জলবায়ু প্রকল্পে বিনিয়োগ করুন



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • Font increase
  • Font Decrease

বদ্বীপ পরিকল্পনার মতো বাংলাদেশের দীর্ঘমেয়াদী জলবায়ু প্রকল্পে এএসইএম অংশীদারদের বিনিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি এশিয়া ও ইউরোপকে জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মোকাবেলায় কার্যকরভাবে লড়াইয়ের জন্য অর্থ ও প্রযুক্তি প্রবাহকে সংহত করতে ঐক্যদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

কম্বোডিয়ার রাজধানী নমপেনে বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া দু'দিনব্যাপী ১৩তম এশিয়া-ইউরোপ শীর্ষ সম্মেলনে (আসেম) প্রচারিত ভিডিওবার্তায় তিনি এ আহ্বান জানান। খবর বাসসের।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি সকল আগ্রহী এএসইএম অংশীদারদের আমাদের দীর্ঘমেয়াদী বাংলাদেশ বদ্বীপ পরিকল্পনা এবং মুজিব জলবায়ু সমৃদ্ধি পরিকল্পনার আওতায় প্রকল্পগুলোতে বিনিয়োগের জন্য আমন্ত্রণ আহ্বান জানাচ্ছি।

এএসইএম-এর ২৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এএসইএম১৩-এর সামগ্রিক প্রতিপাদ্য ‘অংশীদারি প্রবৃদ্ধির জন্য বহুপাক্ষিকতাকে শক্তিশালী করা’ শীর্ষক সম্মেলনে ইউরোপীয় ও এশিয়ার সদস্য দেশ, ইইউ এবং আসিয়ান সচিবালয়ের নেতাদের একত্রিত করেছে। কম্বোডিয়া বর্তমানে এএসইএম এর সভাপতির দায়িত্বে রয়েছে।

শেখ হাসিনা বলেন, এশিয়া ও ইউরোপকে জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় অর্থ ও প্রযুক্তি প্রবাহ সংহত করতে অবশ্যই একত্রিত হয়ে হাতে হাত মিলাতে হবে। তিনি বলেন, যৌথ ও টেকসই উন্নয়নের জন্য আমাদের এখন আগের চেয়ে আরো বেশি করে বহুপাক্ষিক সহযোগিতা প্রয়োজন। উন্নত এবং শিল্পোন্নত অর্থনীতিগুলোকে কপ২৬ এর বাইরে তাদের জলবায়ু উচ্চাকাক্সক্ষা বাড়াতে হবে। আমি তাদের অনুরোধ করছি তারা যেন এমন দায়িত্ব না নেয় যা প্রকারান্তরে আমাদের নিজস্ব অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ তার প্রতিবেশিদের জন্য সম্ভাবনাময় সুবিধা সম্বলিত একটি আঞ্চলিক সংযোগ কেন্দ্র হতে চায়। ইইউ-এশিয়া সংযোগ কৌশলের অন্যতম সেতু হওয়ার প্রস্তাবও দিয়েছে বাংলাদেশ।

তিনি তাঁর বক্তব্যে রেল ও সড়কপথে উপ-আঞ্চলিক যোগাযোগ প্রকল্পে ইউরোপের সম্পৃক্ততাকে স্বাগত জানান। আন্তর্জাতিক নিরাপত্তা সহযোগিতার মাধ্যমে আমাদের যৌথ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যে সহায়তা করা প্রয়োজন উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আসিয়ান আঞ্চলিক ফোরামের মতো আঞ্চলিক সংগঠনলোকে পাচার প্রতিরোধ, সমুদ্র ও সাইবার নিরাপত্তা প্রতিরোধে এবং সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সময়োপযোগী সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

