যশোরে নৃত্য শিল্পীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার 



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, যশোর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

যশোরে রিনি নামে এক নিত্য শিল্পীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

শুক্রবার(২১ জানুয়ারি) স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে কোতয়ালি পুলিশ বিকালে শহরের কাজীপাড়া কাঠালতলা এলাকার সিরাজুল ইসলামের বাড়ির ছয়তলা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তর জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়। তিনি ওই বাড়িতে একা থাকতেন বলে পুলিশ জানিয়েছে।

যশোর কোতয়ালী থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) হারুনুর রশিদ বলেন, থানা থেকে খবর পেয়ে ঘটনা স্থলে গিয়ে ফ্যানের সাথে গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় নিত্য শিল্পীর লাশ উদ্ধার করা হয়। পরে ময়না তদন্তর জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়।

তিনি আরও জানান, রিনির বাড়ির ঠিকানা এই মুহূর্তে জানা যায়নি। তবে তার মা ঢাকায় থাকেন। তাকে খবর দেওয়া হয়েছে। তিনি যশোরের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন।

বাড়ির মালিক সিরাজুল ইসলামের স্ত্রী রিনা বেগম বলেন, আমি গ্রামে ছিলাম। মোবাইলে ফোনে চতুর্থ তলার ভাড়াটিয়া মৃত্যুর ঘটনা জানায়। তড়িঘড়ি পুলিশকে খবর দিয়ে বাসায় আসি।

জানতে চাইলে কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, কি কারণে কেন এ ঘটনা ঘটলো পুলিশ বিষয়টি খুবই গভীরভাবে খতিয়ে দেখছে।

 

ট্রেনের নিচে ঝাঁপ, প্রাণ গেল মৎস্যজীবীর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজবাড়ী
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজবাড়ী সদর উপজেলার ড্রাই আইস ফ্যাক্টরি এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে আনন্দ সরকার (৫৫) নামে এক মৎসজীবী নিহত হয়েছেন।

রোববার (২২ মে) সকাল ৮টার দিকে রাজবাড়ী থেকে কুষ্টিয়াগামী সাটল ট্রেনে কাটা পড়ে তিনি নিহত হন। আনন্দ সরকার ট্রেনের নিচের ঝাঁপ দিয়েছিলেন বলে জানা যায়।

নিহত আনন্দ সরকার পৌর সভার ৮ নং ওয়ার্ডের ড্রাই আইস ফ্যাক্টরি এলাকার সুবল চন্দ্র সরকারের ছেলে। তিনি খালে বিলে কুইচা মাছ ধরে সংসার চালাত।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল ৮টার দিকে ট্রেন আসতে দেখে আনন্দ সরকার ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দেন। এ সময় তার মৃত্যু হয়। পারিবারিক কলহ বা অসুস্থতার কারণে তিনি এমন কাজ করে থাকতে পারেন। তিনি অনেক দিন ধরেই শারীরিকভাবে অসুস্থ ছিলেন।

জিআরপি থানার এসআই মো. আসাদুজ্জামান মৃত্যুর বিষযটি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, লাশের সুরতহাল রিপোর্ট শেষে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে পরবর্তী আইনি কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

;

যমুনার পানি বিপৎসীমা ছুঁইছুঁই



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সিরাজগঞ্জ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

অতিবর্ষণে উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিরাজগঞ্জে যমুনা নদীর পানি বেড়েই চলছে। এতে করে নদীর তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হচ্ছে। পানি বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয়েছে তীব্র নদীভাঙন। যেভাবে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে এতে বন্যার আশঙ্কা করছেন শহর ও নদী পাড়ের মানুষ।

গত ২৪ ঘণ্টায় যমুনা নদীর পানি সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধ এলাকায় ৬ সেন্টিমিটার বৃদ্ধি পেয়েছে। এখনও বিপৎসীমার ১ দশমিক ১১ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে।

