মুরিদ আতঙ্কে ব্যবসায়ী পরিবার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট,বার্তা২৪.কম,লক্ষ্মীপুর
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের আটরশির পীরের মুরিদ কাজী জামশেদ কবির বাকী বিল্লাহ ও তার বাহিনীর হামলা সহ বিভিন্ন অত্যাচারে আতঙ্কগ্রস্ত এক ব্যবসায়ী পরিবারে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। ওই ব্যাবসায়ী পরিবারের জমিজমা দখলের অসৎ উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সময়ে বাকীবিল্লাহ দফায় দফায় হামলার ঘটন ঘটায় পরিবারের সদস্যদের উপর। এমনকি ওই ব্যবসায়ী পরিবারকে হত্যাসহ বিভিন্ন হুমকিও দিচ্ছে পীর মুরিদ বাকীবিল্লাহ। এ আতঙ্কে ব্যবসায়ী পরিবারটি বর্তমানে পালিয়ে বেড়াচ্ছে। জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে বুধবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে রায়পুর আলিয়া মাদরাসা প্রাঙ্গণে ভূক্তভোগী পরিবারটি সংবাদ সম্মেলনে করেন।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন ভূক্তভোগী ব্যবসায়ী সাইফুদ্দিন নয়ন, তার ভাই দলিল লেখক কামাল উদ্দিন বাহার, পরিবারের সদস্য খালেদা আক্তার, নাজমুন নাহার, শাজেদা আক্তার ও সাহেদা আক্তার। এসময় তাদের কয়েকজন প্রতিবেশীও উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, আওয়ামী লীগ নেতা বাকী বিল্লাহ আটরশির মুরিদ। তিনি রায়পুর পৌর শহরে নয়নদের জমিতে আটরশির ওরসের জন্য গরুর প্যান্ডেল করতে চেয়েছিলেন। এতে বাধা দেওয়ায় বাকী বিল্লাহ প্রকাশ্যেই তাকে মারধর করে। গেল শুক্রবার বিকেলে পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড সিএনজি স্টেশন এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। সন্ধ্যায় নয়ন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নেন। এদিকে তাকে মারধরের সিসি ক্যামেরা ফুটেজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়। এনিয়ে কয়েকটি গণমাধ্যমে তথ্যবহুল সংবাদ পরিবেশন হয়। কিন্তু বাকী বিল্লাহর বিরুদ্ধে ভূক্তভোগী ব্যবসায়ী রায়পুর থানায় অভিযোগ করলেও পুলিশ তা গ্রহণ করেনি বলে অভিযোগ রয়েছে।

সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ও ভুক্তভুগী পরিবারের সদস্যদের বক্তব্য অনুযায়ী, ঘটনার সময় বাকী বিল্লাহ নিজেই ব্যবসায়ী নয়নকে মারধর করে। একপর্যায়ে লোকজন নিয়ে তাকে মারতে মারতে ঘরের ভেতর নিয়ে যায়। ঘরে ভেতর ভাঙচুর শেষে আওয়ামী লীগ নেতা তার লোকজন নিয়ে বের হয়ে যায়। যাবার সময় নয়নের ভাই বাহারকেও হুমকি দিয়ে যায়। এসব ঘটনায় থানায় অভিযোগসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়ার ঘটনা শুনে বাকী বিল্লাহ নিজে ও বিভিন্ন মাধ্যমে ব্যবসায়ীকে হত্যা ও পরিবারের সদস্যদের মাধরসহ বিভিন্ন হুমকি দিয়ে আসছে। তারা এখন নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। যেকোন সময় বাকী বিল্লাহ তাদের অপূরণীয় ক্ষতি করতে পারে বলে তারা আশঙ্কা করছেন। ঘটনাটির সুষ্ঠু বিচারের দাবিতে তারা স্থানীয় এমপি নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন ও পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চেয়েছেন।
এসময় পরিবারটি আরও জানায়,এমনকি প্রায়ই ব্যাবসায়ী পরিবারটির বাড়ীর সামনে মঞ্চ বসিয়ে দিন-রাত মাইক বাজিয়ে তাদের স্বাভাবিক জীবনকে অতীষ্ঠ করে তুলছেন বাকীবিল্লাহ। মাইকের উচ্চশব্দে বাড়ীর শিশু,বৃদ্ধরা অসুস্থ হয়ে পড়ছে। এছাড়া শিক্ষার্থীদেরও শব্দের কারনে পড়ালেখা ব্যাহত হচ্ছে।

