সাভারে ক্ষতিকর রাসায়নিক মিশিয়ে ভেজাল গুড় উৎপাদন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বাতা২৪.কম, সাভার (ঢাকা)
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

সাভারে গড়ে উঠেছে বেশ কিছু ভেজাল গুড়ের কারখানা। চিটাগুড়ের সঙ্গে চিনি, গোখাদ্য, রং ও ক্ষতিকর রাসায়নিক মিশিয়ে এসব কারখানায় তৈরি করা হচ্ছে আখ ও খেজুর গুড়। যেখানে আখ কিংবা খেজুর রসের লেশমাত্র নেই। 

সাভারের নামাবাজারে এমনই একটি কারখানা রুপা এন্টারপ্রাইজ। যেখানে দিনের আলোয় উৎপাদন না হলেও রাতের বেলায় ধুম পড়ে ভেজাল গুড় উৎপাদনের। রাতের মধ্যেই টনে টনে ভেজাল গুড় উৎপাদন করে ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে বাজারে। আর এমন গুড় কিনে নিজের অজান্তেই বিষ খাচ্ছেন ভোক্তারা। তবে জেনে বুঝে এমন গুড় বিক্রি থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সাভারের ব্যবসায়িরা। তাদের দাবি ভেজাল জেনে সাভারের গুড় তারা বিক্রি করেন না।

সরেজমিনে সাভার নামাবাজার এলাকার রুপা এন্টারপ্রাইজে গিয়ে দেখা যায়, সারি সারি সাজানো আটার বস্তা। এখানে সাজানো রয়েছে গোখাদ্য, চিটাগুড়, কাপড়ের বিষাক্ত রং, গরুর চর্বি আর কাগজে লাগানো এ ধরনের আঠা। এসবের সংমিশ্রণে তারা নির্দ্বিধায় তৈরি করছেন গুড়। দীর্ঘদিন ধরে কিভাবে এমন ভেজাল গুড় উৎপাদন করা হয় প্রশ্ন সচেতন মহলের।

রুপা এন্টারপ্রাইজের মালিক গৌতম সাহা নামের এক ব্যক্তি। যিনি প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে কতিপয় কিছু ব্যক্তিকে হাত করে মেতেছেন ভেজাল গুড় উৎপাদনে। এমন অস্বাস্থ্যকর ও ক্ষতিকর কেমিক্যাল দিয়ে তৈরি গুড় আবার বাজার থেকে কিনে হরহামেশাই প্রতারিত হচ্ছেন ভোক্তারা।

তবে ২০১৭ সালে র‌্যাব অভিযান চালায় এই কারখানায়। সেসময় ২ লাখ টাকা জরিমানা করে কারখানার সমস্ত কাঁচামাল ও উৎপাদিত গুড় ফেলা হয় নদীতে। এই কারখানায় সাভার উপজেলা রাজস্ব সার্কেলের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভিযান চালিয়ে জরিমানা করেন। তবুও থেমে নেই এখানে ভেজাল গুড় উৎপাদন।

এ ব্যাপারে সাভার নামাবাজারের গুড় ব্যবসায়ি মৃদুল সাহা বলেন, ময়দা, চিনি, চিটাগুড় ও চর্বির সংমিশ্রণে নামাবাজারে গৌতম বাবু গুড় বানান বলে আমরা জানি। কিন্তু কোন দিন দেখিনি। ভেজাল গুড় সাভারে উৎপাদন হওয়ায় আমরা সাভারের কোন গুড়ই বিক্রি করিনা। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আমরা নির্ভেজাল গুড় সংগ্রহ করে বিক্রি করি।

অপর ব্যবসায়ী দুলাল দাশ ৩২ বছর ধরে সাভারে গুড় বিক্রি করেন। তিনি বলেন, সাভারে গৌতমের গুড় চলে না। তিনি বাহিরে ওসব গুড় বিক্রি করেন। আমরাও জেনেশুনে এমন গুড় বিক্রি করি না। তবে তার দাবি চিনি ছাড়া কোন গুড়ই উৎপাদন হয় না। তবে আমাদের গুড় আখের রস দিয়েই তৈরি করা হয়।

