হাতিয়ায় ১৪০ মণ জাটকা জব্দ



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী 
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদীর মৌলভীর চর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৪০ মণ জাটকা ইলিশ জব্দ করেছে কোস্টগার্ড। 

শনিবার রাতে জব্দকৃত মাছগুলো ২০টি এতিমখানার শিক্ষার্থীসহ সহশ্রাধিক গরীব মানুষের মধ্যে বিতরণ করা হয়। 

এর আগে শনিবার সন্ধ্যার সময় অভিযান করে ঢাকার মোকামে নিয়ে যাওয়ার সময় মেঘনা নদী থেকে জব্দ করা হয় এসব জাটকা মাছ।

কোস্টগার্ড হাতিয়ার স্টেশন কমান্ডার লে. ইফতেখারুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে উপজেলার মৌলভীর চর এলাকায় অভিযান চালায় বিসিজি স্টেশান কোস্টগার্ড হাতিয়া।

অভিযান চালিয়ে মৌলভীর চরের উত্তর পাশে মেঘনা নদী থেকে দুটি ইঞ্জিন চালিত ট্রলারে থাকা ১৪টি ঝুঁড়ি থেকে ১৪০ মণ জাটকা মাছ জব্দ করা হয় । পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পরামর্শ অনুযায়ী এবং মৎস্য অফিসের কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে জাটকা মাছ গুলো এতিমখানা ও গরিব দুঃখীদের মাঝে বিতরণ করা হয়। যার বাজার মুল্য প্রায় ১৭লাখ টাকা।

তিনি আরও বলেন, জব্দকৃত এসব জাটকা মাছ ব্যাবসায়ীরা বিক্রির উদ্দেশ্যে ভোলা জেলার মনপুরা উপজেলার হাজিরহাঁট ঘাট থেকে নদী পার হয়ে হাতিয়ার টাংকির ঘাট নিয়ে যাচ্ছিলেন।

সাউথইস্ট ব্যাংক ও হাব’র মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
সাউথইস্ট ব্যাংক ও হাব’র মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

সাউথইস্ট ব্যাংক ও হাব’র মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত

  • Font increase
  • Font Decrease

সম্প্রতি সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড এবং হজ্জ্ব এজেন্সিজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে।

সাউথইস্ট ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব এম. কামাল হোসেন এবং হজ্জ্ব এজেন্সিজ এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) -এর সম্মানিত প্রেসিডেন্ট জনাব এম শাহাদাত হোসেন তসলিম নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। এর মাধ্যমে পবিত্র হজ্জ্ব পালনে ইচ্ছুক সম্মানিত হজ্জ্ব যাত্রীদের সেবা প্রদানকারী হজ্জ্ব এজেন্সিগুলোর অভিভাবক ‘হাব’ এর সম্মানিত সদস্যদের হজ্জ্ব সংক্রান্ত ফি এবং অন্যান্য খরচ ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে জমা দেওয়ার জন্য সাউথইস্ট ব্যাংকের আকর্ষণীয় সার্ভিস ও বিশেষ সেবা সমূহ রয়েছে।

সাউথইস্ট ব্যাংক লিমিটেড ‘হাব’ সদস্যদের কোন চার্জ ছাড়াই প্রিপেইড হজ্জ্ব কার্ড এবং ডুয়েল কারেন্সি ডেবিট /ক্রেডিট (ভিসা এবং মাস্টার কার্ড) ইস্যু করে ‘হাব’ সদস্যদের সেবা প্রদান করবে। এছাড়াও, ব্যাংক হজ্জ্ব এজেন্সীগুলোকে সৌদী আরবের যে কোন ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে সহায়তা করবে এবং সেই একাউন্টের মাধ্যমে বাড়ি ভাড়া এবং অন্যান্য অনুমোদিত খরচ প্রদানের জন্য সহযোগিতা করবে। ‘হাব’ সদস্যরা কোন চার্জ ছাড়াই ব্যাংকের যে কোন শাখায় অনলাইন ক্লিয়ারিংয়ের জন্য নগদ ও চেক জমা দিতে পারবেন।

উক্ত সমঝোতা স্মারক অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে, ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালকদ্বয়, প্রধান কার্যালয়ের নির্বাহীবৃন্দ, কয়েকটি শাখার শাখা ব্যবস্থাপক এবং ‘হাব’ এর উর্ধ্বতন পর্যায়ের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

;

‘শ্রীলঙ্কার কথা বলে দেশে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা চলছে’



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী

  • Font increase
  • Font Decrease

শ্রীলঙ্কার পরিস্থিতির কথা বলে দেশে বিশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও আতঙ্ক সৃষ্টির চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) ঢাকায় সদরঘাট নৌবন্দরে এম.ভি সুন্দরবন-১০ লঞ্চে ‘নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহ-২০২২’ এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন কালে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, দেশের নিরাপত্তা যাতে বিঘ্ন করতে না পারে সেদিকে সতর্ক থাকতে হবে। করোনা পরবর্তী ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধ পরিস্থিতিতে সারাবিশ্ব টালমাটাল। সেখানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বের কারণে বাংলাদেশ দাঁড়িয়ে আছে।