পরিবারের সদস্য কামাল উদ্দিন বাহার বলেন, আমাদের বাড়ির সামনে বাকী বিল্লাহ আটরশির ওরসের জন্য গরুর প্যান্ডেল তৈরি করতে চেয়েছিলেন। এতে বিভিন্ন সমস্যা সৃষ্টি হবে বলে তাকে প্যান্ডেল তৈরি করতে দেওয়া হয়নি। এতে তিনি আমার ভাইকে মারধর করে। আমাদের ঘরের ভেতর ভাঙচুর করে। আমি উপজেলার সাব রেজষ্ট্রার অফিসে দলিল লেখি। আমাকে সেখানে থেকে লাথি মেরে বের করে দেওয়ার হুমকি দেয়। দীর্ঘদিন ধরে সাবরেজিষ্ট্রার অফিসে বাকী বিল্লাহ প্রভাব খাটিয়ে আসছে।

অভিযোগ রয়েছে জামসেদ কবির বাকীবিল্লাহ আটরশির পীরের নেতৃত্বাধীন জেলা জাকের পার্টির সাধারন সম্পাদকের দায়িত্বে থাকায় পীর ভক্তদের নিয়ে বাহিনী তৈরী করে অপপ্রভাব বিস্তার করে চলছেন। এমনকি জলসাঘর দিয়ে রাতভর অনাচারে লিপ্ত থাকে ভক্ত খাদেমদের নিয়ে।

জানার জন্য এাধিকবার চেষ্টা করেও অভিযুক্ত জামসেদ কবির বাকী বিল্লাহর সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

জেলা জাকের পার্টির সভাপতি আজাদ হোসেন বাঙ্গালী জানান,বাকীবিল্লাহর বিভিন্ন স্বেচ্ছাচারিতা ও প্রভাব বিস্তারের অভিযোগ থাকায় তাকে ইতিপূর্বে জাকেরপার্টি থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তবুও খামখেয়ালীভাবে সে এখনও পীরের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্নভাবে তৎপর রয়েছে। বিষয়টি পীরের দরবারে মহাসম্মেলনে উপস্থাপন করা হয়েছে।

রায়পুর থানা উপ পরিদর্শক আবদুল আলী পাটোয়ারী (ওসি তদন্ত) বলেন,আমি এ থানায় নতুন এসেছি। বিষয়টি ওসি সাহেব ভাল বলতে পারেন। তবে তিনি বর্তমানে ট্রেনিংএ জেলার বাইরে অবস্থান করছেন।

প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা ২৯ ডিসেম্বর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বৃত্তি পরীক্ষার আগামী ২৯ ডিসেম্বর। ২৭ ডিসেম্বর বিতরণ করা হবে প্রবেশপত্র।

ওই দিন উপজেলা পর্যায়ে বেলা ১১টায় শুরু হয়ে দুপুর ১টায় পরীক্ষা শেষ হবে। দুই ঘণ্টার এ পরীক্ষায় বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ে ২৫ নম্বর করে মোট ১০০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে।

এর আগে ২৭ ডিসেম্বরের মধ্যে স্কুল থেকে প্রবেশপত্র শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিতরণ করা হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (সাধারণ প্রশাসন) মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সুষ্ঠুভাবে বৃত্তি পরীক্ষা নিতে বৃহস্পতিবার উপজেলা ও থানা শিক্ষা অফিসগুলোকে প্রস্তুতি নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, পঞ্চম শ্রেণির বার্ষিক মূল্যায়নে প্রতিদিনের উত্তরপত্র প্রতিদিন মূল্যায়ন করতে হবে। ১৯ ডিসেম্বর পরীক্ষা শেষে ২০ ডিসেম্বরের মধ্যে উত্তরপত্র মূল্যায়ন করতে হবে। এরপর ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে পঞ্চম শ্রেণির ফল প্রকাশ করতে হবে।

উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের স্কুল থেকে প্রস্তুতকৃত ডিআর ফরম ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে উপজেলা শিক্ষা অফিস সংগ্রহ করবে। উপজেলা শিক্ষা অফিস ২৩ ডিসেম্বরের মধ্যে জেলায় ডিআর পাঠাতে হবে। জেলা থেকে অবশ্যিকভাবে ২৪ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে ডিআর পাঠাতে হবে।

;

গোলাপবাগ মাঠে সমাবেশ আয়োজনে বিএনপি ডিএসসিসির অনুমতি নেয়নি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গোলাপবাগ মাঠে রাজনৈতিক সমাবেশ আয়োজনে বিএনপি'র কাছ থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ঢাদসিক) এখন পর্যন্ত কোনও আবেদন পায়নি। আবেদন পাওয়ার পরেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএসসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাছের বলেন, বিএনপি সমাবেশ করার জন্য ডিএসসিসির মাঠ ব্যবহারের অনুমতি নেয়নি। অনুমতি না নিয়ে তারা এ সমাবেশ করতে পারবে না। 

