মাদককাণ্ডে পদ হারালেন ছাত্রলীগ নেতা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুড়িগ্রাম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গত শুক্রবার রংপুরে ১২ বোতল দেশীয় মদসহ র‍্যাবের হাতে আটক হন উলিপুর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা এবং উলিপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. রাসেল চৌধুরী। রোববার (২৪ অক্টোবর) সংগঠনটির শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যক্রমে জড়িত থাকার অভিযোগ এনে রাসেন চৌধুরীকে দল থেকে অব্যাহতি দেয় জেলা কমিটি। এছাড়াও তার স্থায়ী বহিষ্কার চেয়ে সুপারিশ করেছে জেলা কমিটি।

ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রাজু আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক মো. সাদ্দাম হোসেন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে মো. রাসেল চৌধুরীকে অব্যাহতি দেয়া হয়। রাসেল চৌধুরী উলিপুর পৌরসভার খেয়ারপাড় এলাকার চৌধুরী পাড়ার আনোয়ারুল ইসলামের পুত্র।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, দলীয় আদর্শ ও সংগঠন বিরোধী কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে মো. রাসেল চৌধুরীক তার পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হলো এবং দল থেকে স্থায়ী বহিষ্কারের জন্য বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় সংসদের নিকট সুপারিশ করা হলো।

মো. রাসেল চৌধুরীকে অব্যাহতির বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রাজু আহমেদ বলেন, কুড়িগ্রাম জেলা ছাত্রলীগ মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সে। মাদকের সাথে কোনো আপস হবে না। আর ব্যক্তির দায়ভার কখনো সংগঠন নিবে না। আমরা সকল উপজেলায় বলে দিয়েছি, কারো বিরুদ্ধে যদি এরকম অভিযোগ থাকে তাহলে আমাদের জানাতে। কেননা ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে গড়া সংগঠন। এই সংগঠনকে কেউ কালিমা লেপন করুক সেটা জেলা ছাত্রলীগ গ্রহণ করবে না।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, গত শুক্রবার (২২ অক্টোবর) বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রংপুর শহরের শাপলা চত্বর থেকে ১২ বোতল দেশীয় মদসহ রাসেল চৌধুরী ও মশিউর রহমানকে আটক করা হয়। পরে তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দিয়ে রংপুর কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়।

গত শনিবার (২৩ অক্টোবর) কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ জানান, আটক দুই আসামিকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।