বগুড়ায় আ’লীগ নেতার ছুরিকাঘাতে বিএনপি নেতা খুন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম, বগুড়া
ছবি: বার্তা ২৪.কম

ছবি: বার্তা ২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ার শিবগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতার ছুরিকাঘাতে খুন হয়েছেন বিএনপি নেতা ও ট্রাক শ্রমিক নেতা শহিদুল ইসলাম (৫৫)।

বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাতে শিবগঞ্জ উপজেলার কিচক বন্দরে আন্তঃজেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন অফিসে ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটে।

নিহত শহিদুল ইসলাম শিবগঞ্জ উপজেলার কিচক ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি এবং আন্তজেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়ন কিচক বন্দর শাখার সাধারন সম্পাদক ছিলেন।

শহিদুল ইসলাম কিচক ইউনিয়নের বেলাই গ্রামের মৃত আফাজ উদ্দিনের ছেলে।

নিহত শহিদুল ইসলামের চাচাতো ভাই বগুড়া অ্যাডভোকেট বার সমিতির সাধারন সম্পাদক আব্দুল বাছেদ জানান, আন্তঃজেলা ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি ও কিচক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবু সাঈদ ও শ্রমিকলীগ নেতা ইয়াকুব আলীর সাথে সংগঠনের পদ নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল।

বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার রাত ৮টার দিকে শহিদুল অফিসে বসে থাকা অবস্থায় আবু সাঈদ তার পেটে ছুরিকাঘাত করেন। পরে তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ১০ টার দিকে তিনি মারা যান।

এদিকে এই ঘটনার পর কিচক বন্দরে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রাখতে সেখানে পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

শিবগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দীপক কুমার দাস বলেন ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃত্ব নিয়ে দ্বন্দের জের ধরে খুনের ঘটনা ঘটে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। খুনের সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করতে অভিযান চলছে।

গোলাপবাগ মাঠে সমাবেশ আয়োজনে বিএনপি ডিএসসিসির অনুমতি নেয়নি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গোলাপবাগ মাঠে রাজনৈতিক সমাবেশ আয়োজনে বিএনপি'র কাছ থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ঢাদসিক) এখন পর্যন্ত কোনও আবেদন পায়নি। আবেদন পাওয়ার পরেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএসসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাছের বলেন, বিএনপি সমাবেশ করার জন্য ডিএসসিসির মাঠ ব্যবহারের অনুমতি নেয়নি। অনুমতি না নিয়ে তারা এ সমাবেশ করতে পারবে না। 

তবে এখানে উল্লেখ যে, গোলাপবাগ খেলার মাঠের উন্নয়নে “ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন (মেগা)” শীর্ষক একটি প্রকল্প চলমান রয়েছে। প্রকল্পের আওতায় গোলাপবাগ খেলার মাঠে সীমানা প্রাচীর ও বেষ্টনী, প্যাভিলিয়ন, ড্রেসিং রুম, বাস্কেটবল গ্রাউন্ড, নর্দমা, হাঁটার পথ, পাঠাগার ভবন (লাইব্রেরি বিল্ডিং), বাজার (মার্কেট বিল্ডিং) ইত্যাদি অনুষঙ্গের উন্নয়নসহ গোলাপবাগ খেলার মাঠকে শুধু খেলাধুলার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে।

মাঠের উন্নয়নে প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে, যা প্রায় সমাপ্তির পথে। শীঘ্রই এই মাঠ উদ্বোধনে তারিখ নির্ধারণ করার পর্যায়ে রয়েছে। সুতরাং প্রকল্পের এই পর্যায়ে গোলাপবাগ খেলার মাঠে রাজনৈতিক সমাবেশ আয়োজন করা হলে রাষ্ট্রীয় সম্পদ বিনষ্ট হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

;

ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এর আগে শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) বিকেলে পল্টন থানার মামলায় মির্জা ফখরুল ও আব্বাসকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে হাজির করা হয়।

এদিকে জামিন নামঞ্জুর করে বিএনপির এই দুই নেতাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়ার পর আদালত প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গত বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলার পরিকল্পনা ও উসকানি দেয়ার অভিযোগে গতকাল পল্টন থানায় করা মামলায় মির্জা ফখরুল ও  আব্বাসকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

গত ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এতে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। আহত হন অনেকে। পরে বিএনপি কার্যালয়ে অভিযান চালানো হলে সেখানে অনেক ককটেল পাওয়ার কথা জানায় পুলিশ।

এ ঘটনায় পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় ৪৭৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত দেড় থেকে দুই হাজার বিএনপির নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়।

;

প্রধানমন্ত্রী সব ধর্মের মানুষের কল্যাণে অবিরাম কাজ করছেন: বীর বাহাদুর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
প্রধানমন্ত্রী সব ধর্মের মানুষের কল্যাণে অবিরাম কাজ করছেন: বীর বাহাদুর