তবে এখানে উল্লেখ যে, গোলাপবাগ খেলার মাঠের উন্নয়নে “ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন (মেগা)” শীর্ষক একটি প্রকল্প চলমান রয়েছে। প্রকল্পের আওতায় গোলাপবাগ খেলার মাঠে সীমানা প্রাচীর ও বেষ্টনী, প্যাভিলিয়ন, ড্রেসিং রুম, বাস্কেটবল গ্রাউন্ড, নর্দমা, হাঁটার পথ, পাঠাগার ভবন (লাইব্রেরি বিল্ডিং), বাজার (মার্কেট বিল্ডিং) ইত্যাদি অনুষঙ্গের উন্নয়নসহ গোলাপবাগ খেলার মাঠকে শুধু খেলাধুলার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে।

মাঠের উন্নয়নে প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে, যা প্রায় সমাপ্তির পথে। শীঘ্রই এই মাঠ উদ্বোধনে তারিখ নির্ধারণ করার পর্যায়ে রয়েছে। সুতরাং প্রকল্পের এই পর্যায়ে গোলাপবাগ খেলার মাঠে রাজনৈতিক সমাবেশ আয়োজন করা হলে রাষ্ট্রীয় সম্পদ বিনষ্ট হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

;

ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এর আগে শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) বিকেলে পল্টন থানার মামলায় মির্জা ফখরুল ও আব্বাসকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে হাজির করা হয়।

এদিকে জামিন নামঞ্জুর করে বিএনপির এই দুই নেতাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়ার পর আদালত প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গত বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলার পরিকল্পনা ও উসকানি দেয়ার অভিযোগে গতকাল পল্টন থানায় করা মামলায় মির্জা ফখরুল ও  আব্বাসকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

গত ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এতে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। আহত হন অনেকে। পরে বিএনপি কার্যালয়ে অভিযান চালানো হলে সেখানে অনেক ককটেল পাওয়ার কথা জানায় পুলিশ।

এ ঘটনায় পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় ৪৭৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত দেড় থেকে দুই হাজার বিএনপির নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়।

;

প্রধানমন্ত্রী সব ধর্মের মানুষের কল্যাণে অবিরাম কাজ করছেন: বীর বাহাদুর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
প্রধানমন্ত্রী সব ধর্মের মানুষের কল্যাণে অবিরাম কাজ করছেন: বীর বাহাদুর

প্রধানমন্ত্রী সব ধর্মের মানুষের কল্যাণে অবিরাম কাজ করছেন: বীর বাহাদুর

  • Font increase
  • Font Decrease

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য অঞ্চলের মানুষের কল্যাণ চান। তিনি দেশের সকল ধর্মের মানুষের উন্নয়ন ও কল্যাণে অবিরাম কাজ করছেন। প্রধানমন্ত্রী পার্বত্য জেলাগুলোতে মসজিদ, মাদ্রাসা, বৌদ্ধ বিহার, মন্দির, গীর্জা নির্মাণ করে দিচ্ছেন। এছাড়া চলাচলের পথকে সহজ ও সুগম করতে বন্ধুর এলাকাগুলোতে পাকা রাস্তা, ব্রীজ, কালভার্ট, ইত্যাদি নির্মাণ করে দিচ্ছেন। এজন্য তিনি পার্বত্য তিন জেলার উন্নয়নে  হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছেন।

শুক্রবার বান্দরবান জেলার আলীকদম থানার মারাইংতং ধম্মা জেদী ধর্ম বিহারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও মাঙ্গলিক ধর্মীয় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি আরও বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার গণতান্ত্রিক সরকার। মানুষের কল্যাণে এ সরকার সারাদেশে উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রেখেছে। এ সরকার আগামি ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী রাষ্ট্রে পরিণত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। আগের কোনো সরকারের আমলে পার্বত্য অঞ্চলে উন্নয়নের এতো জোয়ার ছিল না। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার পার্বত্য এলাকার মানুষের কল্যাণের জন্য অত্যন্ত আন্তরিক। বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার ছাড়া অন্য কোনো বিকল্প নাই। তিনি সরকারের উন্নয়ন কাজে সকলকে আন্তরিক থাকার আহ্বান জানান।

ভরির মুখ মংপাইখই হেডম্যান পাড়া বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ উঃ উইচারা মহাথের এর সভাপতিত্বে এসময় আলী কদম কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত উঃ ঞানিকা উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি পরে বিকালে লামা উপজেলার চম্পাতলা বৌদ্ধবিহার উৎসর্গ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে চম্পাতলা বৌদ্ধবিহারের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

এর আগে মন্ত্রী বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নে ৪৬ কোটি ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে চারটি পাকা সড়ক ও একটি ব্রীজ এবং ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে আলীক্ষ্যং জামে মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করেন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে নির্মিত পাকা সড়ক ও ব্রীজ  এবং মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। পরে মন্ত্রী বাইশারী ইউনিয়নের আলীক্ষ্যং পুলিশ ক্যাম্প মাঠে স্থানীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বান্দরবান জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী জিয়াউল ইসলাম মজুমদার, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন ইয়াছির আরাফাত, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষ্মীপদ দাস, মোজাম্মেল হক বাহাদুরসহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

;