তিনি বলেন, আমাদের বহুপাক্ষিক সহযোগিতার একটি গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা হবে মিয়ানমারের জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত জনগণ - রোহিঙ্গাদের জন্য একটি স্থায়ী ও শান্তিপূর্ণ সমাধান খুঁজে বের করা। বাংলাদেশ তাদের অস্থায়ী আশ্রয় দেয় এবং পরিস্থিতি স্থিতিশীল করে। আমরা মিয়ানমারে তাদের নিরাপদ ও মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবর্তনে জোর দাবি জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, কক্সবাজার ক্যাম্পের নিরাপত্তা পরিস্থিতি জটিল হয়ে উঠছে এবং ক্রমবর্ধমান সহিংসতা ও অপরাধ শিগগিরই আমাদের সীমান্তের বাইরেও ছড়িয়ে পড়তে পারে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই সংকটের প্রতি অস্থায়ী প্রতিক্রিয়া খুব সামান্য উদ্দেশ্য পূরণ করবে। আমি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে অনুরোধ করছি আমরা যে উদ্বেগ প্রকাশ করছি তার প্রতি যথাযথ মনোযোগ দিন। বাংলাদেশ নিজেকে এশিয়ার রীতিনীতি এবং ইউরোপীয় মূল্যবোধের সেরা মডেল হিসাবে বিবেচনা করে উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রথম দিন থেকেই বহুপাক্ষিকতার প্রতি আমাদের অঙ্গীকার অবিচল রয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারা আমাদের বেশ কতগুলো ইউরোপিয়ান অংশীদারদের সঙ্গে কৌশলগত সংলাপে সম্পৃক্ত রয়েছেন এবং তারা আসিয়ানের একটি সেক্টোরাল ডায়ালগ পার্টনার হওয়ার জন্য উন্মুখ হয়ে আছে। ইন্ডিয়ান ওশান রিম অ্যাসোসিয়েশন (আইওআরএ), ডি-৮, বিমসটেকে বর্তমানে তাদের নেতৃত্ব রয়েছে এবং আমাদের অভিন্ন লক্ষ্য অর্জনের জন্য অন্যান্য ফোরামগুলো ব্যবহার করা হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, ভালো একটি আন্তর্জাতিক ব্যবস্থার জন্য একটি শক্তি হিসাবে আমরা আসেম’কে (এএসইএম) আবির্ভূত হতে দেখতে চাই।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এ বছর আমরা আমাদের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন করছি।

কোভিড-১৯ মহামারি বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য ব্যবস্থা এবং অর্থনীতির ওপর প্রবল চাপ সৃষ্টি করেছে এ কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই মহামারির কারণে আমাদের উন্নয়ন সংস্থানগুলো ঘুরিয়ে জরুরি চিকিৎসা ও ভ্যাকসিন কার্যক্রমে ব্যয় করতে বাধ্য করেছে।

তিনি বলেন, তাঁর সরকার জীবন ও জীবিকা উভয় সুরক্ষার কৌশল গ্রহন করেছে। তাঁর সরকার মহামারির প্রভাব মোকাবিলায় ৫৪০ কোটি মার্কিন ডলারের ২৮ টি উদ্দীপনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে।

তিনি বলেন, আমাদের অগ্রাধিকার এখন আমাদের কষ্টার্জিত উন্নয়ন ধরে রাখা, দারিদ্র ও ক্ষুধা হ্রাস করা, মা ও শিশুদের রাঁচানো, শিক্ষা ও সাক্ষরতা বৃদ্ধি করা এবং স্বাস্থকর জীবনযাপন নিশ্চিত করা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকারের লক্ষ্য ২০২২ সালের মার্চের মধ্যে দেশের জনসংখ্যার ৮০ শতাংশ লোকের টিকাদান সম্পন্ন করা।

তিনি বলেন, আমরা আমাদের এলডিসি থেকে উত্তরণের গতি বজায় রাখার আশা করি। ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি অর্জনের দিকে আমাদের মনোযোগ থাকবে। আমাদের লক্ষ্য ২০৪১ সালের মধ্যে একটি অন্তর্ভুক্তিমূলক এবং সমৃদ্ধ দেশ গড়ে তোলা। এই লক্ষ্য অর্জনে এশিয়া এবং ইউরোপের সঙ্গে আমাদের অংশীদারিত্ব গুরুত্বপূর্ণ।

প্রধানমন্ত্রী ভ্যাকসিন অনুদানের জন্য এশিয়া, ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রের বন্ধুদের ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মানসম্পন্ন ভ্যাকসিন উৎপাদনের ক্ষমতা আছে। আমরা চাই প্রযুক্তিগত জ্ঞান এবং এ জন্য লাইসেন্স।

জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের পরে এটি আন্তর্জাতিক নেতৃত্বের বৃহত্তম সম্মেলন। (এতে ৩০টি ইউরোপীয় এবং ২১টি এশীয় দেশের সঙ্গে ইইউ ও আসিয়ান সচিবালয় রয়েছে।) আসেমে ইইউ’র ২৭ সদস্য দেশের পাশাপাশি নরওয়ে, সুইজারল্যান্ড এবং যুক্তরাষ্ট্র রয়েছে।

কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুনসেন সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন। ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট চার্লস মিশেল, ইউরোপিয়ান কমিশন প্রেসিডেন্ট উরসুলা ভন ডার লেন ইইঊ’র প্রতিনিধিত্ব করেন। স্লোভানিয়ার প্রধানমন্ত্রী জানেস জানসা পর্যায়ক্রমে ইইউ’র কাউন্সিলে প্রতিনিধিত্ব করেন। ফরেন অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড সিকিউরিটি বিষয়ক উচ্চ প্রতিনিধি জোসেফ বোরেল সম্মেলনে অংশ নেন।

বালিয়াকান্দিতে অস্ত্রসহ গ্রেফতার ২



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
বালিয়াকান্দিতে অস্ত্রসহ গ্রেফতার ২

বালিয়াকান্দিতে অস্ত্রসহ গ্রেফতার ২

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দিতে বিশেষ অভিযান চালিয়ে অস্ত্রসহ ২ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হল- উপজেলার জঙ্গল ইউনিয়নের জঙ্গল গ্রামের নিখিল বিশ্বাসের ছেলে অনুপম বিশ্বাস (২৮) ও একই গ্রামের মৃত দশরথ মন্ডলের পুত্র বিশ্বজিৎ মন্ডল (৪০)।

বালিয়াকান্দি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সোমবার দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটের দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমি, এসআই রাজিবুল ইসলাম ও সঙ্গীয় ফোর্সসহ জঙ্গল বাজারে অবস্থিত সনজিত বারইয়ের মুদি ও ফার্নিচারের দোকানে অভিযান চালিয়ে দেশীয় অস্ত্র ওয়ান স্যুটারগান ও ২টি কার্তুজসহ তাদেরকে আটক করি।

এবিষয়ে এসআই রাজিবুল ইসলাম বাদী হয়ে বালিয়াকান্দি থানায় অস্ত্র আইনের ১৯ (এএফ) ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন এবং গ্রেফতারকৃতদের দুপুরে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

;

বৈদ্যুতিক তার, প্রসাধনী এবং ভেজাল খাদ্যদ্রব্য উৎপাদনে জরিমানা



Tabassum Tanjim
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ এলাকায় নকল বৈদ্যুতিক তার, প্রসাধনী এবং ভেজাল খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন মজুদ ও বিক্রি করায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালতে ২১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) র‍্যাব-১০ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি এনায়েত কবির শোয়েব এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, সোমবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত র‌্যাব এর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মো. মাজহারুল ইসলাম ও র‌্যাব-১০ এর সমন্বয়ে একটি আভিযানিক দল ঢাকা জেলার দক্ষিণ কেরাণীগঞ্জ এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত কার্যক্রম সম্পন্ন করে। এসময় বিএসটিআই এর প্রতিনিধির উপস্থিতিতে উক্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত উল্লেখিত এলাকায় অনুমোদনহীন ও নকল বৈদ্যুতিক তার, প্রসাধানী এবং ভেজাল খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রি করার অপরাধে এমএস সুচনা মেটাল ওয়ার্কশপকে ১০ লাখ টাকা, নিহিমা ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কশনকে ৫০ হাজার টাকা, এমএস মেট্রো প্রোডাক্টকে ২ লাখ টাকা, মেহেদি কসমেটিক্সকে ৫ লাখ টাকা, নিউ কুসুম বেকারি এন্ড কসমেটিক্সকে ২ লাখ টাকা ও মাসুম বেকারিকে ২ লাখ করে ৬টি প্রতিষ্ঠানকে সর্বমোট ২১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা প্রদান করে।

এছাড়া নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর নির্দেশে উক্ত মোবাইল কোট আনুমানিক ২ লাখ টাকা মূল্যের নকল বৈদ্যুতিক তার জব্দ ও ২ লাখ টাকা মূল্যের ভেজাল খাদ্যদ্রব্য ধ্বংস করা হয়।

প্রাথমিক অনুসন্ধানে জানা যায় যে, বেশ কিছুদিন যাবৎ এই অসাধু ব্যবসায়ীরা অনুমোদনহীন ও নকল বৈদ্যুতিক তার, প্রসাধনী এবং ভেজাল খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন মজুদ ও বাজারজাত করে আসছিল।

;

বগুড়ায় ছাত্রদলের অনশন কর্মসূচিতে ছাত্রলীগের হামলা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ায় ছাত্রদলের প্রতীকী অনশন কর্মসূচিতে হামলা করে ভুণ্ডল করে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জেলা বিএনপি অফিসে হামলা চালায়।

তবে ছাত্রলীগ দাবি করেছে তারা হামলা করেনি। ছাত্রদলের নেতাকর্মীরাই প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে স্লোগান দিয়ে তাদের ওপর হামলা করেছে। এনিয়ে দুইপক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুর সোয়া ১টার দিকে বগুড়া শহরের শহীদ খোকন পার্কে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

জানাগেছে,কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে শহীদ খোকন পার্কে শহীদ মিনারে ছাত্রদলের প্রতীকী অনশন কর্মসূচি শুরু হয়।

বগুড়া জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আবু হাসান বলেন, বেলা ৩টা পর্যন্ত কর্মসূচি চালানোর প্রস্তুতি ছিল। দুপুর সোয়া ১টার দিকে ছাত্রলীগ নেতা মুকুল ইসলামের নেতৃত্বে কয়েকজন ছাত্রলীগ নেতা অনশন কর্মসূচিতে অতর্কিতে হামলা চালায়। অনশন কর্মসূচি ভুণ্ডল হয়ে গেলে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা হামলাকারীদেরকে প্রতিহত করে। এসময় পুলিশ এসে ছাত্রদলের নেতাকর্মীদেরকে ধাওয়া করে এবং জেলা ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক রাকিবকে আটক করে।
ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ছত্রভঙ্গ হয়ে গেলে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা সংগঠিত হয়ে শহরের নবাববাড়ি সড়কে বিএনপি অফিসে হামলা চালায়। এসময় পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এদিকে, জেলা ছাত্রলীগের সদ্য বিলুপ্ত কমিটির প্রচার সম্পাদক মুকুল ইসলাম বলেন, ছাত্রলীগ কোন হামলা করেনি। খোকন পার্ক সংলগ্ন নেসকো অফিসের গেটে আমিসহ ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী চা পান করতে যাই। আমাদেরকে দেখে ছাত্রদলের সভাপতি আবু হাসান প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে আপত্তিকর বক্তব্য দেয় এবং আমাদেরকে ধাওয়া করে। পরে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদেরকে পাল্টা ধাওয়া দেয়।

বগুড়া সদর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক তাজমিলুর রহমান বলেন, শহীদ খোকন পার্ক এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হলে রাকিব নামের ছাত্রদলের এক ছেলে পুলিশ ফাঁড়িতে আশ্রয় নেয়। পরে তাকে দলীয় নেতাদের হেফাজতে দেওয়া হয়। ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার সময় বিএনপি অফিসের সামনে উত্তেজনা সৃষ্টি হলে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

;

মসিকে সাড়ে ৬ কোটি টাকা ব্যায়ে বিভিন্ন উন্নয়নকাজের উদ্বোধন



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ময়মনসিংহ
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের ২২ নং ওয়ার্ডে প্রায় সাড়ে ৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ৫ টি সড়ক এবং ১ টি ড্রেনসহ ফুটপাতের নির্মাণকাজ উদ্বোধন করেছেন মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়াির) বেলা ১১ টায় এসব সড়কের মোট দৈর্ঘ্য প্রায় আড়াই কিলোমিটার এবং ড্রেনসহ ফুটপাত ৬০০ মিটার। উদ্বোধনকৃত উন্নয়নের কাজগুলো হলো: জামতলা মোড় আতিয়া মসজিদ থেকে মৃত সুরুজ উকিল এর বাড়ি পর্যন্ত আরসিসি সড়ক, কাশেমিয়া মাদ্রাসা থেকে জামতলা মোড় পর্যন্ত আরসিসি সড়ক, আতিয়া মসজিদ থেকে রেললাইন পর্যন্ত আরসিসি সড়ক, বয়ড়া খেজুরতলা থেকে গোরস্তান পর্যন্ত আরসিসি ও বিসি সড়ক, ব্রহ্মপুত্র নদ খেয়া ঘাট থেকে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত আরসিসি সড়ক এবং বাকৃবি শেষ মোড় থেকে সড়ক ও জনপদের রাস্তা বরাবর ফুটপাত সহ আরসিসি ড্রেন।

এ সময় মেয়র বলেন, আমরা প্রতিশ্রুত উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রী যে উদ্দেশ্যে আমাদের ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন দিয়েছেন সে লক্ষ্য পূরণে আমরা দৃঢ় সংকল্প। নগরীর বিভিন্ন ওয়ার্ডের উন্নয়নকাজ এখন দৃশ্যমান।

মেয়র কাজের গুণগত মান নিশ্চিত করার জন্য ঠিকাদার ও প্রকৌশলীদের নির্দেশ প্রদান করেন এবং উপস্থিত সকলকে মাস্ক পরিধান এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণে অনুরোধ জানান।

উদ্বোধনকালে ২২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোঃ মোস্তফা কামাল, ২২, ২৩, ২৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শাহনাজ বেগম, জনসংযোগ কর্মকর্তা শেখ মহাবুল হোসেন রাজীব, নির্বাহী প্রকৌশলী মো. জহুরুল হক, সহকারী প্রকৌশলী মো. জসিম উদ্দিন, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

;