৪৮ ঘণ্টার মধ্যে হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার ও চার্জশিট দাখিল



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে একটি হত্যা মামলার আসামিদের গ্রেফতার ও অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করেছে পুলিশ।

রোববার (২০ জুন) বিকেলে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও সোনাইমুড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আ.ফ.ম কামাল উদ্দিন।

এর আগে আসামি গোলাম সরোয়ারের ভাষ্যমতে, ঘটনাস্থলের পাশ থেকে হত্যার ঘটনায় ব্যবহৃত একটি ধারালো ছুরি ও একটি লোহার রড উদ্ধারসহ চার্জশিটের সকল কাজ সম্পন্ন করা হয়। চার্জশিটে অভিযুক্তরা হলেন, নিহতের বড় দুই ভাই শাহ আলম (৪৫), গোলাম সরোয়ার (৪০), ভাতিজা নাছির আহম্মেদ শুভ এবং সজীব আহম্মেদ জিদান।

পুলিশ জানায়, গত ১৮ জুন দুপুর আড়াইটার দিকে সোনাইমুড়ী উপজেলার জয়াগ ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভাওরকোট গ্রামের ফকির বাড়িতে পারিবারিক কলহ ও পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে বড় ভাই শাহ আলম, গোলাম সরোয়ার, ভাতিজা নাছির আহম্মেদ শুভ, সজীব আহম্মেদ জিদান ইলিয়াছ হোসেনকে (৩০) রড দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মক জখম করে। পরে ভাই গোলাম সরোয়ার ধারালো ছুরি দিয়ে ছোট ভাই ইলিয়াছ হোসেনের ডান ও বাম পায়ের উরুতে একাধিক ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক সোনাইমুড়ী থানার পুলিশ হত্যার সাথে জড়িত আসামি শাহ আলম, গোলাম সরোয়ার ও নাছির আহম্মেদ শুভকে গ্রেফতার করে।

গত ১৯ জুন এই হত্যার ঘটনায় ভিকটিম ইলিয়াছ হোসেনের সৎ মা রৌশন আক্তার বাদী হয়ে দুই ভাই ও দুই ভাতিজাকে আসামি করে সোনাইমুড়ী থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। এরপর সোনাইমুড়ী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আ.ফ.ম কামাল উদ্দিন মামলা রুজু হওয়ার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ৩ আসামিকে গ্রেফতার দেখিয়ে, মামলার সাক্ষ্য প্রমাণ সংগ্রহ করে আদালতে অভিযোগপত্র (চার্জশিট) দাখিল করে। আসামি গোলাম সরোয়ার নিজের দোষ স্বীকার করে আদালতে সিআরপিসি আইনের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি প্রদান করে। সোনাইমুড়ী থানার মামলা নং-১০,অভিযোগ পত্র নং-১৭২।

সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তিনি আরও জানান অপর পলাতক আসামিকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।