বঙ্গোপসাগরে ট্রলারডুবি



ডিস্ট্রিক করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

 

ট্রলিং জাহাজের ধাক্কায় ভোলার ২১ জেলে নিয়ে বঙ্গোপসাগরে একটি মাছ ধরার ট্রলার ডুবে গেছে। ডুবে যাওয়া ট্রলারের ৮ জেলেকে জীবিত উদ্ধার করা হলেও এখনো ১৩ জেলে নিখোঁজ রয়েছে। নিখোঁজ জেলেদের বাড়ি চরফ্যাশন উপজেলার বিভিন্ন এলাকায়।

ডুবে যাওয়া ট্রলার থেকে উদ্ধার হওয়া জেলে হানিফ চরফ্যাশন ইউনিয়নের আব্দুল্লাপুরের চেয়ারম্যান ইলিয়াস মাস্টারকে মোবাইল ফোনে জানান, বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) ২১ জেলে নিয়ে তারা বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে যায়। রোববার (৫ ডিসেম্বর) রাত ১০টার দিকে ভোলার ঢালচর থেকে অন্তত ৩০ কিলোমিটার দক্ষিণের বঙ্গোপসাগরে চট্টগ্রামের একটি মাছ ধরার ট্রলিং জাহাজ ট্রলারটিকে ধাক্কা দিলে ট্রলারটি ডুবে যায়। পরবর্তীতে ডুবে যাওয়া ট্রলারের জেলেদের ৮ জনকে জীবিত উদ্ধার করে। বাকি ১৩ জেলের কোন সন্ধান এখনও পাওয়া যায়নি। নিখোঁজ জেলেদের সন্ধানে কাজ শুরু করেছে কোস্টগার্ড।

করোনার ধাক্কা: কক্সবাজারে বুকিং বাতিলের হিড়িক, শঙ্কায় ব্যবসায়ীরা



এহসান আল কুতুবী, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কক্সবাজার
ওমিক্রনের ধাক্কা লাগতে শুরু করেছে কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবসায়।

ওমিক্রনের ধাক্কা লাগতে শুরু করেছে কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবসায়।

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের ধাক্কা লাগতে শুরু করেছে কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবসায়। কমে আসছে পর্যটকদের আনাগোনা। হোটেল মোটেল ও গেস্ট হাউসগুলোতে স্বাভাবিকের চেয়ে কম রুম বুকিং হচ্ছে। আবার অনেকে রুম বুকিং দিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়ে বুকিং বাতিল করছে। ভীড় নেই সমুদ্র সৈকত, রেস্টুরেন্ট ও পর্যটন সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন পণ্যের দোকানসহ স্পটগুলোতে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন ওমিক্রনের কারনে মানুষ আতংকিত। অনেকটা ভীতি সৃষ্টি হয়েছে। এছাড়াও করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি ও যেকোন মূহুর্তে লকডাউনের ঘোষণা আসতে পারে এমন আতংকে পর্যটকদের আনাগোনা কমেছে।

পর্যটন মৌসুমে স্বাভাবিকভাবে সাপ্তাহিক ছুটির দিন ছাড়াও সবসময় মিনিমাম ৫০% রুম বুকিং থাকে। কিন্তু নতুন করে করোনা সংক্রমণ দিনদিন বেড়ে যাওয়ায় কারনে যা ২০% এ চলে এসেছে। আবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে ৭০-৮০% রুম বুকিং থাকে। সেক্ষেত্রেও ৪০% রুম বুকিং হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। ফলে, নতুন করে পর্যটন ব্যবসায় শংকা দেখা দিয়েছে।

আমিন ইন্টারন্যাশনাল এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর মুহাম্মদ আমিন জানিয়েছেন, তার হোটেলে মোট ৩৫ টি রুম রয়েছে। তার মধ্যে মাত্র ১০ টি রুমে গেস্ট রয়েছে। সাপ্তাহিক ছুটির দিন শুক্রবার উপলক্ষে বেশ কয়েকটি রুম বুকিং ছিলো। কিন্তু করোনায় আক্রান্তের অজুহাতে বেশিরভাগ রুমের বুকিং বাতিল করেছে। ভরা মৌসুম হলেও ৫০% ছাড় দিয়ে রুম বুকিং দেওয়া হচ্ছে। তাতেও ৫০% রুম বুকিং হচ্ছে না।

যেকোন মূহুর্তে লকডাউনের ঘোষণা আসতে পারে এমন আতংকে পর্যটকদের আনাগোনা কমেছে।


হোটেল দ্যা গ্র্যাণ্ড স্যান্ডির চেয়ারম্যান আবদুর রহমান জানিয়েছেন, সাপ্তাহিক ছুটির দিন উপলক্ষে ২০০ জনের একটি গ্রুপের দু’দিনের বুকিং ছিলো। হঠাৎ করে তারা বুকিং বাতিল করেছেন। শুক্র ও শনিবার ছাড়া বাকি দিনগুলোর বেশিরভাগ সময় কোন বুকিং থাকে না।

