রাজধানীর ১৯ স্থানে বসবে পশুর হাট



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

করোনার কারণে গত দু’বছর পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানির পশুর হাট খুব একটা জমে উঠেনি। গরু, ছাগলসহ কোরবানির পশু রাজধানীর হাটগুলোতে বিক্রির জন্য তোলা হলেও ক্রেতা-বিক্রেতাদের সরব উপস্থিতি ছিল না।

এ বছর করোনা পরিস্থিতি গত দুই বছরের চেয়ে তুলনামূলক ভালো থাকায় রাজধানীতে কোরবানির পশুর হাট কেন্দ্রিক প্রস্তুতি শুরু হয়েছে কিছুটা আগে থেকেই। পবিত্র ঈদুল আজহাকে সামনে রেখে স্থায়ী, অস্থায়ী মিলিয়ে এ বছর রাজধানীতে মোট ১৯টি কোরবানির পশুর হাট বসানোর উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।

হাটগুলোর মধ্যে দু’টি স্থায়ী হাট, যেগুলোতে বছরের অন্য সময়ও পশু বিক্রি হয়। এরমধ্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের রয়েছে গাবতলী স্থায়ী হাট এবং ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের রয়েছে সারুলিয়া স্থায়ী পশুর হাট। এই হাট দুটি ছাড়া আরও ১৭টি অস্থায়ী হাট রাজধানীতে বসানোর উদ্যোগ নিয়েছে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন।

অস্থায়ী হাটগুলোর মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এলাকায় বসবে ১০টি ও উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় বসবে ৭টি হাট। এছাড়া ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ডিজিটাল হাট চালু থাকবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা রাসেল সাবরিন জানিয়েছেন, হাটগুলো পরিচালনার জন্য যেসব নির্দেশনা আসবে সেসব বাস্তবায়ন করা হবে।

অন্যদিকে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক জানিয়েছেন, পরবর্তী সিদ্ধান্তের আলোকে হাটগুলোতে স্বাস্থ্যবিধির বিষয়গুলো ঠিক করা হবে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের যে ১০টি স্থানে কোরবানির পশুর অস্থায়ী হাট বসবে সেগুলো হলো- লালবাগের রহমতগঞ্জ ক্লাবসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, আমুলিয়া মডেল টাউনের আশপাশের খালি জায়গা, পোস্তগোলা শ্মশানঘাট সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, ধোলাইখাল ট্রাক টার্মিনাল সংলগ্ন উন্মুক্ত জায়গা, শ্যামপুর-কদমতলী ট্রাকস্ট্যান্ডসংলগ্ন খালি জায়গা,উত্তর শাহজাহানপুর খিলগাঁও রেলগেট বাজার মৈত্রী সংঘের ক্লাবসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, হাজারীবাগ এলাকায় ইনস্টিটিউট অব লেদার টেকনোলজি মাঠসংলগ্ন উন্মুক্ত এলাকা, মেরাদিয়া বাজারসংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, দনিয়া কলেজ মাঠসংলগ্ন খালি জায়গা এবং লিটল ফ্রেন্ডস ক্লাবসংলগ্ন খালি জায়গাসহ কমলাপুর স্টেডিয়ামসংলগ্ন বিশ্বরোডের আশপাশের এলাকায় অস্থায়ী হাট বসবে।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের যে সাতটি স্থানে অস্থায়ী পশুর হাট বসবে- ভাটারা (সাইদনগর) পশুর হাট, কাওলা শিয়ালডাঙ্গাসংলগ্ন খালি জায়গা, মিরপুর সেকশন ৬ ইস্টার্ন হাউজিংয়ের খালি জায়গা, মোহাম্মদপুর বছিলায় ৪০ ফুট রাস্তাসংলগ্ন খালি জায়গা, উত্তরা ১৭ নম্বর সেক্টর এলাকায় অবস্থিত বৃন্দাবন থেকে উত্তর দিকে বিজিএমইএ পর্যন্ত খালি জায়গা, বাড্ডা ইস্টার্ন হাউজিং ব্লক-ই থেকে এইচ পর্যন্ত এলাকার খালি জায়গা এবং ৩০০ ফিট সড়কসংলগ্ন উত্তর পাশের সালাম স্টিল-যমুনা হাউজিং কোম্পানির খালি জায়গা ও এর পাশে ব্যক্তিগত মালিকানাধীনের খালি জায়গা মিলিয়ে অস্থায়ী পশুর হাট বসবে।

