হেলিকপ্টারে চড়ে বিয়ে করতে গেলেন প্রকৌশলী



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাজশাহী
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজশাহীর পুঠিয়ায় পরিবারের ইচ্ছে পূরণ করতে হেলিকপ্টারে চড়ে দিনাজপুর বিয়ে করতে গেলেন এক প্রকৌশলী। হেলিকপ্টার চড়ে বিয়ের যাত্রা দেখতে সকাল থেকে আশেপাশের কয়েক গ্রামের হাজারো উৎসক লোকজন জড়ো হন।

বৃহস্পতিবার (২৭ জানুয়ারি) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার জিউপাড়া ইউনিয়নের হাড়োগাতি গ্রামের একটি ইটভাটায় ল্যান্ড করা হয় হেলিকপ্টার। ওই গ্রামের সাবেক নৌবাহিনী কর্মকর্তা ইসমাইল হোসেনের ছেলে ও ডিপ্লোমা প্রকৌশলী ইমরান হোসেনের বিয়ে হচ্ছে দিনাজপুর বিরামপুর উপজেলা এলাকার সেনা কর্মকর্তার মেয়ের সাথে।

বরের বাবা ইসমাইল হোসেন বলেন, আমাদের পরিবারের ইচ্ছে ছিল ছেলেকে হেলিকপ্টারে করে বিয়ে করানোর। তাদের সে ইচ্ছে পূরণে প্রায় ৩ লাখ টাকা খরচ করে হেলিকপ্টার ভাড়া নেয়া হয়। দুপুরে এখান থেকে বর নিয়ে কনের বাড়ি যাবে। বিয়ের কাজ শেষে আবার নিয়ে আসবে।

আমজাদ হোসেন নামের একজন উৎসক জনতা বলেন, আমাদের গ্রামে তো দূরের কথা, আশেপাশের কোনো গ্রামে কখনোই হেলিকপ্টার নামেনি। তাই হেলিকপ্টার দেখতে সকাল থেকে ওই ইটভাটা এলাকাজুড়ে শত শত উৎসুক মানুষ অপেক্ষা করেন। তবে দীর্ঘ অপেক্ষার অবসান ঘটেছে দুপুরের দিকে। শুনেছি সন্ধ্যার আগে আবারো বউ নিয়ে এখানেই আসবে হেলিকপ্টার।

পুঠিয়া থানার ওসি মো. সোহরাওয়াদী হোসেন বলেন, একটি বিয়ের জন্য ওই গ্রামে হেলিকপ্টার ল্যান্ড করা হবে, এমন একটি আবেদন আমরা পেয়েছি। আর সে মোতাবেক আমরা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি।

নামের পূর্বে ডাক্তার পদবি ব্যবহার করায় পল্লী চিকিৎসককে জরিমানা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, কুষ্টিয়া
নামের পূর্বে ডাক্তার পদবি ব্যবহার করায় পল্লী চিকিৎসককে জরিমানা

নামের পূর্বে ডাক্তার পদবি ব্যবহার করায় পল্লী চিকিৎসককে জরিমানা

  • Font increase
  • Font Decrease

এমবিবিএস বা বিডিএস ডিগ্রী না থাকা সত্ত্বেও নামের পূর্বে ডাক্তার পদবি ব্যবহার করে রোগীদের সাথে প্রতারণা করার অপরাধে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মো. শেখ শামসুল আলী নামের এক পল্লী চিকিৎসককে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

এছাড়াও মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ ও ফিজিশিয়ান স্যাম্পল বিক্রয় করার অপরাধে আরও দুই ফার্মেসী মালিককে জরিমানা আদায় করা হয়।

মঙ্গলবার দিনব্যাপী দৌলতপুর উপজেলার খলিশাকুন্ডি এলাকায় এই জরিমানা করা হয়।

ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কুষ্টিয়ার সহকারী পরিচালক সুচন্দন মন্ডল ও ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর, কুষ্টিয়ার সহকারী পরিচালক মোঃ আব্দুল্লাহ আল মামুন যৌথভাবে এই অভিযান পরিচালনা করেন।

তারা জানান, এমবিবিএস বা বিডিএস ডিগ্রী না থাকা সত্ত্বেও নামের পূর্বে ডাক্তার পদবি ব্যবহার করে রোগীদের সাথে প্রতারণা করার অপরাধে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার খলিশাকুন্ডি বাজারের মোঃ শেখ শামসুল আলী নামের এক পল্লী চিকিৎসককে ১০ হাজার টাকা, মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ ও ফিজিশিয়ান স্যাম্পল বিক্রয় করার অপরাধে শাহানাজ ফার্মেসিকে ১৫ হাজার টাকা এবং মামা ভাগ্নে ফার্মেসিকে ৩ হাজার টাকা প্রশাসনিক ব্যবস্থা হিসেবে জরিমানা করা হয়।

জেলা প্রশাসক, কুষ্টিয়ার নির্দেশনায় পরিচালিত এই বাজার তদারকি কার্যক্রম চলমান থাকবে বলেও জানান তারা।অভিযানে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করেন জেলা পুলিশের একটি টিম।

;

বগুড়ায় আম কুড়াতে গিয়ে  ডোবায় পড়ে দুই শিশুর মৃত্যু



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
বগুড়ায় আম কুড়াতে গিয়ে  ডোবায় পড়ে দুই শিশুর মৃত্যু

বগুড়ায় আম কুড়াতে গিয়ে  ডোবায় পড়ে দুই শিশুর মৃত্যু

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ার গাবতলীতে আম কুড়াতে গিয়ে ডোবার পানিতে পড়ে একই পরিবারের দুই শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ মে) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ডোবা থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের লোকজন।