তিনি আরো জানান, সরকার আবার কখন লকডাউন দেয় তা নিয়ে সাধারণ মানুষ আতংকে আছে। এর কারনেও অনেকে আসার সাহস করছে না।

একই অবস্থা নামি-দামি খাবারের হোটেল রেস্তোরাঁয়ও। বিভিন্ন সুস্বাদু খাবারের আইটেম রেডি করলেও ভোজনরসিক পর্যটকদের আনাগোনা কমে যাওয়ায় অনেক খাবার নষ্ট হচ্ছে। এমনকি নতুন করে লকডাউনের ঘোষণা আসলে বড় ধরনের লোকসান আতংক কাজ করছে তাদের মাঝে।

ভরা মৌসুম হলেও ৫০% ছাড় দিয়ে রুম বুকিং দেওয়া হচ্ছে। তাতেও ৫০% রুম বুকিং হচ্ছে না।

কুটুমবাড়ি রেস্তোরাঁর চেয়ারম্যান, আশরাফুল ইসলাম রাকিব জানিয়েছেন, মাত্র ২১ দিন আগে তার প্রতিষ্ঠান কুটুমবাড়ি রেস্তোরাঁর একটি শাখা খুলেছেন। কোটি টাকা ইনভেস্ট করে এখন শংকায় দিন কাটাচ্ছেন। বিশেষ করে পর্যটক নির্ভর হওয়ায় করোনা আতংকের পর থেকে বেচাকেনা কমে গেছে। তবে, শুক্রবার হিসেবে মোটামুটি ভীড় ছিলো।

হোটেল মোটেল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম সিকদার জানিয়েছেন, শুধু করোনার কারনে নয় বিভিন্ন কারনে পর্যটকদের আনাগোনা কমেছে। করোনার পাশাপাশি এতোদিন স্কুল খোলা ছিলো, স্কুলের ট্যুরও বন্ধ। এখানে যারা আসেন বেশিরভাগ ফ্যামেলি ট্যুরে আসেন। সে হিসেবে ফ্যামেলির কেউ অসুস্থ হয়ে পড়লে আর আসা হয় না।

তিনি আরো জানান, মানুষের মধ্যে আতংক কাজ করছে। বিশেষ করে যারা আগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সাথে লড়েছেন তারা ভয়ে আসতে চায় না।

হোটেল মোটেলে শুক্রবার মোট ৪০% রুম বুকিং ছিলো বলেও জানান তিনি।

প্রতিদিন হু হু করে বাড়ছে করোনা। নতুন করে যুক্ত হয়েছে ওমিক্রন। এ কারনে আতংক কাজ করলেও মাস্ক পড়া নিশ্চিত করাসহ সরকারি নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নে প্রতিদিন ৩-৪ টি টিম নিয়ে প্রতিনিয়ত হোটেল মোটেল জোনসহ শহরের বিভিন্ন স্পটে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে বলে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আবু সুফিয়ান।

তিনি জানান, নিয়মিত অভিযান হিসেবে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি সঠিকভাবে পালন করা হচ্ছে কিনা তা নিয়ে হোটেলগুলোতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। কোন বিষয়ে অসঙ্গতি পেলে জরিমানাও করা হচ্ছে।

বিশেষ করে পর্যটকদের মাস্ক ছাড়া সমুদ্র সৈকতে ঘুরাফেরা করতে নিরুৎসাহিত করা হচ্ছে। পাশাপাশি সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে মাস্ক বিতরণ করা হচ্ছে। মাস্ক পড়া নিশ্চিত করতে নিয়মিত মাইকিং করা হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট।

;

চীনা নাগরিকের টাকা ছোড়ার ঘটনায় সার্জেন্টসহ ২ পুলিশ প্রত্যাহার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর রাওয়া ক্লাবের সামনে ট্রাফিক পুলিশকে লক্ষ্য করে চীনা নাগরিকের টাকা ছোড়ার ঘটনা তদন্ত করছে পুলিশ। এ ঘটনায় কর্তব্যরত একজন ট্রাফিক সার্জেন্ট ও ট্রাফিক পুলিশ সদস্যকে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

