নাসিক নির্বাচন: শেষ দিনের প্রচারণায় সরগরম নারায়ণগঞ্জ



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নারায়ণগঞ্জ
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নির্বাচনের বাকি ১ দিন। শেষ দিনের প্রচারণায় সরগরম নারায়ণগঞ্জ। শেষ দিনে জমে উঠেছে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা, চলছে মিছিল, মিটিং ও পথসভা। প্রার্থীরা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করছেন। নির্বাচন নিয়ে তুমুল উৎসাহ ও কৌতূহল বিরাজ করছে ভোটারদের মধ্যে।

প্রতীক পাওয়ার পর থেকেই নির্বাচনী মাঠে সরব হয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ৭ মেয়র প্রার্থী, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৪৮ ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৩৪ প্রার্থী। তবে শেষ দিনের প্রচারণা ছিল চোখে পড়ার মতো।

নির্বাচন উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে এখন উৎসবমুখর পরিবেশ। নির্বাচনী প্রার্থীদের ব্যানার-পোস্টারে ছেয়ে গেছে শহরের বিভিন্ন সড়ক। বিভিন্ন এলাকায় মিছিল আর মিছিল। এলাকায় এলাকায় ব্যানার-পোস্টারের পাশাপাশি চলেছে ভোটের জন্য মাইকিং। নির্বাচনী প্রচারে ছিল শিশু-কিশোরেরাও।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) সকাল ১০টায় দুই হেভিওয়েট প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী (আওয়ামী লীগের মনোনীত) ও তৈমূর আলম খন্দকার (স্বতন্ত্র) সংবাদ সম্মেলন করেছেন। একই সঙ্গে প্রচারণা করেছেন অন্য মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা। কাউন্সিলর প্রার্থীরা যাচ্ছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। চাইছেন দোয়া ও ভোট।

বেলা ৩টায় বিশাল পথসভা ও মিছিল করেন ড. সেলিনা হায়ৎ আইভী। এই সভায় কেন্দ্রীয় নেতাকর্মী, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ হাজার হাজার জনগণ অংশগ্রহণ করেন এই পথসভায় ও মিছিলে।

উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে নৌকা প্রতীকে ভোট দেয়ার আহ্বান জানান ডা. সেলিনা হয়াৎ আইভী। চলমান কাজকে গতিশীল করার ওয়াদা নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে গিয়েছেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভি।

আইভী বলেন, ভোটকেন্দ্রে কোনো ধরনের সহিংসতা কিংবা বিশৃঙ্খলা না হলে বিজয় সুনিশ্চিত। আমার ভরসা জনগণে। নেতারা আসতেই পারে ক্যাম্পিং করতেই পারে, পর্যবেক্ষণ করতেই পারে। কিন্তু তারা আমাকে ফ্রি করে দিয়েছেন। আমি সারাক্ষণই ভোটারদের কাছেই ছিলাম।’আইভীকে পরাজিত করতে অনেকগুলো পক্ষ এক হয়ে গিয়েছে। ঘরের-বাইরের সকল পক্ষ মিলে গিয়েছে। কীভাবে বিশৃঙ্খলা করে আমাকে পরাজিত করা যায় সেই চিন্তা করছে।

আইভী আরও বলেন, আমাকে পাঁচ বছরের জন্য সুযোগ দেন। যে কোনো সময় অনেক কিছু ঘটে যেতে পারে। আমি আপনাদের জন্য মৃত্যুকেও বরণ করতে রাজি আছি। আমি ঘর-সংসারের দিকে তাকাইনি। আশা করি আপনারা আমাকে ফিরিয়ে দেবেন না।

অপর দিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকার বেলা ৩টা থেকে বিশাল শোডাউন করে বন্দরে প্রচারণা চালান।

তৈমুর আলম খন্দকার সাধারণ মানুষকে দিচ্ছেন আগামী দিনে উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি। একই সাথে করছেন সাবেক মেয়রের উন্নয়ন কর্মকান্ডের সমালোচনা। তিনি বলছেন, পরিকল্পিতভাবে নগরায়ন হয়নি এই শহরের। জনগণের মনের ধারণা নির্বাচন কমিশন একটা ঠুটো জগন্নাথ তারা সেই পথেই হাঁটছেন। তারপরেও আমি নির্বাচন কমিশনের ওপর আস্থা রাখতে চাই। সরকারি দলের মেহমানরা নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় তৈমুর আলম খন্দকার আনেন নানা অভিযোগ। তার ভিতরে শঙ্কা কাজ করছে নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে।

ইসলামী আন্দোলনের মেয়র প্রার্থী মুফতি মাসুম বিল্লাহ হাতপাখা প্রতীক নিয়ে শহরজুরে বিশাল শো-ডাউন করেছেন। ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে।

মুফতি মাসুম বিল্লাহ বলেন, জনগণ এবার ইসলামী শক্তিকে বিজয় করার জন্য বদ্ধপরিকর। হাতপাখার যেভাবে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে সুষ্ঠুভাবে ভোট দিতে পারলে বিজয় আমাদের হবে ইনশাআল্লাহ।