প্রধানমন্ত্রী সব ধর্মের মানুষের কল্যাণে অবিরাম কাজ করছেন: বীর বাহাদুর

  • Font increase
  • Font Decrease

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পার্বত্য অঞ্চলের মানুষের কল্যাণ চান। তিনি দেশের সকল ধর্মের মানুষের উন্নয়ন ও কল্যাণে অবিরাম কাজ করছেন। প্রধানমন্ত্রী পার্বত্য জেলাগুলোতে মসজিদ, মাদ্রাসা, বৌদ্ধ বিহার, মন্দির, গীর্জা নির্মাণ করে দিচ্ছেন। এছাড়া চলাচলের পথকে সহজ ও সুগম করতে বন্ধুর এলাকাগুলোতে পাকা রাস্তা, ব্রীজ, কালভার্ট, ইত্যাদি নির্মাণ করে দিচ্ছেন। এজন্য তিনি পার্বত্য তিন জেলার উন্নয়নে  হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছেন।

শুক্রবার বান্দরবান জেলার আলীকদম থানার মারাইংতং ধম্মা জেদী ধর্ম বিহারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও মাঙ্গলিক ধর্মীয় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি আরও বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার গণতান্ত্রিক সরকার। মানুষের কল্যাণে এ সরকার সারাদেশে উন্নয়ন কাজ অব্যাহত রেখেছে। এ সরকার আগামি ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী রাষ্ট্রে পরিণত করার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। আগের কোনো সরকারের আমলে পার্বত্য অঞ্চলে উন্নয়নের এতো জোয়ার ছিল না। তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার পার্বত্য এলাকার মানুষের কল্যাণের জন্য অত্যন্ত আন্তরিক। বাংলাদেশের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার ছাড়া অন্য কোনো বিকল্প নাই। তিনি সরকারের উন্নয়ন কাজে সকলকে আন্তরিক থাকার আহ্বান জানান।

ভরির মুখ মংপাইখই হেডম্যান পাড়া বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ উঃ উইচারা মহাথের এর সভাপতিত্বে এসময় আলী কদম কেন্দ্রীয় বৌদ্ধ বিহারের বিহারাধ্যক্ষ ভদন্ত উঃ ঞানিকা উদ্বোধক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি পরে বিকালে লামা উপজেলার চম্পাতলা বৌদ্ধবিহার উৎসর্গ অনুষ্ঠানে যোগ দেন। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে চম্পাতলা বৌদ্ধবিহারের নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন মন্ত্রী।

এর আগে মন্ত্রী বান্দরবান জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নে ৪৬ কোটি ৩২ লাখ টাকা ব্যয়ে চারটি পাকা সড়ক ও একটি ব্রীজ এবং ৪০ লাখ টাকা ব্যয়ে আলীক্ষ্যং জামে মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উদ্বোধন করেন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে নির্মিত পাকা সড়ক ও ব্রীজ  এবং মসজিদ নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। পরে মন্ত্রী বাইশারী ইউনিয়নের আলীক্ষ্যং পুলিশ ক্যাম্প মাঠে স্থানীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে বান্দরবান জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী জিয়াউল ইসলাম মজুমদার, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের বান্দরবান অঞ্চলের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বিন ইয়াছির আরাফাত, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের সদস্য লক্ষ্মীপদ দাস, মোজাম্মেল হক বাহাদুরসহ বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

;

মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাস গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

  • Font increase
  • Font Decrease

পুলিশের ওপর হামলার মামলায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) দুপুরে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান হারুন অর রশিদ এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও মির্জা আব্বাসকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আমরা নিয়ে এসেছিলাম। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ৮ তারিখের ঘটনার নির্দেশদাতা হিসেবে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে।

এর আগে, বৃহস্পতিবার রাত ৩টার পর বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলকে তার উত্তরার বাসা থেকে এবং ৩টা ২০ মিনিটে স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে তার শাহজাহানপুরের বাসা থেকে গোয়েন্দা পুলিশ তুলে নিয়ে যায়।

হারুন অর রশীদ বলেন, দুইদিন আগে যে উদ্ভূত পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে আমাদের প্রায় ৫০ থেকে ৬০ জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। একজন মারাও গেছে। সেখানে জানমালের ক্ষতি হয়েছে। সবকিছু মিলিয়েই আমরা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের গ্রেফতার করেছি।

ডিবি প্রধান আরও বলেন, গতকাল বিএনপির যে প্রতিনিধিদল এসেছিল, তাদের সঙ্গে আমাদের মিটিং হয়েছে। বৈঠকে তারা দুটি প্রস্তাব করেছেন। আমরা দুটি প্রস্তাবই মেনে নিয়েছি। তারা বলেছিল, জনসমাবেশ করতে চায় কমলাপুর স্টেডিয়ামে। আমরা তখন আরেকটি স্থান বাঙলা কলেজের কথা বলেছি। দুটি স্থানই তারা দেখেছেন। এরপর আমরা মোটামুটি সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছি- যেহেতু কমলাপুর স্টেডিয়ামে ক্রিকেট খেলা রয়েছে। সেখানে মাঠটি নষ্ট হয়ে যাবে। সে কারণে আমাদের পুলিশের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত হয়েছে জনসমাবেশটি করবে মিরপুর বাঙলা কলেজে। এটাই অনানুষ্ঠানিক সিদ্ধান্ত।

;