনপি জড়িত ছিল। যারা সরাসরি জড়িত ছিল ভিডিও ফুটেজ দেখে শুধু তাঁদেরকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এখানে কোন আলেম-ওলামার বিষয় না। বিএনপি বা কোন দল দেখে কাউকেই গ্রেফতার করা হয়নি। যারা এই তাণ্ডবলীলার সাথে সরাসরি জড়িত, বাড়িঘর জ্বালিয়েছে, সন্ত্রাস করেছে, সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে তাঁদের গ্রেফতার করা হচ্ছে। অথচ মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নিজেদের আড়াল করার জন্য শাক দিয়ে মাছ ঢাকার অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। তাঁদের কথাবার্তা শুনলে মনে হয়, ঠাকুর ঘরে কে রে? আমি কলা খাই না। হেফাজতের এই তাণ্ডবে আপনারা যে প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে জড়িত এটা সবাই জানে।

মন্ত্রী ভার্চুয়ালি ঢাকা থেকে এ সভায় যোগ দেন। সওজের রাজশাহী কার্যালয় থেকে এই জোনের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী সাদেকুল ইসলাম, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মাসুম সারওয়ারসহ অন্যান্য নির্বাহী প্রকৌশলীরা যোগ দেন। সভা থেকে মন্ত্রী তাঁদের নানা দিকনির্দেশনা দেন।