এমপি কাজী কেরামতের হাতে লাঞ্চিত ভাটার মালিক



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
এমপি কাজী কেরামতের হাতে লাঞ্চিত ভাটার মালিক

এমপি কাজী কেরামতের হাতে লাঞ্চিত ভাটার মালিক

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজবাড়ী-১ আসনের সংসদ সদস্য ও  সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব কাজী কেরামত আলীর হাতে লাঞ্চিত হয়েছেন এনজিএল ভাটার নির্বাহী পরিচালক আল আমিন মোস্তফা। এমপি কাজী কেরামত আলী স্থানীয় মানুষ ও গণমাধ্যমকর্মীদের সামনেই নিজে ঐ ভাটার মালিককে ধাক্কা মারেন। ধাক্কা মারার পরই এমপি’র আপন ভাই কাজী টিটুসহ অবৈধ বালু উত্তোলনকারীরা ভাটার মালিক আল-আমিনকে মারতে থাকেন এবং এক ব্যক্তি আল আমিনকে দেখে নেওয়ার হুমকি প্রদান করেন।

বুধবার (৬ অক্টোবর) দুপুরে রাজবাড়ী সদরের গোদারবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এমপি’র ধাক্কা দেওয়ার ২ মিনিট ৫৯ সেকেন্ডের একটি ভিডিও তাৎক্ষণিক ভাবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে নিন্দার ঝড় ওঠে।

জানা যায়, আজ বুধবার রাজবাড়ীতে নদী ভাঙন পরিদর্শন আসেন পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো.জাহিদ ফারুক। মন্ত্রীর  পরিদর্শনের সময় স্থানীয় বাসিন্দা কানাই সরদার বাংলা কাটার দিয়ে অবৈধ বালু উত্তোলনের অভিযোগ তোলেন। এতে করেই তার ওপর ক্ষিপ্ত হয় সংসদ সদস্যের ভাই কাজী টিটুসহ অবৈধ বালু উত্তোলনের সাথে জড়িতরা।

কানাই সরদারের কথা সঠিক বলে তার পক্ষে অবস্থান নেয় নদীর তীরবর্তী এনজিএল ভাটার নির্বাহী পরিচালক আল আমিন মোস্তফা। এতে করেই চটে যান এমপি কাজী কেরামত আলী। তার ওপর চড়াও হোন তিনি। এক পর্যায়ে এমপি নিজেই ভাটার মালিক আল-আমিনকে বুকে ধাক্কা মারেন। এরপরই এমপির ভাই টিটু কাজী তাকে মারতে থাকলে স্থানীয়রা ঠেকিয়ে দেন।


তবে ঐ ভিডিওর শেষে এমপি’র বলতে শোনা যায়, ভাটার মালিককে ধাক্কা দেওয়া তার উচিত হয়নি। আল আমিন মোস্তফা রাজবাড়ী পৌরসভার মৃত গোলাম মোস্তাফার ছেলে।

আল আমিন মোস্তফা বলেন, অব্যাহত নদী ভাঙনে দিশেহারা রাজবাড়ীর মানুষ। পদ্মা নদী থেকে অবৈধ ড্রেজারে বালু উত্তোলন করে আসছিলো স্থানীয় সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলীর আপন ছোট ভাই টিটু কাজী। আমি সহ স্থানীয়রা বালু উত্তোলনে বাঁধা দিলে আমাকে হুমকি প্রদান করে। আজ বাংলাদশ সরকারের প্রতিমন্ত্রী আসলে অবৈধ বালু উত্তোলনের কথা বললে আমাকে লাঞ্ছিত করে এবং হত্যার হুমকি দেয়। আমি বর্তমানে জীবন শংঙ্কার মধ্যে রয়েছে।

হুমকির ঘটনার দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হতে থাকে। সেখানে দেখা যায় আল আমিন মোস্তফা এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডের ঠিকাদার টিটু কাজীর সাথে তাদের কথা কাটাকাটি হচ্ছে। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলী তাকে ধাক্কা দেন। এমপি’র ধাক্কার পরই টিটু কাজীও তাকে ধাক্কা দিয়ে মারতে থাকেন। এ সময় পাশের এক ব্যক্তি আল আমিনকে দেখে নেওয়ার হুমকি প্রদান করেন।

এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে সংসদ সদস্য কাজী কেরামত আলীর মোবাইলে বারবার যোগাযোগ করা হলেও কেউ রিসিভ করেননি।