বিকেলে খেলাফত মজলিসের মেয়র প্রার্থী এবিএম সিরাজুল মামুন ১৪ প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেন। পরে দেওয়াল ঘড়ি প্রতীক নিয়ে বিশাল গণসংযোগ করেন।

সিরাজুল মামুন বলেন, আমরা আশাবাদী যে ভোটাররা ন্যায়নীতি সুবিচার ও জনকল্যাণের জন্যে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন শহর গঠনে আমাদেরকে সমর্থন দিবে। আমি নারায়ণগঞ্জ সিটির সম্মানিত ভোটারদের অনুরোধ করব তারা যেন আমাদের দেয়াল ঘড়ি মার্কায় সমর্থন দেন এবং নারায়ণগঞ্জ এর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখেন।

এছাড়া কাউন্সিলর প্রার্থীরা তাদের নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করেছেন। নিজ নিজ মার্কা নিয়ে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ঘুরছেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে। চাইছেন দোয়া ও ভোট।

তবে ১৮ দিনের এই প্রচারণায় শহরজুরেই আলোচনায় ছিল নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ সদস্য শামীম ওসমান। সাধারণ জনগণসহ সরকার দলীয় প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়ৎ আইভীও অভিযোগ তোলেন যে শামীম ওসমানই দাঁড় করিয়েছে তৈমুর আলম খন্দকারকে। আইভী বলেন, তৈমুর আলম খন্দকার ‘গডফাদার’ শামীম ওসমানের প্রার্থী। কেন্দ্রীয় নেতা আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানকও এক বক্তব্যে বলেন, এমপি হয়েছেন নৌকার কারণেই আগামীতে আমরা বেচে থাকতে নৌকা পেতে দিব না। এই সকল অভিযোগের কারণেই হোক আর চাপে পরেই হোক ১০ জানুয়ারি সংবাদ সম্মেলন করে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করেন এমপি শামীম ওসমান। ঘোষণা দেন ১৬ তারিখ খেলা হবে। নৌকার হয়ে কাজ করবেন তিনি। নারায়ণগঞ্জ নৌকার ঘাঁটি, নৌকা স্বাধীনতার প্রতীক। সুতরাং নারায়ণগঞ্জে নৌকার জয় হবেই হবে। তবে এই নিয়ে এখনও শহরজুরে রয়েছে নানা গুঞ্জন।

শুক্রবার (১৪ জানুয়ারি) মধ্যরাতেই শেষ হবে নারায়ণগঞ্জ সিটি ভোটের প্রচার। পরে একদিন বিরতি রেখে আগামী রোববার ভোটগ্রহণ হবে। যেখানে ১৯২টি কেন্দ্রে ভোট দেবেন ৫ লাখ ১৭ হাজার ৩৬১ জন ভোটার। কে হচ্ছে নগর পিতা তা নিয়েও দলে এবং দলের বাইরে জনগণের মধ্যে চলছে বিশ্লেষণ।

ডিবি'র অভিযানে মাদক চোরাকারবারি গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম,রংপুর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রংপুর নগরীতে মাদক বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে আশিকুজ্জামান আশিক(২২) নামে এক মাদক চোরাকারবারিকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। এসময় তার সাথে থাকা ১কেজি ৫শ গ্রাম গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

শনিবার (২২ জানুয়ারি) বিকালে নগরীর তাজহাট থানাধীন মর্ডান মোড়স্থ কমিউনিটি চক্ষু হাসপাতালের পাশ থেকে তাকে আটক করা হয়।

গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করেন রংপুর মেট্রোপলিটন গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)’র উপ-পুলিশ কমিশনার কাজী মুত্তাকী ইবনু মিনান।

গ্রেফতার আশিকুজ্জামান আশিক লালমনিরহাট জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মালগাড়া গ্রামের আবুল কাশেম মিয়ার ছেলে।

ডিবি পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আরপিএমপি, তাজহাট থানাধীন মর্ডান মোড়স্থ কমিউনিটি চক্ষু হাসপাতালের পাশে অভিযান চালায় ডিবি পুলিশ। এসময় ১কেজি ৫শ গ্রাম গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী আশিকুজ্জামান আশিককে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশের উপস্থিতি টেরপেয়ে তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

এঘটনায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তাজহাট থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অতিঃ উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) সাজ্জাদ হোসেন বলেন,মাদক নির্মূলে সব ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

;

সরকারি জায়গায় তোলা আ.লীগ নেতার ঘর ভেঙে দিল বিক্ষুব্ধ জনতা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ফরিদপুর
সরকারি জায়গায় তোলা আ.লীগ নেতার ঘর ভেঙে দিল বিক্ষুব্ধ জনতা

সরকারি জায়গায় তোলা আ.লীগ নেতার ঘর ভেঙে দিল বিক্ষুব্ধ জনতা

  • Font increase
  • Font Decrease

ফরিদপুরের নগরকান্দায় কুমার নদের পাড়ে বাজারের ড্রেন দখল করে শুক্রবার রাতে ঘর তোলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. আক্কাছ আলী আক্কাছ। সরকারি জায়গা দখলের খবর পেয়ে, শনিবার (২২ জানুয়ারি) সকালে এলাকার বিক্ষুব্ধ জনতা সেই ঘর ভেঙে দেয়। 

