ভারতে পাচার  তরুণীকে ট্রাভেল পারমিটে ফেরত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বেনাপোল (যশোর)
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতে পাচারের শিকার সাগরিকা নামে এক তরুণীকে দুই বছর পর বেনাপোল বন্দর দিয়ে ফেরত পাঠিয়েছে ভারতীয় পুলিশ।

সোমবার (২১ জুন) সন্ধ্যায় ভারতের পেট্রাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে ট্রাভেল পারমিট প্রক্রিয়ায় বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের হাতে সোপর্দ করে।

ফেরত আসা তরুণী নড়াইলের  লোহাগড়া উপজেলার শ্রীভাষ কুমার বিশ্বাসের মেয়ে।

বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আহসান হাবিব জানান, ইমিগ্রেশনে কাগজ পত্রের আনুষ্ঠানিকতা শেষে আইনি সহয়তা দিতে ঐ কিশোরীকে জাস্টিস এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থা গ্রহণ করেছে।

তরুণীকে গ্রহণকারী এনজিও সংস্থ্যা জাস্টিস এন্ড কেয়ারের যশোর শাখার ফিল্ড অফিসার রোকেয়া খাতুন  জানান, ভাল কাজের প্রলোভনে দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে ঐ তরুণী দুই বছর আগে ভারতে যায়। এ সময় পাচারকারীরা তাকে ভাল কাজ না দিয়ে বোম্বায় শহরে ঝুঁকিপূর্ণ কাজে ব্যবহার করে। খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করে। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশ আইনে মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করে। সেখান থেকে ভারতীয় একটি এনজিও সংস্থ্যা তাকে ছাড়িয়ে নিজেদের হেফাজতে রাখে। সেখান থেকে রাষ্ট্রীয় প্রক্রিয়ায় ট্রাভেল পারমিটে তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হয়।

এ সময়  তিনি আরো জানান, বর্তমান কোভিড পরিস্থিতির কারণে নিরাপত্তার কথা ভেবে তরুণীকে বেনাপোলে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। পরে তাকে আইনি সহয়তাসহ কর্মসংস্থানের বিষয়ে সহযোগিতা করা হবে বলেও জানান তিনি।