শিশু ধর্ষণ চেষ্টা মামলার আসামি গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা ২৪.কম

ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

আশুলিয়ার চাঞ্চল্যকর শিশু ধর্ষণ চেষ্টা মামলার আসামি মো. জিন্নাত (৫৪) শেরপুর জেলার চাপাতলী এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) বিকাল ৩টার সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করেন র‌্যাব-৪ এর একটি অভিযানিক দল। র‌্যাব-৪ এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় , আশুলিয়ার টেন্ডবার এলাকায় একটি বাড়িতে ভাড়াটিয়া থাকতেন ভিকটিমের পরিবার। ওই বাসার ৪র্থ তলায় থাকতেন আসামি জিন্নাত এবং তার স্ত্রী। একই বাসায় থাকার কারণে প্রায় সময় জিন্নাত ভিকটিমকে চিপস্ ও চকলেট কিনে দিয়ে বন্ধুত্ব গড়ে তোলেন বলে জানান র‌্যাব।

র‌্যাব আরও জানায়, এই সম্পর্কের সুযোগ নিয়ে গত ২৫ অক্টোবর দুপুরের দিকে ভিকটিম এর পিতা-মাতা বাসায় না থাকার সুযোগে জিন্নাত সুকৌশলে ভিকটিমকে তার ফাঁকা বাসায় নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায়। ভিকটিম চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন জড়ো হয়ে ভিকটিমকে উদ্ধার করে এবং আসামি পালিয়ে আত্মগোপনে চলে যায়।

গত ১ নভেম্বর ভিকটিমের পিতা আশুলিয়া থানায় একটি মামলা করেন। মামলার ফলে র‌্যাব-৪ এর একটি গোয়েন্দা দল পুলিশের পাশাপাশি আসামি গ্রেফতারে ছায়া তদন্ত শুরু করে বলে জানায় র‌্যাব।

গোয়েন্দা সংবাদ ও স্থানীয় সোর্সের সহায়তায় জানা যায়, জিন্নাত শেরপুর জেলার সদর থানাধীন এলাকায় অবস্থান করছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-৪ এর একটি আভিযানিক দল আজ বিকাল ৩টার সময় শেরপুর জেলার শেরপুর সদর থানার চাপাতলী এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে জিন্নাত’কে গ্রেফতার করে।

র‌্যাব জানায়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী জিন্নাত ভিকটিমকে চিপস্ ও চকলেটের প্রলোভন দেখিয়ে তার ফাঁকা বাসায় ডেকে নিয়ে আসে এবং জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা করে। পরবর্তীতে ভিকটিমের চিৎকারে লোকজন এগিয়ে আসলে সে পালিয়ে শেরপুর জেলায় আত্মীয় এর বাসায় আত্মগোপনে ছিল বলে স্বীকার করেন।

গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান র‌্যাব।