বগুড়ায় জোড়া খুনের রহস্য উদঘাটন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম,বগুড়া
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ফ্যাক্টরির মালামাল চুরির প্রতিবাদ করে মালিককে বলে দিতে চাওয়ায় বগুড়ায় আব্দুল হান্নান (৪৫) ও সামছুল হক (৬৬) নামের দুই নৈশ প্রহরীকে হত্যা করে একই প্রতিষ্ঠানের সাবেক ও বর্তমান তিন কর্মচারী। পরে হত্যাকাণ্ড ভিন্ন খাতে চালানোর জন্য তারা মোবাইল ফোনে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

রোববার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বগুড়ার পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তী তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এতথ্য জানান।

তিনি জানান, হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনাকারী ও জড়িত ৫ জনের মধ্যে তিনজনকে গ্রেফতারের মধ্য দিয়ে চাঞ্চল্যকর এই জোড়া খুনের রহস্য উদঘাটন হল। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেন, বগুড়া শহরের বিসিক শিল্প নগরীর মাছু মেটাল ইন্ডাষ্ট্রির গাড়ি চালক শাজাহানপুর উপজেলার চকলোকমান এলাকার মৃত মিসবাহুল মিল্লাত নান্নার ছেলে হোসাইন বিন মিল্লাত ওরফে নিনজা (৩৪) গাড়ির হেলপার বগুড়া শহরের নারুলী তাল পাট্টি এলাকার বদিউজ্জামনের ছেলে রাহাত (২১) ও প্রতিষ্ঠানের সাবেক কর্মচারী নারুলী এলাকার সায়েদ হাসান ব্যাপারীর ছেলে সুমন ব্যাপারী (২৭)। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি রাত ৯টায় গ্রেফতারকৃত তিনজন বগুড়া শহরের শহীদ খোকন পার্কে বসে দুই নৈশ প্রহরীকে হত্যার পরিকল্পনা করে।

দুই নৈশ প্রহরীকে হত্যার বর্ননা দিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, গ্রেফতারের পর তারা জানায় খোকন পার্কে আড্ডা দেয়ার সময় মাছু মেটালের সাবেক কর্মচারী সুমন ব্যাপারী নিজের আর্থিক দৈনতার কথা অপর দুইজনকে জানিয়ে ১০ হাজার টাকা ধার চায়। এ সময় গাড়িচালক ও হেলপার সুমনকে বলে একটা কাজ করতে ২ লাখ টাকা দিব। কাজটা কি জানতে চাইলে সুমনকে বলে ভোরে ফজরের নামাজের পর বিসিক মাছু মেটালে আসবি। সেই অনুয়ায়ী ২৪ ফেব্রুয়ারি ভোরে গ্রেফতারকৃত ৩ জনসহ ৫ জন মিলিত হয়। এরপর ফ্যাক্টরি থেকে মালামাল ডেলিভারী হবে বলে তারা ড্রাইভার হেলপারের সহযোগিতায় ফ্যাক্টরির ভিতরে প্রবেশ করে। এরপর নৈশ প্রহরী আব্দুল হান্নানকে কৌশলে ফ্যাক্টরির পিছনে পানির ট্যাংকির কাছে নিয়ে গিয়ে মাথায় লোহার রড দিয়ে আঘাত করে ট্যাংকির মধ্যে ফেলে দেয়। এরপর অপর নৈশপ্রহরী সামছুল হককে ঘুম থেকে ডেকে তুলে একই কায়দায় হত্যার পর ট্যাংকির পানিতে ফেলে দেয়া হয়। দুইজনকে হত্যার পর নৈশ প্রহরী হান্নানের মোবাইল ফোন সুমন ব্যাপারীকে দিয়ে গাজিপুর চলে যেতে বলে এবং ফ্যাক্টরির মালিক ও নিহতের পরিবারের কাছে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ  দাবি করার পরামর্শ দেন। গাড়ি চালক ও হেলপারের পরামর্শে সুমন প্রথমে গাবতলী ও পরে গাজিপুরে গিয়ে ফোন করে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ  দাবি করে। শুক্রবার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে ফ্যাক্টরির পানির ট্যাংকি থেকে দুই নৈশ প্রহরীর মরদেহ পুলিশ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে বগুড়া সদর থানায় মামলা হলে তদন্তদের ভার দেয়া হয় ডিবি পুলিশকে। মরদেহ উদ্ধারের পর থেকে ডিবি ইনচার্জ সাইহান ওলি উল্লাহের নেতৃত্বে ডিবি পুলিশের টিম ২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে অভিযান চালিয়ে গাজিপুর থেকে সুমন ব্যাপারীকে গ্রেফতারের পর অপর ২জনকে বগুড়া থেকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সুপার আরও বলেন হত্যাকাণ্ডে জড়িত ৫ জনের মধ্যে তিনজনকে গ্রেফতার এবং হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত লোহার রড উদ্ধার করা হয়েছে। জড়িত অপর ২ জনকে শনাক্ত করা গেছে তাদেরকে গ্রেফতার করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

