এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে: মেয়র তাপস



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

মশক নিধনে বছরব্যাপী কার্যক্রম চলমান রয়েছে বলে জানিয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেছেন, আমরা বছরব্যাপী কর্মপরিকল্পনা নিয়েছিলাম যার কারণে কিন্তু আমরা এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছি। বছর ব্যাপী কার্যক্রম নেওয়াতেই এটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় রোববার (২৫ জুলাই) স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে জরুরি ভিত্তিতে মেয়রদের সঙ্গে বৈঠক করেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এবং গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলম।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদের সঞ্চালনায় জরুরি এই সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ প্রমুখ।

ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, এখন লকডাউন চলছে, সকল সরকারি, বেসরকারি অফিস কার্যালয় বন্ধ। মশক নিধনে আমাদের বছরব্যাপী কার্যক্রম চলমান রয়েছে। যার কারণে কিন্তু এটিকে আমরা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পেরেছি।

এসময় ডিএসসিসি’র নেওয়া কার্যক্রম সম্পর্কে তিনি বলেন, আমাদের ৭৫ টি ওয়ার্ডে ২ জন ম্যাজিস্ট্রেট আছে। গত ১১ জুলাই থেকে আমরা চিরুনি অভিযান শুরু করেছি। এই চিরুনি অভিযান করার ফল পেয়েছি। আইইডিসিআর থেকে যে তথ্য দিয়েছে তাতে ১১ জুলাইয়ের আগে ডিএসসিসি এলাকায় সর্বোচ্চ ডেঙ্গু রোগী এসেছিল ৮১ জন। অভিযান চালানোর পরদিন ৭৫ জন, তারপর দিন ৬৫, তারপরদিন এসেছে ১৩ জন আর গত বৃহস্পতিবার ২২ জুলাই এসেছে ২৫ জন। অর্থাৎ চিরুনি অভিযান করার পর কমে এসেছিল।

আমরা শঙ্কা করেছিলাম যে ঈদের চারদিন ছুটি বৃষ্টি হচ্ছে আবারও এডিস মশার বিস্তার হবেই। যার কারণে ১৮ জুলাই আবার সভা করে ২০ তারিখ পর্যন্ত আমাদের কার্যক্রম তরান্বিত করেছি। গত ২১, ২২ এবং ২৩ জুলাই বন্ধ ছিল। এই তিন দিনের কারণে আবার বেড়ে ১০৪ জন হয়েছে।

মেয়র বলেন, প্রাকৃতিক কারণে এটা এডিস মশার প্রজননের সময়। তবে আমরা আশাবাদী চিরুনি অভিযান শুরু হবে। আমাদের ভ্রাম্যমাণ আদালত চলবে। নগরবাসীকে বলব আপনারা আমাদের জানান কোথায় এডিসের লার্ভা আমরা সাথে সাথে সেখানে গিয়ে ব্যবস্থা নেব।

তিনি বলেন, ছাদ বাগান দরকার আছে কিন্তু সঠিক পরিচর্যা না হলে বড় প্রতিকূলতা সৃষ্টি হবে। নগরবাসীর প্রতি নিবেদন আপনারা আপনাদের আঙিনায় আমাদের ঢুকতে দেবেন, লার্ভা নিধন করার সুযোগ দেবেন, আমরা প্রস্তুত আপনাদের সেবা দেবার জন্য আপনাদেরও সেবাটা নিতে হবে। এপর্যন্ত যেভাবে এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে রেখেছি, আমরা অবশ্যই এডিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারব।