‘ন্যায্যতা ও ন্যায়বিচারে বাংলাদেশ-ভারত সমস্যার সমাধান করতে হবে’



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, ঢাকা
পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম। ছবি: সংগৃহীত

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম। ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক বৃহত্তর আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা, শান্তি, উপমহাদেশের উন্নয়নের জন্য গুরুত্বপূর্ণ, কেবল দ্বিপাক্ষিক অংশীদারিত্বের জন্য নয়।

ভারতের সাথে দ্বিপাক্ষিক সমস্যা ন্যায্যতা এবং ন্যায়বিচারের মাধ্যমে বন্ধুত্বপূর্ণভাবে সমাধান করা দরকার।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বুধবার (১ ডিসেম্বর) সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগ (সিপিডি) আয়োজিত ‘বাংলাদেশ-ভারত অংশীদারিত্বের ৫০ বছর: ‘পরবর্তী ৫০ বছরে যাত্রার দিকে শীর্ষক’ সংলাপে এ-সব কথা বলেন।’

তিনি বলেন, ‘গত ৫০ বছর সাক্ষ্য, যথেষ্ট প্রমাণ সহ, বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক কেবল দ্বিপাক্ষিক অংশীদারিত্ব ও শান্তির জন্যই নয়, বৃহত্তর আঞ্চলিক স্থিতিশীলতা এবং উপমহাদেশের উন্নয়নের জন্যও কতটা গুরুত্বপূর্ণ।’

তিস্তা নদীর অববাহিকার উপর নির্ভরশীল লাখ লাখ মানুষের ভোগান্তি লাঘব এবং জীবিকা বাঁচাতে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০১১ সালের খসড়া চুক্তির ভিত্তিতে বাংলাদেশকে তিস্তার পানির ন্যায্য অংশ দেওয়া প্রয়োজন যা ইতিমধ্যে উভয় সরকার সম্মত হয়েছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ ভারতের আন্তরিক প্রতিশ্রুতিতে বিশ্বাস করে এবং এই চুক্তি দ্রুত শেষ করার জন্য অব্যাহত প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে।

একইভাবে, প্রতিমন্ত্রী উল্লেখ করেন, গোমতী, খোয়াই, কুশিয়ারা, তিস্তা, ফেনী এবং মুহুরির মতো অভিন্ন নদীতে একটি ন্যায়সঙ্গত সমন্বিত জলবণ্টন চুক্তি সম্পাদন করা প্রয়োজন কারণ মানুষ বুঝে যে ভারত বাংলাদেশী জনগণের চাহিদার সাথে ন্যায্যতা মানে।

তিনি বলেন, বিগত ৫০ বছর তাদের আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটের বিকশিত দৃশ্যপটে আগামী ৫০ বছরের পথ চলার পথ দেখাবে, যেখানে বন্ধুত্ব ও অংশীদারিত্ব আরও গভীর ও সুসংহত হবে।

প্রফেসর রেহমান সোবহানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংলাপে বক্তৃতা করেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, এমপি এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার বিক্রম কে. দোরাইস্বামী।

৫৩ খাল সংস্কার হলে ঢাকা হবে ভেনিস



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় দখল হয়ে থাকা ৫৩ টি খাল সংস্কার করে জলপথ ও দুপাড়ে হাঁটার জন্য মনোরম পরিবেশ তৈরি করে দিতে পারলে ভ্রমণপিপাসুরা ইতালির ভেনিসে ঘুরতে না গিয়ে ঢাকাতেই ঘুরবে বলে মন্তব্য করেছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী তাজুল ইসলাম। 

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বসিলায় লাউতলা খালের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান ও খাল খননের কাজ পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

তাজুল ইসলাম বলেন, 'রাজধানীতে অবৈধভাবে দখল হওয়া সমস্ত খালগুলোকে পর্যায়ক্রমে উদ্ধার করা হবে। উদ্ধারকৃত খালসমূহ সংস্কার করা হলে রাজধানীতে জলাবদ্ধতা নিরসনের পাশাপাশি নগরবাসীকে একটি আধুনিক-দৃষ্টিনন্দন ও বাসযোগ্য নগর উপহার দেওয়া সম্ভব হবে।'

আর ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, 'যত প্রতিবন্ধকতাই থাকুক না কেন জনগণের সহায়তায় জিআইএস ম্যাপ অনুযায়ী নগরীর প্রত্যেকটি খালই‌ উদ্ধার করা হবে।