দুর্নীতি আর উন্নয়ন একসঙ্গে চলতে পারে না: রাষ্ট্রপতি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ

  • Font increase
  • Font Decrease

দুর্নীতি আর উন্নয়ন একসঙ্গে চলতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

তিনি বলেন, দুর্নীতিবাজ যে দলের হোক, দুর্নীতি করলে শাস্তি পেতে হবে- এটা নিশ্চিত করতে হবে।

শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস উপলক্ষে শিল্পকলা একাডেমিতে দুর্নীতি দমন কমিশন আয়োজিত অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি একথা বলেন।

রাষ্ট্রপতি বলেন, দুর্নীতি শুধু বাংলাদেশের নয়, এটি একটি বৈশ্বিক সমস্যা।

আর্থ-সামাজিকসহ প্রতিটি খাতে বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতি তুলে ধরে তিনি বলেন, দুর্নীতি আর উন্নয়ন একসঙ্গে চলতে পারে না।

রাষ্ট্রপ্রধান মনে করেন দুর্নীতি সমাজে বৈষম্যের সৃষ্টি করে এবং অর্থনৈতিক বিকাশ ও উন্নয়নকে বাধগ্রস্ত করে।

দুর্নীতি দমনে সরকারের নানা পদক্ষেপ তুলে ধরে রাষ্ট্রপতি দুর্নীতির বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার ওপর জোর দেন। আবদুল হামিদ বলেন, দুর্নীতিবাজ, ঘুষখোরদের সামাজিকভাবে বয়কট করতে হবে।

দুর্নীতি দমনে আরও কার্যকর ও সাহসী পদক্ষেপ নিতে দুর্নীতি দমন কমিশনকে নির্দেশ দেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

অনুষ্ঠানে প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, দুর্নীতি দমন কমিশনের চেয়ারম্যান মো. মঈন উদ্দিন আব্দুল্লাহ, কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান এবং মো. জহুরুল হক বক্তব্য রাখেন।

;

প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা ২৯ ডিসেম্বর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বৃত্তি পরীক্ষার আগামী ২৯ ডিসেম্বর। ২৭ ডিসেম্বর বিতরণ করা হবে প্রবেশপত্র।

ওই দিন উপজেলা পর্যায়ে বেলা ১১টায় শুরু হয়ে দুপুর ১টায় পরীক্ষা শেষ হবে। দুই ঘণ্টার এ পরীক্ষায় বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞান বিষয়ে ২৫ নম্বর করে মোট ১০০ নম্বরের প্রশ্ন থাকবে।