এদিকে, পানি বৃদ্ধি ও তীব্র স্রোতের কারণে নদী-তীরবর্তী অঞ্চল কাজীপুর, সদর, বেলকুচি, শাহজাদপুর, এনায়েতপুর ও চৌহালীতে নদীভাঙন দেখা দিয়েছে। ভাঙনে ঘর-বাড়ি, ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে জেলার চৌহালী, শাহজাদপুর, কাজীপুর ও এনায়েতপুরে ভাঙনের তীব্রতা বেশি। এতে করে বন্যার আশঙ্কা করছে শহরবাসী। ভাঙন রোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে বালুর বস্তা ফেলা হচ্ছে।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী নাসির উদ্দিন বলেন, সিরাজগঞ্জ শহর রক্ষা বাঁধসহ সব এলাকাতেই যমুনা নদীর পানি বৃদ্ধি পেলেও এখন পর্যন্ত বিপৎসীমার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে আরও কয়েকদিন এভাবেই পানি বৃদ্ধি পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যদি এভাবেই পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকে তাহলে বিপৎসীমার ওপর দিয়ে যমুনার পানি প্রবাহিত হবে।

সিরাজগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম বলেন, যমুনা নদীতে পানি বাড়ার কারণে নিম্নাঞ্চলের নতুন নতুন এলাকায় পানি প্রবেশ করেছে। এতে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হচ্ছে। কিছু স্থানে নদী ভাঙন রয়েছে। তবে ভাঙন রোধে বালুর বস্তা ফেলা হচ্ছে। সেই সাথে ভাঙন রোধে ৩০ হাজার জিও ব্যাগ প্রস্তুত রয়েছে। এছাড়াও ৯৬ হাজার জিও ব্যাগের জন্য দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে।

;

বেগমগঞ্জে ইয়াবাসহ মাদককারবারি গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
বেগমগঞ্জে ইয়াবাসহ মাদককারবারি গ্রেফতার

বেগমগঞ্জে ইয়াবাসহ মাদককারবারি গ্রেফতার

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে মো.ওমর ফারুক (৩৬) নামের এক মাদক চোরাকারবারিকে গ্রেফতার করেছে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

গ্রেফতারকৃত মো.ওমর ফারুক উপজেলার রসুরপুর ইউনিয়নের লতিফপুর গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে।

রোববার (২২ মে) দুপুরে গ্রেফতারকৃত আসামিকে নোয়াখালী চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করা হবে। এর আগে শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার রসুলপুর ইউনিয়নে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো.শহীদুল ইসলাম। তিনি আরও জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) উপজেলার রসুলপুর এলাকা থেকে একশত পিস ইয়াবাসহ মো.ওমর ফারুককে গ্রেফতার করে। তার বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য আইনে ৪টি মামলা আদালতে বিচারাধীন রয়েছে।

গ্রেফতারকৃত আসামির বিরুদ্ধে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় মাদকদ্রব্য আইনে আরও একটি মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন বলে জানান তিনি।

;

নিজ ঘরেই পড়েছিল ২ সন্তানসহ মায়ের গলাকাটা মরদেহ



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নরসিংদী
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নরসিংদীর বেলাব ‍উপজেলায় নিজ ঘর থেকে মা ও ছেলে-মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

রোববার (২২ মে) সকালে উপজেলার পাটুলী ইউনিয়নের বাবলা গ্রাম থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- রাহিমা বেগম (৩৫), তার ছেলে রাব্বি শেখ (১২) ও মেয়ে রাকিবা শেখ (০৭)।

স্থানীয়রা জানান, আজ সকালে বেলাব ‍উপজেলার পাটুলী ইউনিয়নের বাবলা গ্রামের ওই বাড়িতে বিলকিস বেগম নামের এক নারী বানাতে দেওয়া পোশাক নিতে যায়। এসময় তিনি দেখতে পান দুই সন্তানসহ মায়ের গলাকাটা মরদেহ পড়ে আছে। এরপরই পুলিশে খবর দেওয়া হয়। তবে এ সময় ওই বাড়িতে রাহিমার স্বামী গিয়াস উদ্দিন শেখ ছিলেন না।

বেলাব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাফায়েত হোসেন পলাশ জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। বিস্তারিত তদন্ত করে পরে জানানো হবে।

;