তিনি বলেন, দায়িত্বহীন মানুষেরা দেশ চালিয়েছিলেন বলে আমরা নিরাপত্তা দিতে পারিনি। এখন প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা দেশ চালাচ্ছেন বলে নিরাপত্তা দিতে পারছি। সড়ক, রেলপথে অনেক উন্নয়ন হয়েছে। এমনকি আকাশ পথে বিমান চলাচলের ক্ষেত্রেও উন্নয়ন হয়েছে। নৌপথেও উন্নয়ন হয়েছে। হাজার হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ হচ্ছে। আরো বাজেট আসবে। সেগুলো বাস্তবায়ন করতে হবে।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, আজকে আমরা নদী ও নৌপথ নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছি। কিন্তু অত্যন্ত দূরদৃষ্টি সম্পন্ন মহাবিজয়ের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেই পঞ্চাশের দশক থেকে নদী ব্যবস্থাপনার প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে ভাবতেন। তিনিই এদেশের সমুদ্র, নদ-নদী, নৌপথ এবং নৌপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নের প্রথম পথ প্রদর্শক।

তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের সেই কলঙ্কিত অধ্যায় ও রাজনৈতিক পট পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে সবকিছুই যেন ওলট পালট হয়ে যায়। ২০০৯ সালের শুরুতে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসীন হওয়ার পর পরই নেওয়া হয়েছে নানাবিধ উদ্যোগ।

নৌপ্রতিমন্ত্রী বলেন, বিলুপ্ত ও বেদখল হওয়া নদীগুলোকে পুনরুদ্ধার করে খননের মাধ্যমে প্রবাহমান করা এবং নৌপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নের কঠিন কাজে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিজেই নেতৃত্ব দিচ্ছেন। হারিয়ে যাওয়া নৌপথ উদ্ধার ড্রেজার সংগ্রহের ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন। নৌপথের নাব্যতা বজায় রাখার লক্ষ্যে স্বাধীনতার পর বঙ্গবন্ধু সাতটি ড্রেজার সংগ্রহ করেছিলেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর আর কোন ড্রেজার সংগ্রহের উদ্যোগ নেয়া হয়নি। আওয়ামী লীগ সরকার এ পর্যন্ত ৪০টি ড্রেজার সংগ্রহ করেছে; আরো ৩৫টি ড্রেজার সংগ্রহের কাজ চলমান রয়েছে।

উল্লেখ্য, নৌপথে চলাচলরত নৌযান ও নৌযানে চলাচলকারী যাত্রী সাধারণের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে এবং নৌপথকে দূষণমুক্ত রাখার উদ্দেশ্যে সংশ্লিষ্ট সকলকে উদ্বুদ্ধকরণের জন্য প্রতি বছর নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে নৌপরিবহন অধিদপ্তরের উদ্যোগে নৌ নিরাপত্তা সপ্তাহ পালন করা হয়ে থাকে।

নৌপরিবহন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক কমডোর এ জেড এম জালাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সম্মানিত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তম, এমপি; সংসদ সদস‍্য এস এম শাহজাদা, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সম্মানিত সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী; বিআইডব্লিউটিসি’র চেয়ারম্যান আহমেদ শামীম আল রাজী; বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক; বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল (যাপ) সংস্থার সাবেক প্রধান উপদেষ্টা গোলাম কিবরিয়া টিপু এমপি; বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ চলাচল (যাপ) সংস্থার সহ-সভাপতি বদিউজ্জামান বাদশ; বাংলাদেশ কার্গো ভেসেল ওনার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. নুরুল হক, নৌপরিবহন অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী মনজুরুল কবীর এবং বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাহ আলম ভূইয়া।

;

বিএনপি থেকে আজীবন বহিষ্কার সাক্কু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম
সাক্কু

সাক্কু

  • Font increase
  • Font Decrease

দলীয় শৃঙ্খলা বহির্ভূত কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার জন্য কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপি’র সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মনিরুল হক সাক্কুকে বিএনপির প্রাথমিক সদস্য পদসহ সকল পর্যায়ের পদ থেকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) বিএনপির সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপুর স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে এখন থেকে দলের নেতাকর্মীদেরকে তার সাথে কোন ধরণের যোগাযোগ না রাখার জন্য অনুরোধ করা হলো। 

;

টাঙ্গাইলে বখাটের হাতে শিক্ষক লাঞ্ছিত



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে বখাটের হাতে উপজেলার সল্লা সমবায় উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক লাঞ্ছিত হওয়ার প্রতিবাদে কালিহাতীর সল্লায় ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

বৃহস্পতিবার (১৯ মে) দুপুরে সল্লা সমবায় উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বখাটে শিশিরের বিচারের দাবিতে প্রায় আধা ঘণ্টা ওই মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। এসময় মহাসড়কের দুইপাশে প্রায় ১৫ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়।

পরে কালিহাতী থানা পুলিশের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। শিক্ষার্থীরা সকল প্রকার ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন করে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে শিশিরকে গ্রেফতার করা না হলে কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দেন।

জান যায়, ওই বিদ্যালয়ের ইংরেজি সহকারী শিক্ষক সুশান্ত কুমার সূত্রধর ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় বৃহস্পতিবার সকালে বখাটে শিশির স্কুল প্রাঙ্গণে প্রবেশ করে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে পালিয়ে যায়। শিশির সল্লা গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য আবু নাসিরের ছেলে। এদিকে শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনা শিক্ষার্থীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে তারা একত্রিত হয়ে মহাসড়ক অবরোধ করেন।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও সল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম জানান, বিদ্যালয়ে যাওয়া আসার সময় মাঝে মধ্যেই এই বখাটে শিশির ছাত্রীদের উত্যক্ত করে। শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। বখাটে শিশিরের শাস্তির আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা বাড়িতে চলে যায়।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছাদেক আলী মোল্লা জানান, শিক্ষক লাঞ্ছনার ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজনা সৃষ্টি হলে শিক্ষকদের মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার স্বার্থে বখাটে শিশিরের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

কালিহাতী থানার ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান বলেন, শিক্ষক অভিযোগ দিলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

;