পাশাপাশি বসিলাবাসীর স্বার্থেই প্রায় আড়াই কিলোমিটার দৈর্ঘ্যবিশিষ্ট লাউতলা খালটিকে বুড়িগঙ্গা নদীর সাথে সংযুক্ত করে এতে পানি প্রবাহের সৃষ্টি করা হবে।'

অবৈধ দখলদারদের বিনা নোটিশেই উচ্ছেদ সহ অবৈধ স্থাপনাগুলো ভেঙ্গে গুঁড়িয়ে দেয়ার কঠোর হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন মেয়র।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে ঢাকা-১৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মো. সাদেক খান, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জোবায়দুর রহমান, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহাম্মদ আমিরুল ইসলাম, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমোডর এস এম শরিফ-উল ইসলাম, প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক এবং স্থানীয় কাউন্সিলর আসিফ আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

;

রংপুরে নৌকা প্রতীকে আগুন, এলাকায় উত্তেজনা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার কাফ্রিখাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে আগুন দিয়ে পোড়ানোর ঘটনা ঘটেছে। এরপর থেকে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) সকালে নৌকা প্রতীকে আগুন দেওয়ার বিষয়টি জানাজানি হলে সমর্থকরা সেখানে জড়ো হয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

এর আগে, সোমবার (২৪ জানুয়ারি) গভীর রাতে ওই ইউনিয়নের মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থীর বাড়ি সংলগ্ন মাঠের বাজারে টানানো কাঠ ও বাঁশ দিয়ে তৈরি প্রতীকী নৌকায় আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি এই ইউপিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচন উপলক্ষে মাঠের বাজারে আওয়ামী লীগ সমর্থিত চেয়ারম্যান প্রার্থী খলিলুর রহমান সরকার রাজার সমর্থকরা বাঁশ-কাঠ দিয়ে নৌকার প্রতীকী টানায়। সোমবার রাত ১টার দিকে কে বা কারা সেটাতে আগুন দেয়।

এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ দিয়েছেন নৌকা মার্কার চেয়ারম্যান প্রার্থী খলিলুর রহমান সরকার রাজা।

মিঠাপুকুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজার রহমানের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, বিকেলে ঘটনাস্থল আমি পরিদর্শন করেছি। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

;

পৌরসভার উদ্যোগে রেল ক্রসিংয়ে গেইট নির্মাণ 



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চাঁপাইনবাবগঞ্জ রেলস্টেশন থেকে ছেড়ে যাওয়া রাজশাহীগামী রাজশাহী মেইল ট্রেনের সাথে ভুটভুটির সংঘর্ষে ৩ জন নিহত হওয়ার পর রেল ক্রসিংয়ে গেইট নির্মাণ করা হয়েছে। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে ঘটনাস্থল আলীনগর-হাজীর মোড় ও গণকা-বিদিরপুর মোড়ে গেইট দেয়া হয়েছে। 

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি ) পৌরসভার অর্থায়নে এসব অরক্ষিত রেল ক্রসিংয়ে গেইট নির্মাণ করা হয়। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে রেল লাইন ক্রসিং রাস্তার উভয় পাশে বাঁশ দিয়ে অস্থায়ী গেট নির্মাণ করা হয়েছে। এখন থেকে পৌরসভার দুইজন লোক ট্রেন আসা-যাওয়ার সময় এই গেইট নিয়ন্ত্রণ করবে। 

চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ০৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রাজু আহমেদ জানান, গতকাল এ মোড়ে ট্রেনের ধাক্কায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। তাই চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মোখলেসুর রহমানের নির্দেশে হাজির মোড় ও বিদিরপুর মোড়ে অস্থায়ী গেট নির্মাণ করা হয়েছে। এখানে পৌরসভার আনসার সদস্যরা পালাক্রমে ডিউটি করবে। 

এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে এলাকাবাসী মেয়র মোখলেসুর রহমানকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেছেম, এ গেট নির্মাণের ফলে ট্রেন দূর্ঘটনা কমবে। ট্রেন আসা-যাওয়ার নির্ধারিত সময়ে কোন যান চলাচল করতে পারবে না এবং এলাকাবাসী সচেতন হবে।

;