মৃত দুই শিশু গাবতলী উপজেলার দক্ষিনপাড়া ইউনিয়নের পাড়াবাইশা গ্রামের মেহেদী হাসানের ছেলে মিরাজুল (৬) ও মিজানুর রহমানের মেয়ে আয়শা খাতুন (৬)। মেহেদী হাসান ও মিজানুর রহমান একে অপরের চাচাত ভাই।

জানা গেছে,মঙ্গলবার সন্ধ্যার আগে ঝড়ো বাতাস শুরু হলে দুই শিশু আম কুড়ানোর উদ্দেশ্যে  বাড়ি থেকে বের হয়। দীর্ঘ সময়েও তারা ফিরে না আসলে পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। সন্ধ্যার ৭ টার দিকে গ্রামের একটি আমগাছ সংলগ্ন ডোবার পানিতে দুই শিশুর মরদেহ পাওয়া যায়।

গাবতলী মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জামিরুল ইসলাম বলেন, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। ধারণা করা হচ্ছে ডোবার পানিতে পড়ে থাকা আম তুলতে গিয়ে দুই শিশু পানিতে পড়ে মারা যায়। মরদেহ দুইটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

;

বিপুল পরিমাণ অনুমোদনবিহীন মোবাইল হ্যান্ডসেট জব্দ, আটক ৬



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর মিরপুর-২ নম্বর এলাকার মিরপুর শপিং কমপ্লেক্সের সাতটি দোকান থেকে অনুমোদনবিহীন ২১৩টি মোবাইল হ্যান্ডসেটসহ ৬ জনকে আটক করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ মে) বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) অ্যানফোর্সমেন্ট অ্যান্ড ইন্সপেকশন টিম ও র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব) যৌথ অভিযানে এসব জব্দ করা হয়।

অভিযানকৃত দোকানগুলোর মধ্যে মোবাইল ল্যাব থেকে ৩৪টি, মোবাইল অ্যান্ড গেজেট থেকে ৩১টি, টেক ফ্যাক্টরি থেকে ০৯টি, গ্যাজেট ভিলা-৬৩৯ থেকে ৩৩টি, গ্যাজেট ভিলা-৬৬২ থেকে ৩১টি, গ্যাজেট ভিলা-৬৭১ থেকে ৩৩টি এবং কোরাস থেকে ৪২টি বিভিন্ন মডেলের হ্যান্ডসেট জব্দ করা হয়।

আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে অনুমোদনবিহীন মোবাইল হ্যান্ডসেটের ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। তাদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ আইন ২০০১, (সংশোধিত-২০১০) অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

;

নর্থ সাউথের বিলাসবহুল ১০ গাড়ি বিক্রির নির্দেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (এনএসইউ) বিলাসবহুল ১০ গাড়ি বিক্রি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের তহবিলে জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। বিলাসবহুল এসব গাড়ির প্রতিটির মূল্য প্রায় তিন কোটি। শুধু একটি গাড়ির মূল্য এক কোটি ১০ লাখ টাকা।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগ থেকে মঙ্গলবার (১৭ মে) বিশ্ববিদ্যালয়টির ভিসিকে নির্দেশনা দিয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১০ এর ধারা ৪৪ (১) অনুযায়ী প্রত্যেক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সাধারণ তহবিল থাকবে এবং ৪৪ (৭) ধারা অনুযায়ী সাধারণ তহবিলের অর্থ উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় ব্যয় ব্যতীত অন্য কোনো উদ্দ্যেশে ব্যয় করা যাবে না।

কিন্তু নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষা ও গবেষণা উন্নয়ন খাতে প্রয়োজনীয় ব্যয় না করে ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২২ জানুয়ারি পর্যন্ত মোট ১২টি গাড়ি ক্রয় করে। যার মধ্যে ১০টি বিলাসবহুল গাড়িই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা উন্নয়নের সঙ্গে কোনোভাবেই সম্পৃক্ত নয়।

মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১০ এর ৪৬ (৬) ধারা অনুযায়ী সরকার ও কমিশন সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্থিক ও প্রশাসনিক স্বচ্ছতা ও শৃঙ্খলা নিশ্চিতকরণ এবং শিক্ষার মান উন্নয়নের জন্য যেরূপ উপযুক্ত বিবেচনা করবে সেরূপ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রয়োজনীয় নির্দেশ প্রদান করতে পারবে এবং উক্ত বিশ্ববিদ্যালয় উক্ত নির্দেশ অনুযায়ী উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় নির্দেশনা দিয়েছে, ২০১৯ সালে জানুয়ারি থেকে ২০২২ সালের জানুয়ারি পর্যন্ত কেনা ওই ১২টি গাড়ির মধ্যে ১০টি বিলাসবহুল গাড়ি খোলা দরপত্রের মাধ্যমে বিক্রয় করতে হবে। বিক্রয়কৃত অর্থ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা ও গবেষণা উন্নয়নে ব্যয়ের লক্ষ্যে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, ২০১০ এর ধারা ৪৪ (১) অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ তহবিলে জমা দিয়ে মন্ত্রণালয়ের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন-কে জরুরি ভিত্তিতে অবহিত করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

গাড়িগুলোর মধ্যে বিভিন্ন মডেলের ৯টি হার্ড জিপ এবং এবিটি কার (স্যালুন) মার্সিডিজ বেঞ্জ রয়েছে।

;