ডুবে যাওয়া ফেরি থেকে চার ট্রাক উদ্ধার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মানিকগঞ্জ
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলার পাটুরিয়া ফেরিঘাট এলাকার ৫ নম্বর পন্টুন এলাকায় ডুবে যাওয়া ফেরি থেকে পণ্যবাহী চারটি ট্রাক উদ্ধার করা হয়েছে। এখনো পদ্মা নদীতে ডুবে আছে ১১টি ট্রাক। এসব ট্রাক উদ্ধারে অভিযান চলমান রয়েছে।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাত ৮টার দিকে চতুর্থতম ট্রাকটি পণ্যবোঝাই অবস্থায় উদ্ধার করে উদ্ধারকারী জাহাজ হামজার ডুবুরি দল। সকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে মোট চারটি ট্রাক উদ্ধার করা হয়।

ডুবে যাওয়া ফেরিতে থাকা যানবাহন সম্পর্কে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন করপোরেশন আরিচা কার্যালয়ের ডিজিএম জিল্লুর রহমান বলেন, সকাল ৯টার দিকে ১৭টি ট্রাক ও কয়েকটি মোটরসাইকেল নিয়ে পাটুরিয়া ঘাটের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয় ফেরি আমানত শাহ।

এরপর ফেরিটি পাটুরিয়া ঘাটের ৫ নম্বর ঘাট এলাকায় নোঙর করা মাত্রই ফেরিতে পানি উঠতে শুরু করে। এসময় ফেরির মাস্টার র‍্যাম নামানোর সঙ্গে সঙ্গে ঝুঁকি নিয়ে ফেরি থেকে নেমে যায় দুটি ট্রাক। এরপর বাকি ১৫টি ট্রাক ও মোটরসাইকেল নিয়ে ডুবে যায় ফেরি আমানত শাহ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ফায়ার সার্ভিসের এক ডুবুরি বলেন, ফেরিটি ডুবে যাওয়ার পরপরই উদ্ধার অভিযান শুরু করা হয়। ফেরিটিতে কোনও যাত্রী বা যানবাহন শ্রমিকের কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। আর ফেরিটি ডুবে যাওয়ার পরপরই ৫টি ট্রাক ফেরি থেকে ছিটকে পড়ে ভাটিতে ভেসে যায়।

সেগুলোকে শনাক্ত করে রাখা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে ট্রাকগুলোকে উদ্ধার করা হবে। আর ফেরির ভেতর থেকে চারটি ট্রাক উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার হওয়া ট্রাকে কোন চালক বা সহযোগী পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।

ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা বিভাগীয় উপ পরিচালক দিনোমনি শর্মা বলেন, উদ্ধারকারী জাহাজে ফায়ার সার্ভিস, নৌ-বাহিনী এবং বিআইডব্লিউটিএ এর ডুবুরি দল রয়েছে। তারা উদ্ধার অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে। ডুবে যাওয়া ফেরিটিতে কোন ব্যক্তি আটকা নেই বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। পর্যায়ক্রমে সবগুলো ট্রাক উদ্ধার করা হবে বলেও জানান তিনি।