নগরকান্দা বাজার বণিক সমিতির অর্থ সম্পাদক ও নগরকান্দা পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জাকির হোসেন বলেন, শুক্রবার দিবাগত গভীর রাতে নগরকান্দা বাজারের ড্রেন দখল করে ঘর তোলা হয়। এ খবর পেয়ে শনিবার সকালে আমি ঘটনাস্থলে যাই। সেখানে গিয়ে দেখি, ড্রেন দখল করে নির্মাণ করা ঘরটি ভেঙে দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা।

তিনি জানান, এই জায়গায় অনেক আগে কুমার নদের ঘাট ছিল। বাজার ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে ড্রেনের দুই পাশের ফাঁকা জায়গায় পৌরসভার পক্ষ থেকে গণশৌচাগার এবং কুমার নদের পাড়ে পাকা ঘাটলা নির্মাণ করার পরিকল্পনা রয়েছে।

ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আক্কাছ আলী আক্কাছ জানান, আমি ২০১০ সালে এই জায়গার ডিসিআর নিয়েছিলাম। তবে তখন এই জায়গায় ঘর নির্মাণ করা হয়নি। ঘর না থাকার কারণে ডিসিআরের নবায়ন করে দেয়নি। ডিসিআরের নবায়ন পেতেই আমার আমি দোকান ঘর নির্মাণ করেছি।

এ বিষয়ে নগরকান্দা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেতী প্রু বলেন, নগরকান্দা বাজারের সরকারি জায়গা দখল করে ঘর নির্মাণের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। তবে আমি ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই বিক্ষুব্ধ জনতা ঘরটি ভেঙে দিয়েছে।

;

‘সংবিধান পরিবর্তন হলেও ভাষাগত ভুল রয়ে গেছে'



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সাভার, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সতেরবার বাংলাদেশের সংবিধান সংশোধন হয়েছে। কিন্তু সংবিধানের ভাষাটা সঠিকভাবে পরিবর্তন করা হয়নি। সংবিধানের ভাষাগত বিভিন্ন ভুল সংশোধন জরুরী বলে জানিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষাবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক সাখাওয়াৎ আনসারী।

শনিবার (২২ জানুয়ারি) সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ে (গবি) 'বাংলাদেশের সংবিধান ও সমকালীন ভাষা পরিস্থিতি' শীর্ষক আলোচনা চক্রে তিনি এসব কথা বলেন।

অধ্যাপক আনসারী আরও বলেন, একটি দেশের পরিচয় বহন করে সে দেশের জাতীয় সঙ্গীত ও পতাকা। আমি মনে করি, সংবিধানে এ বিষয়গুলো আগে আসা উচিত ছিল। ভাষার বিষয়টি পরে রাখা যেত। কিন্তু সংবিধানে উল্টো হয়েছে।

ভাষার ক্ষেত্র নিয়ে তিনি বলেন, বহুভাষিক দেশ হলে কোন ভাষা কোথায় কতটুকু ব্যবহৃত হবে, সেটা ভাষা পরিকল্পনার গুরুত্বপূর্ণ অংশ। কোথায় বাংলা, কোথায় ইংরেজি ব্যবহার হবে, সেগুলো নির্দিষ্ট থাকা উচিত। ভাষার ক্ষেত্র চিহ্নিতকরণ খুবই দরকার। কিন্তু পঞ্চাশ বছরেও এটা হয়নি।

প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী এ আয়োজনে সংবিধানের ভাষাগত বিভিন্ন ভুল এবং উপমহাদেশের সংবিধানের তুলনামূলক আলোচনা করেন তিনি। আলোচনা শেষে প্রশ্নোত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

আয়োজক বিভাগের সিনিয়র প্রভাষক আয়েশা সিদ্দিকার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য প্রদান করেন বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মনসুর মুসা।

এ সময় বিভিন্ন অনুষদীয় ডিন, বিভাগীয় প্রধান, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার, শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

;

করোনা আক্রান্ত এমপি একরামুল



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
ছবি: এমপি একরামুল

ছবি: এমপি একরামুল

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালী-৪ (সদর-সুবর্ণচর) আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী এমপি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

শনিবার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে এমপির চাচাতো ভাই এমরানুর রহমান চৌধুরী নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, গতকাল বিকেলে তাঁর শারীরিক দুর্বলতা দেখা দেয়। তিনি খাবার খেতে পারছিলেন না এবং কিছু খেলে বমি করছিলেন। উনি গতকাল শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাতে নিজে থেকেই করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়েছেন। শনিবার (২২ জানুয়ারি) সকালে রিপোর্ট করোনা পজিটিভ আসে। বর্তমানে তিনি ধানমন্ডির বাসায় কোয়ারান্টাইনে আছেন।

এমরানুর রহমান চৌধুরী আরো বলেন, কিছুদিন আগেই করোনা টিকার বুস্টার ডোজ নিয়েছেন এমপি একরামুল করিম চৌধুরী। এর মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হলেন তিনি।

;