এছাড়া ওই চীনা নাগরিক টাকা ছোড়ার ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে লিখিতভাবে পুলিশকে ‘সরি’ বলেছেন।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাতে ডিএমপির তেজগাঁও ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার সাহেদ আল মাসুদ এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, যেহেতু এ ঘটনায় একটি তদন্ত চলছে, সেহেতু ওইদিন ঘটনাস্থলে কর্মরত একজন ট্রাফিক সার্জেন্ট ও ট্রাফিক পুলিশ সদস্যকে তাদের ডিউটি থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে প্রাথমিক তদন্তে তাদের কোনো দোষ পাওয়া যায়নি। দ্রুতই চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন আসবে। তদন্ত প্রতিবেদন আসলে তাদের আবার দায়িত্বে বহাল করা হবে।

উপ-কমিশনার সাহেদ আল মাসুদ বলেন, আমাদের ডাকে গতকাল (বৃহস্পতিবার) ওই চীনা নাগরিক এসেছিলেন। তিনি এ ঘটনায় আমাদের কাছে মৌখিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। এছাড়া তিনি লিখিতভাবে আমাদের কাছে সরি বলেছেন।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার রাওয়া ক্লাবের সামনে এক চীনা নাগরিক ট্রাফিক পুলিশ সদস্যদের উদ্দেশে টাকা ছুড়ে মারেন। এ ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়।

;

যশোরে নৃত্যশিল্পীর লাশ উদ্ধার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, যশোর
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

যশোর শহরের পুরাতন কসবা কাঁঠালতলা এলাকার ৬তলা ভবনের একটি ফ্ল্যাট থেকে শুক্রবার রিনি (২২) নামে এক নৃত্যশিল্পীর লাশ পুলিশ উদ্ধার করেছে। তবে কোন সংগঠনে তিনি ছিলেন তা জানা যায়নি।

কোতয়ালি থানা পুলিশের এসআই হারুন অর রশিদ জানান, রিনি নামে ওই নারী পুরাতন কসবা কাঁঠালতলার সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী রিনার ৬ তলা ভবনের ওপর তলার একটি ফ্ল্যাটে একা ভাড়া থাকতেন। তিনি নাচগান করতেন বলে স্থানীয় লোকজন পুলিশকে জানিয়েছেন।

শুক্রবার বিকেল ৪টার দিকে স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পান, রিনি তার নিজ ঘরের ভেতর গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সিলিংফ্যানের সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন।

এ খবর পেয়ে সেখানে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে কী কারণে রিনি আত্মহত্যা করেছেন তা এখনো জানা যায়নি। লাশ যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

রিনির বাবা-মায়ের নাম বলতে না পারলেও পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, মেয়েটির পিতার বাড়ি খুলনায়। আর তার মা থাকেন ময়মনসিংহে। খবর পেয়ে তারা যশোরে আসছেন বলে জানা গেছে।

;

নবাবগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের নির্ধারিত জায়গায় সাইনবোর্ড স্থাপন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
নবাবগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের নির্ধারিত জায়গায় সাইনবোর্ড স্থাপন

নবাবগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের নির্ধারিত জায়গায় সাইনবোর্ড স্থাপন

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলায় ফায়ার স্টেশন নির্মাণের নির্ধারিত জায়গায় সাইনবোর্ড স্থাপন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে এলাকাবাসী।

গত বুধবার (১৯ জানুয়ারি)বিকেল ৩টায় নবাবগঞ্জ উপজেলার কলাকোপা ইউনিয়নের আমতলায় এই সাইনবোর্ড স্থাপন করা হয়।

সাইনবোর্ড স্থাপন করায় দীর্ঘদিন মামলার কারণে আটকে থাকা ফায়ার স্টেশনের নির্মাণকাজের জট খুললো বলে স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছে এলাকাবাসী।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন মামলা চলমান থাকায় নবাবগঞ্জ ফায়ার স্টেশনের নির্মাণকাজ স্থগিত থাকে। সম্প্রতি কোর্টের রায় সরকার পক্ষে আসায় এখন ওই স্থানে ফায়ার স্টেশন নির্মাণে আর কোনো আইনগত বাধা নেই।

ফায়ার সার্ভিস অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন, এনডিসি, এএফডব্লিউসি, পিএসসি, এমফিল মহোদয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী ১৯ জানুয়ারি এই সাইনবোর্ড স্থাপন করা হয়।

এ সময় নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ নাসির উদ্দিন আহম্মেদ ঝিলু, নবাবগঞ্জ উপজেলার থানা নির্বাহী কর্মকর্তা এইচ এম সালাউদ্দীন মনজু, নবাবগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান আহ্বায়ক মো. মিজানুর রহমান কিসমত, যুগ্ম আহ্বায়ক দেওয়ান আওলাদ হোসেন, যুগ্ম আহ্বায়ক ও নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার মো. আরিফুর রহমান শিকদার, নবাবগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি ও কলাকোপা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. ইব্রাহীম খলিল, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপসহকারী পরিচালক এনায়েত হোসেন ও হাফিজুর রহমান, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

;