বিশ্ব নাগরিকত্ব শিক্ষার উন্নয়নে রাজশাহীর ২ স্কুলে কর্মশালা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
রাজশাহীর দুটি স্কুলে কর্মশালা শুরু। ছবি: বার্তা২৪.কম

রাজশাহীর দুটি স্কুলে কর্মশালা শুরু। ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বিশ্ব নাগরিকত্ব শিক্ষার উন্নয়নে রাজশাহী মহানগরীর দুটি স্কুলে দুইদিনব্যাপী কর্মশালা শুরু হয়েছে। সোমবার (২৫ অক্টোবর) থেকে রাজশাহী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলে এ আয়োজন করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) এ কর্মশালা শেষ হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বাংলাদেশ ইউনেস্কো জাতীয় কমিশন ও ইউনেস্কোর ঢাকা অফিসের সহযোগীতায় বাংলাদেশ জাতীয় ইউনেস্কো ক্লাব অ্যাসোসিয়েশন এ কর্মশালার আয়োজন করেছে।

‘বিশ্ব নাগরিকত্ব শিক্ষা বিকাশের মাধ্যমে মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে ইউনেস্কো অগ্রাধিকারপ্রাপ্ত বিষয়সমূহের প্রসার’ বিষয়ক এই কর্মশালায় ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা অংশ নিচ্ছে।

কর্মশালার প্রথম দিন রাজশাহী সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ে প্রধান অতিথি ছিলেন বিভাগীয় কমিশনার ড. হুমায়ুন কবীর। তিনি বলেন, প্রতিটি শিক্ষার্থীকে পরিবার ও সমাজের জন্য রোল মডেল হতে হবে। এখনই সময় জীবন গড়ার। ভালো ছাত্র হবার পাশাপাশি একজন ভালো মানুষও হতে হবে।

তিনি আরও বলেন, শিক্ষা মেয়েদের শক্তি। শিক্ষা শুধু চাকরির ক্ষেত্রেই কাজে আসে এমনটা নয়। শিক্ষা মানুষকে সামাজিক মর্যাদা দান করে। মানুষকে আত্মমর্যাদাশীল করে তোলে। দেশে বর্তমানে ৫০ শতাংশই নারী। এই নারীদের বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। ইসলামে নারীদের সমান মর্যাদা দেয়া হয়েছে। নারীদের শেষ পর্যন্ত পড়ান, সেই হবে আপনার পরিবারের সম্পদ।

কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা (মাউশি) অধিদপ্তরের রাজশাহীর উপ-পরিচালক ড. শরমিন ফেরদৌস চৌধুরী। এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা শিক্ষা অফিসার নাসির উদ্দিন, বাংলাদেশ জাতীয় ইউনেস্কো ক্লাব অ্যাসোসিয়েশনের মহাপরিচালক মাহাবুব উদ্দিন চৌধুরী, প্রধান শিক্ষক ইসাবেলা সাত্তার প্রমুখ।

‘বিশ্ব নাগরিকত্ব শিক্ষা’ বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করার উদ্দেশ্যে পাইলট প্রকল্প হিসেবে দেশের ৯টি বিভাগীয় শহরের দুটি করে মোট ১৮টি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয় বেছে নেওয়া হয়েছে।

রাজশাহীর এ দুটি স্কুলেই দুইদিনব্যাপী কর্মশালা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সোমবার বিকালে রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুলে কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক আবদুল জলিল।