একদিনের শনাক্তে ২য় সর্বোচ্চ রেকর্ড, মোকাবিলায় প্রস্তুত স্বাস্থ্য বিভাগ

  বাংলাদেশে করোনাভাইরাস



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশে দিন দিন বেড়েই চলেছে করোনার নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনে মৃত্যুর সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে আরও ১৮ জনের। এ সময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছেন আরও ১৬ হাজার ৩৩ জন। যা মহামারি শুরুর পর থেকে দৈনিক শনাক্তের হিসাবে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) এসব তথ্য জানানো হয় এসব তথ্য।

 বাংলাদেশ প্রাইভেট মেডিকেল কলেজ এসোসিয়েশন (বিপিএমসিএ) এর আয়োজনে 'কোভিড-১৯ এর নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের পরিস্থিতি মোকাবিলায়' বেসরকারি হাসপাতালের প্রস্তুতি নিয়ে মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) এক ভার্চুয়াল সভায় যোগ দেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী ডা. জাহেদ মালিক।

তিনি বলেন, ‘এখন আমরা অনেকটাই প্রস্তুত। হাসপাতালগুলো আগের থেকে বেশি সুসজ্জিত হয়েছে’।

এছাড়াও তিনি বলেন, মৃত্যুর হার আগে থেকে অনেকটাই কমে গেছে। গতকাল থেকে আজকে (মঙ্গলবার) ১.৬৫ শতাংশে নেমে এসেছে মৃত্যুর হার।

জাহেদ মালিক জানান, ৯ কোটি প্রথম ডোজ আর ৬ কোটি ডোজ মিলিয়ে এখন পর্যন্ত দেওয়া হয়েছে ১৫ কোটি ডোজ টিকা। নিশ্চিত করেন বুস্টার ডোজের ব্যবস্থাপনার কথাও। যার ফলে হাসপাতাল গুলো থেকে অনেকটা চাপ কমে আসবে বলেও মনে করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

ওই সভায় বিপিএমসিএ’র সভাপতি এম এ মবিন খান বলেন, সারা দেশে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ব্যাপকহারে বৃদ্ধি পেলেও ওমিক্রন ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের মতো ভয়াবহ নয়। করোনা নিয়ে ভীতির কিছু নেই। ওমিক্রন মোকাবিলায় প্রস্তুত রয়েছে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালগুলো।

দেশে ২০২০ সালের ৮ মার্চে প্রথম শনাক্ত হয় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী। ওই মাসেই প্রথম মৃত্যুর তথ্য দেয় স্বাস্থ্য অধিদফতর। একই বছরের শেষ দিকে কিছুটা কমে আসে সংক্রমণের হার। তবে গত বছরের এপ্রিল থেকে জুন-জুলাই পর্যন্ত মারমুখী আকার ধারণ করে করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। গত বছরের ডিসেম্বরের ২০ তারিখ পর্যন্ত পরিস্থিতি কিছুটা শিথিল থাকলেও চলতি বছরের শুরুতেই বাঁধ ভেঙে বাড়তে শুরু করে ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টসহ করোনার সংক্রমণ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সারাদেশের সরকারি হাসপাতালগুলো শয্যার ভর্তি রয়েছে ২৫ শতাংশ রোগী। রাজধানীতে সরকারি হাসপাতালে ৪ হাজার শয্যা আছে। যার মধ্যে হাজারের কিছু বেশি রোগী ভর্তি রয়েছেন সেগুলোতে। অন্যদিকে বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৫০০ জনের মতো। দেশে যে হারে সংক্রমণ ধরা পড়ছে, তাতে অল্প সময়ের মধ্যে হাসপাতালে শয্যার চাহিদা অনেক বেড়ে যাবে বলে জানান তিনি।

সকলের চিকিৎসা নিশ্চিত করার আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বলেন, "যারা অসুস্থ হয় তাদের চিকিৎসা যেন নিশ্চিত করতে পারি"।

একই সভায় দেশের মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং সংশ্লিষ্টদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়ে স্বাস্থ্যশিক্ষা বিভাগের পরিচালক (শিক্ষা) এইচএম এনায়েত হোসেন বলেন,কলেজগুলো ওখন সব বন্ধ আছে। ক্লাসও চলছে অনলাইনে। তার বিভাগ এ দুটোর সমন্বয় করার চেষ্টা করছে বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, "স্বাস্থের শিক্ষার্থীদের এখন পর্যন্ত তেমন কোনও সংকটের তথ্য পাওয়া যায় নি"।

;