এ ব্যাপারে রুপা এন্টারপ্রাইজের মালিক গৌতম সাহা বলেন, আমরা মুলত কারখানায় গোখাদ্য উৎপাদন করি। আমরা গুড় উৎপাদন করি না। এসব মিথ্যা কথা। গুড় উৎপাদনের ভিডিও সংরক্ষণে আছে এমন কথার জবাব না দিয়ে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।

সাভার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. সায়েমুল হুদা বার্তা২৪.কম-কে বলেন, এ ধরনের খাদ্য মানবদেহে প্রবেশের ফলে ক্যান্সারের মত রোগের সৃষ্টি হতে পারে। মানুষের বিভিন্ন অর্গ্যান ড্যামেজ (ধ্বংস) হতে পারে। শিশুদের জন্য তো এমন খাদ্য মারাত্মক ক্ষতিকর। এসব খাদ্য থেকে অবশ্যই বিরত থাকতে হবে।

সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাজহারুল ইসলাম বার্তা২৪.কম-কে বলেন, নিরাপদ খাদ্য আইন ২০১৩ এর ২৩ ধারায় বিষাক্ত দ্রব্যের মাধ্যমে খাদ্য উৎপাদন একই আইনের ২৫ ধারায় ভেজাল খাদ্য উৎপাদন এবং ৩৩ ধারায় মানব দেহের জন্য ক্ষতিকর বিবেচনায় খাদ্য উৎপাদন নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এর ব্যত্যয় হলে দন্ড আরোপের বিধান রয়েছে। এছাড়াও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪২ ও ৪৩ ধারায় বিষাক্ত দ্রব্যের ব্যবহারের মাধ্যমে খাদ্য উৎপাদন কিংবা মানব দেহের ক্ষতিকর এমন কোন খাদ্য উৎপাদন করলে ২ বছর কারাদণ্ড কিংবা দুই হাজার টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে। আমরা এই বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখবো। প্রমান পেলে আইনের যথাযথ প্রয়োগ করা হবে।

আফগানিস্তানে জরুরি মানবিক সহায়তা পাঠাল বাংলাদেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভূমিকম্প বিধ্বস্ত আফগানিস্তানে জরুরি মানবিক সহায়তা পাঠিয়েছে বাংলাদেশ।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) ভোর ছয়টায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বিমান বাহিনীর একটি বিমান জরুরি ত্রাণসামগ্রী নিয়ে কাবুলের উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করে।

ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্তদের জন্য পাঠানো ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে রয়েছে ওষুধ, কম্বল, শুকনো খাবার এবং তাবু টানানোর সামগ্রী।

আফগানিস্তানের দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে গত ২২ জুনের শক্তিশালী ভূমিকম্পে সহস্রাধিক নিহত ও প্রায় দুই হাজারের বেশি মানুষ আহত হয়। সেখানে খাদ্য ও পানি সংকটসহ জরুরি চিকিৎসা সেবার অভাব দেখা দিয়েছে।

ভূমিকম্পসৃষ্ট আকস্মিক ওই দুর্যোগ মোকাবিলায় দেশটির সাধারণ জনগণের জন্য জরুরি এসব মানবিক সহায়তা পাঠাল বাংলাদেশ সরকার।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, আফগানিস্তানে এই মানবিক সহায়তা দক্ষিণ এশিয়া ও এই অঞ্চলের মানুষের সমৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতির বহিঃপ্রকাশ।

;

ঈদযাত্রার প্রথম দিনেই দেড় ঘণ্টা দেরিতে ছাড়ল ট্রেন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঈদযাত্রার প্রথম দিনেই শিডিউল বিপর্যয়ের ফাঁদে পড়েছেন রেলের যাত্রীরা। ঢাকা থেকে রাজশাহীগামী ধূমকেতু এক্সপ্রেস সকাল ৬টায় কমলাপুর থেকে ছাড়ার কথা থাকলেও সেটি ছাড়ে দেড় ঘণ্টা পর, সকাল ৭টা ৩০ মিনিটে। ট্রেনটি কমলাপুর আসে সকাল ৬টা ২০ মিনিটে।

কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. আফছার উদ্দিন বলেন, ট্রেনগুলো দেরি করে আসায় দেরি করে ছেড়েছে। দেরি কেন করলো, তা বলতে পারব না।

দেখা গেছে, মঙ্গলবার (৫ জুলাই) সকাল ৮টার আগে প্লাটফর্মগুলো ছিল অনেকটাই ফাঁকা। স্টেশনের চিত্র দেখে মনে হয়েছে, এটা ঈদযাত্রা নয়, স্বাভাবিক কোনো দিন। ঈদযাত্রার প্রথম দিনে কর্মব্যস্ত মানুষ ও শিক্ষার্থীদের বাড়ি যেতে দেখা গেছে।

নীলফামারীর চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস সকাল ৬টা ৪০ মিনিটে ছাড়ার কথা থাকলেও ১ ঘণ্টা দেরিতে কমলাপুর রেলস্টেশন ছেড়ে গেছে।

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ বাজারগামী তিস্তা এক্সপ্রেস সাড়ে ৭টায় ছাড়ার কথা থাকলেও এটি স্টেশন ছেড়ে গেছে ৮টার পরে।

;

বৃদ্ধের পায়ুপথে টর্চলাইট ঢুকিয়ে নির্যাতন, গ্রেফতার আরও ১



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
আব্দুল গনি

আব্দুল গনি

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে পায়ুপথে টর্চলাইট ঢুকিয়ে বৃদ্ধ শেখ নাছির উদ্দিন মাইজভান্ডারীকে (৬৮) নির্যাতনের ঘটনায় আরেক আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত আব্দুল গনি (৫৫) উপজেলার চর বৈশাখী গ্রামের ওহাব আলীর ছেলে।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) গ্রেফতারকৃত আসামিকে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে। এর আগে, গতকাল সোমবার (৪ জুলাই) রাত সাড়ে ১০টার দিকে উপজেলার চর বৈশাখী গ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো.শহীদুল ইসলাম বলেন, গত রোববার (৩ জুলাই) দিবাগত রাতে ভুক্তভোগী বৃদ্ধের ছেলে ইউপি সদস্য মো. রিপন বাদী হয়ে ৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং আরও অজ্ঞাত ৮-১০ জনকে আসামি করে চরজব্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর রাত সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার থানারহাট বাজার থেকে প্রধান আসামি আবুল হোসেন শাহনাজকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপর মামলার এজাহার নামীয় ৮ নং আসামিকে গ্রেফতার করা হয়। মামলার প্রধান আসামিকে সোমবার বিকেলে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত শুক্রবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১২টার দিকে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরওয়াপদা ইউনিয়নের থানারহাট সংলগ্ন আমানতগঞ্জে শেখ নাছির উদ্দিন মাইজভান্ডারী নামে এক বৃদ্ধ নির্যাতনের শিকার হন।

ভুক্তভোগীর পরিবারের দাবি, চরওয়াপদা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবদুল মান্নান ভূঞার ইন্ধনে ৯ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি শাহনাজ ও তার লোকজন ওই বৃদ্ধের পায়ুপথে টর্চলাইট ঢুকিয়ে তাকে পাশবিক নির্যাতন করে। একটি মসজিদ নির্মাণকে কেন্দ্র করে পূর্ব শত্রুতার জেরে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে ধারণা করছে ভুক্তভোগীর পরিবার। শুক্রবার রাতে ঘটনার পর শনিবার বৃদ্ধ নাছির উদ্দিনকে ২৫০ শয্যা নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে রোববার সকালে হাসপাতালের জেনারেল সার্জন ডা. ফজলুর রহমান মানিকের নেতৃত্বে বৃদ্ধের শরীরে অস্ত্রপাচার করে টর্চলাইটি বের করা হয়। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

;

শেষদিনেও কমলাপুরে টিকিটপ্রত্যাশীদের ভিড়



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঈদ উপলক্ষে ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রির শেষদিনেও কমলাপুর রেল স্টেশনে টিকিটপ্রত্যাশীদের ভিড় দেখা গেছে।

মঙ্গলবার (৫ জুলাই) ঈদ যাত্রা উপলক্ষে ৯ জুলাইয়ের আগাম টিকিট বিক্রি হচ্ছে। অনেকেই টিকিটের প্রত্যাশায় রাত থেকেই লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। উদ্দেশ্য একটাই, ঈদ যাত্রার সোনার হরিণ যে করেই হোক পেতেই হবে।

আজ সকালে রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে সরেজমিনে টিকিটপ্রত্যাশীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, অনেকেই সোমবার (৪ জুলাই) থেকে লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। অনেকে আবার তারও আগ থেকে লাইনে দাঁড়িয়েছেন।

লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা টিকিট প্রত্যাশী রহমান বলেন, পরিবারের সদস্য নিয়ে বাড়ি যেতে হবে, চারটি টিকিট লাগবেই। ঈদে ট্রেনের চেয়ে আরামদায়ক ও নিরাপদ আর কোনো পরিবহন নেই। তাই একা কষ্ট করলেও পরিবার অন্তত নিরাপদে পৌঁছাক সেজন্য রাত থেকে লাইনে দাঁড়িয়েছি।

‘টিকিট যার ভ্রমণ তার’ নিশ্চিত করতে যাত্রীদের এনআইডি বা জন্ম নিবন্ধন সনদের ফটোকপি কাউন্টারে প্রদর্শন করে টিকিট কিনতে হচ্ছে। একজন যাত্রী একসাথে সর্বোচ্চ চারটি টিকিট কিনতে পারবেন। এবার ঢাকার কমলাপুর স্টেশনসহ পাঁচটি স্থানে অগ্রিম টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে।

রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ৩, ৪ জুলাই দেওয়া হয়েছে ৭ ও ৮ জুলাইয়ের টিকিট। আর আজ দেওয়া হচ্ছে ৯ জুলেইয়ের টিকিট। টিকিট কেনার সময় দেখাতে হবে জাতীয় পরিচয়পত্র। ৫০ ভাগ টিকিট পাওয়া যাবে কাউন্টারে এবং বাকি টিকিট মিলবে অনলাইনে।

কমলাপুর ছাড়াও রাজধানীর তেজগাঁও, বিমানবন্দর, বনানী ও গুলিস্তানের পুরানো রেলস্টেশনে আগাম টিকিট বিক্রি হচ্ছে। আর ৭ জুলাই থেকে বিক্রি করা হবে ফিরতি যাত্রার টিকিট।

১১ জুলাইয়ের ট্রেনের ফিরতি টিকিট ৭ জুলাই, ১২ জুলাইয়ের টিকিট ৮ জুলাই, ১৩ জুলাইয়ের টিকিট ৯ জুলাই এবং ১৪ ও ১৫ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি করা হবে ১১ জুলাই।

ঈদুল আজহা উপলক্ষে যাত্রীদের সুবিধার্থে ৬ জোড়া বিশেষ ট্রেন পরিচালনা করা হবে। সেগুলো হলো- দেওয়ানগঞ্জ স্পেশাল, চাঁদপুর স্পেশাল ১, ২, বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম (পঞ্চগড়) ঈদ স্পেশাল, শোলাকিয়া স্পেশাল ১, ২।

;