মাদক নিরাময়কেন্দ্রে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, যশোর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

যশোরের একটি ব্যক্তিমালিকানাধীন মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্রে মাহফুজুর রহমান (২০) নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

রোববার (২৩ মে) দুপুরে এ ঘটনায় ১৪ জনকে আসামি করে যশোর কোতোয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে। এজাহারভুক্ত ১৪ জনকেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিহত মাহফুজুর রহমান চুয়াডাঙ্গার জীবননগর শহরের বাসস্ট্যান্ড এলাকার বাসিন্দা মো. মনিরুজ্জামানের ছেলে। তিনি ওই মাদকাসক্ত নিরাময় ও পুনর্বাসনকেন্দ্রে চিকিৎসা নিতে এসেছিলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মাহফুজুর মাদকাসক্ত ছিলেন। সুস্থ জীবনে ফিরিয়ে আনার জন্য তাঁর বাবা মাসখানেক আগে তাঁকে যশোর শহরের রেল সড়কের মাদকাসক্ত নিরাময় ও পুনর্বাসনকেন্দ্রে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করান। গতকাল শনিবার সকালে রুটি বানানোর জন্য মাহফুজুর কেন্দ্রের রান্নাঘরে যান। এ সময় কেন্দ্রের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাঁকে রুটি বানাতে মানা করেন। তাঁদের মানা না শোনায় কেন্দ্রের অন্য নিবাসীদের নিয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা মাহফুজুরকে রুটি তৈরির ব্যালন দিয়ে মারপিট করেন। শৌচাগারে নিয়ে তাঁর মুখে পানি ঢালা হয়। নির্যাতনের একপর্যায়ে তিনি মল ত্যাগ করলে তাঁকে দিয়েই তা পরিষ্কার করানো হয়। একপর্যায়ে তিনি মারা যান। কেন্দ্রের লোকজন তাঁকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে রেখে আসেন। পরে স্বাভাবিক মৃত্যু হিসেবে অজ্ঞাতপরিচয়ে মরদেহটি হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়।

পরে মাহফুজুরের বাবা হাসপাতালে গিয়ে ছেলের মরদেহ শনাক্ত করে থানায় অভিযোগ দেন।