জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের জন্য দোয়া কামনা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম ঢাকা
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকার এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জাতীয় অধ্যাপক রফিকুল ইসলামের শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। তাকে হাসপাতালের হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিটে (এইচডিইউ) স্থানান্তর করা হয়েছে। এই অবস্থায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা করা হয়েছে।

তার ছেলে বর্ষণ ইসলাম বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বলেন, বাবা ক্রিটিক্যাল কন্ডিশনে আছেন। নিউমোনিয়ার সমস্যা বেড়ে যাওয়ায় তার শ্বাসকষ্ট হচ্ছে। তিনি বাংলাদেশেই চিকিৎসা নিতে চান। উনার শারীরিক অবস্থা খুব একটা ভালো নয়। এই অবস্থায় আমরা পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর কাছে দোয়া চাই।

বর্ষণ জানান, গত ৭ অক্টোবর পেটের ব্যথা নিয়ে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) ভর্তি হয়েছিলেন তার বাবা। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর তার ফুসফুসে পানি ধরা পড়ে। তখন থেকে তিনি সেখানেই বক্ষব্যাধি (রেসপিরেটরি মেডিসিন) বিভাগের অধ্যাপক ডা. এ কে এম মোশাররফ হোসেনের অধীনে চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। পরে চার দিন আগে তাকে এভারকেয়ারে স্থানান্তর করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রথম নজরুল অধ্যাপক এবং নজরুল গবেষণা কেন্দ্রের প্রথম পরিচালক ছিলেন অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। ৮৭ বছর বয়সী এই ভাষাবিজ্ঞানী, লেখক ভাষা আন্দোলনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেছেন। ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টসের উপাচার্য ছিলেন তিনি। এক সময় বাংলা একাডেমির মহাপরিচালকের দায়িত্বও পালন করেছেন।

২০১৮ সালে সরকার তাকে জাতীয় অধ্যাপক স্বীকৃতি দেয়। ২০২১ সালের ১৮ মে সরকার তাকে তিন বছরের জন্য বাংলা একাডেমির সভাপতির দায়িত্ব দেয়।

কর্মজীবনের স্বীকৃতি হিসেবে স্বাধীনতা ও একুশে পদক পেয়েছেন তিনি। এছাড়া মাতৃভাষা সংরক্ষণ, পুনরুজ্জীবন, বিকাশ, চর্চা, প্রচার-প্রসারে অবদান রাখায় ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা পদক’ দেওয়া হয় তাকে।