এর আগে ২৭ ডিসেম্বরের মধ্যে স্কুল থেকে প্রবেশপত্র শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিতরণ করা হবে।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (সাধারণ প্রশাসন) মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, সুষ্ঠুভাবে বৃত্তি পরীক্ষা নিতে বৃহস্পতিবার উপজেলা ও থানা শিক্ষা অফিসগুলোকে প্রস্তুতি নিতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়েছে, পঞ্চম শ্রেণির বার্ষিক মূল্যায়নে প্রতিদিনের উত্তরপত্র প্রতিদিন মূল্যায়ন করতে হবে। ১৯ ডিসেম্বর পরীক্ষা শেষে ২০ ডিসেম্বরের মধ্যে উত্তরপত্র মূল্যায়ন করতে হবে। এরপর ২১ ডিসেম্বরের মধ্যে পঞ্চম শ্রেণির ফল প্রকাশ করতে হবে।

উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের স্কুল থেকে প্রস্তুতকৃত ডিআর ফরম ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে উপজেলা শিক্ষা অফিস সংগ্রহ করবে। উপজেলা শিক্ষা অফিস ২৩ ডিসেম্বরের মধ্যে জেলায় ডিআর পাঠাতে হবে। জেলা থেকে অবশ্যিকভাবে ২৪ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরে ডিআর পাঠাতে হবে।

;

গোলাপবাগ মাঠে সমাবেশ আয়োজনে বিএনপি ডিএসসিসির অনুমতি নেয়নি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

গোলাপবাগ মাঠে রাজনৈতিক সমাবেশ আয়োজনে বিএনপি'র কাছ থেকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ঢাদসিক) এখন পর্যন্ত কোনও আবেদন পায়নি। আবেদন পাওয়ার পরেই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ডিএসসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাছের বলেন, বিএনপি সমাবেশ করার জন্য ডিএসসিসির মাঠ ব্যবহারের অনুমতি নেয়নি। অনুমতি না নিয়ে তারা এ সমাবেশ করতে পারবে না। 

তবে এখানে উল্লেখ যে, গোলাপবাগ খেলার মাঠের উন্নয়নে “ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন (মেগা)” শীর্ষক একটি প্রকল্প চলমান রয়েছে। প্রকল্পের আওতায় গোলাপবাগ খেলার মাঠে সীমানা প্রাচীর ও বেষ্টনী, প্যাভিলিয়ন, ড্রেসিং রুম, বাস্কেটবল গ্রাউন্ড, নর্দমা, হাঁটার পথ, পাঠাগার ভবন (লাইব্রেরি বিল্ডিং), বাজার (মার্কেট বিল্ডিং) ইত্যাদি অনুষঙ্গের উন্নয়নসহ গোলাপবাগ খেলার মাঠকে শুধু খেলাধুলার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে।

মাঠের উন্নয়নে প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে, যা প্রায় সমাপ্তির পথে। শীঘ্রই এই মাঠ উদ্বোধনে তারিখ নির্ধারণ করার পর্যায়ে রয়েছে। সুতরাং প্রকল্পের এই পর্যায়ে গোলাপবাগ খেলার মাঠে রাজনৈতিক সমাবেশ আয়োজন করা হলে রাষ্ট্রীয় সম্পদ বিনষ্ট হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

;

ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

ফখরুল ও আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর, কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ

  • Font increase
  • Font Decrease

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এবং দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসের জামিন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এর আগে শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) বিকেলে পল্টন থানার মামলায় মির্জা ফখরুল ও আব্বাসকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে হাজির করা হয়।

এদিকে জামিন নামঞ্জুর করে বিএনপির এই দুই নেতাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয়ার পর আদালত প্রাঙ্গণে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গত বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে পুলিশের ওপর হামলার পরিকল্পনা ও উসকানি দেয়ার অভিযোগে গতকাল পল্টন থানায় করা মামলায় মির্জা ফখরুল ও  আব্বাসকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়।

গত ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এতে একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। আহত হন অনেকে। পরে বিএনপি কার্যালয়ে অভিযান চালানো হলে সেখানে অনেক ককটেল পাওয়ার কথা জানায় পুলিশ।

এ ঘটনায় পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মিজানুর রহমান বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় ৪৭৩ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত দেড় থেকে দুই হাজার বিএনপির নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়।

;