ভারতকে চিকিৎসা সামগ্রী উপহার দিয়েছে বাংলাদেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, (বেনাপোল) যশোর
ভারতকে চিকিৎসা সামগ্রী উপহার দিয়েছে বাংলাদেশ

ভারতকে চিকিৎসা সামগ্রী উপহার দিয়েছে বাংলাদেশ

  • Font increase
  • Font Decrease

চলমান করোনা মহামারীর সময়ে বন্ধুত্ব ও মানবিক কারণে ভারতকে চিকিৎসা সামগ্রী উপহার দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার।

বৃহস্পতিবার (৫ মে) বিকালে এ উপহার পাঠানো হয়।

বেনাপোল বন্দর দিয়ে একটি ফ্রিজার ভ্যানে ১০ হাজার রেডমি সাইভার নামে অ্যান্টিভাইরাল ইনজেকশন পাঠানো হয়েছে ভারতে। কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের প্রতিনিধিরা ভারতের পেট্রাপোল বন্দর থেকে ইনজেকশনের চালান গ্রহন করে ভারত সরকারের প্রতিনিধিদের কাছে হস্তান্তর করে।

জানা যায়, বর্তমানে ভারতে মহামারী আকার ধারণ করেছে করোনা। প্রতিদিন সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লাখের কাছাকাছি। আক্রান্তদের মধ্যে প্রতিদিন মারা যাচ্ছে সাড়ে তিন হাজার। অবস্থা এতই খারাপ যে আক্রান্ত ও মৃত্যুর দিক দিয়ে ভারত বর্তমানে বিশ্বের দ্বিতীয় অবস্থানে। এমন অবস্থায় সেখানে দেখা দিয়ে অক্সিজেনসহ বিভিন্ন চিকিৎসা উপকরনের সংকট। সংকটের এ মুহূর্তে মানবিক কারণ ও বন্ধুত্বের জানান দিতে ভারতকে ইনজেকশন সহয়তা দেওয়া হয়েছে।

বন্দরে কাগজ পত্রের আনুষ্ঠানিকতাকারী প্রতিষ্ঠান সিএ্যান্ডএফ এজেন্ট রবিউল ইসলাম রবি জানান, ক্ষুদ্র রাষ্ট্র হিসাবে বাংলাদেশ সরকার ভারতের পাশে দাঁড়াতে যে সহয়তা করলো তা দুই দেশের মধ্যে বন্ধুত্বের সম্পর্ক আরও জোরদার করবে।

বেনাপোল বন্দরের সহকারী পরিচালক আতিকুল ইসলাম জানান, সরকারের সহায়তার মেডিকেল ইনজেকশনবাহী ফ্রিজার ভ্যান বেনাপোল বন্দরে পৌঁছানো মাত্র কাগজ পত্রের আনুষ্ঠানিকতা সম্পূর্ণ করে ভারতে পাঠানো হয়।

কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনার তৌফিক হাসান জানান, এ মহামারীর সময়ে ভারতে পাশে দাঁড়তে চিকিৎসা সরঞ্জম উপহার হিসাবে দিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। পরবর্তীতে প্রয়োজন হলে সাধ্যমত অন্যান্য সামগ্রী দিয়ে সহয়তা করা হবে।

ভারতের পেট্রাপোল কাস্টমসের সহকারী কমিশনার দেবাশিষ মুখোপাধ্যায় বলেন, বিপদের দিনে ছোট ভাই হিসাবে বাংলাদেশ যেভাবে ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে এর চেয়ে বড় আর মানবিক কাজ আর কিছু হতে পারেনা। উপহারের এসব মেডিকেল সরঞ্জম বাংলাদেশ প্রতিনিধিদের কাছ থেকে গ্রহণ করে দিল্লিতি পাঠানো হয়েছে।