১৭টি অস্থায়ী পশুর হাটের মধ্যে ১৪টির ইজারার কাজ প্রাথমিকভাবে শেষ হয়েছে। বাকিগুলো চূড়ান্ত করার কাজ চলমান রয়েছে। উত্তর সিটির স্থায়ী গাবতলী হাট ও দক্ষিণ সিটির স্থায়ী সারুলিয়া হাট বছর জুড়েই ইজারা দেওয়া থাকে।

কক্সবাজারে অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

  • Font increase
  • Font Decrease

পর্যটন নগরী কক্সবাজারে অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, সরকার কক্সবাজারের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং জীববৈচিত্র্য অটুট রেখে এর সার্বিক উন্নয়ন নিশ্চিত করতে বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, কক্সবাজারকে বিশ্বের অন্যতম প্রধান পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত করা হবে। সে জন্য আমি সবাইকে বিশেষ করে কক্সবাজারবাসীকে অপরিকল্পিত স্থাপনা নির্মাণ না করার অনুরোধ জানাচ্ছি।

বুধবার (১৮ মে) কক্সবাজারের বীর মুক্তিযোদ্ধা মাঠে কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নবনির্মিত বহুতল ভবনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশি-বিদেশি পর্যটকদের আকৃষ্ট করতে কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে আশপাশের উন্নয়ন পরিকল্পনা নিশ্চিত করার লক্ষে ইতিমধ্যে একটি মাস্টার প্লান তৈরি করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের বিশাল সমুদ্র সীমায় পর্যটনের ক্ষেত্র আরও প্রসারিত করার মাধ্যমে এই জায়গাটাকে দেশি-বিদেশি পর্যটকদের কাছে আকর্ষণীয় করার উদ্যোগ আমরা নিতে যাচ্ছি। তাছাড়া যেহেতু এটা আন্তর্জাতিক এয়ার রুটে পড়ে, তাই কক্সবাজার বিমানবন্দরকে একটি আন্তর্জাতিক মানের বিমান বন্দর হিসেবে প্রতিষ্ঠায় সরকারের কাজ চলমান রয়েছে।

এই বিমানবন্দর যখন সম্পূর্ণ হবে তখন পশ্চিমা দেশগুলো থেকে প্রাচ্যে যাতায়াতকারী বিমানগুলো এখান থেকে রিফুয়েলিং করার মাধ্যমে এটি একটি রিফুয়েলিং কেন্দ্র হিসেবে গড়ে উঠবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, রিফুয়েলিংয়ে বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন সময়ে অগ্রাধিকার পায়। এক সময় হংকং ছিল, এরপর থাইল্যান্ড অথবা সিঙ্গাপুর এখন দুবাই। কিন্তু এখন কক্সবাজারই হবে আন্তর্জাতিক আকাশ পথে রিফুয়েলিংয়ের একটা কেন্দ্র।

পাশাপাশি এখানে তার সরকার ক্রিকেট স্টেডিয়াম করেছে, ফুটবল ষ্টেডিয়ামও করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক খেলাধুলা আয়োজনের সব ধরনের ব্যবস্থা এখানে থাকবে। মেরিন ড্রাইভ যেটি কক্সবাজার থেকে টেকনাফ পর্যন্ত করা হয়েছে সেটা একেবারে চট্টগ্রাম পর্যন্ত করা হবে।

গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. শহীদ উল্লা খন্দকার বক্তৃতা করেন। কক্সবাজার উন্নয়ন কতৃর্পক্ষের চেয়ারম্যান লে. কর্নেল (অব.) ফোরকান আহমেদ স্বাগত বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠানে কক্সবাজার উন্নয়ন কতৃর্পক্ষের কর্মকাণ্ড এবং নব-নির্মিত ভবনের ওপর একটি ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

;

পি কে হালদারকে ফেরাতে দুদকের কমিটি গঠন



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতে গ্রেফতার এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার হালদারকে (পি কে হালদার) দেশে ফিরিয়ে আনতে কমিটি গঠন করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (১৮ মে) সকালে দুই তদন্তকারীর নেতৃত্বে এই কমিটি গঠন করে সংস্থাটি।

প্রথম ধাপে কমিটিতে রাখা হয়েছে দুদকের উপপরিচালক মোহাম্মদ সালাউদ্দিন এবং গুলশান আনোয়ার প্রধানকে। পর্যায়ক্রমে সদস্য সংখ্যা বাড়ানো হতে পারে। কমিটি দুদকের মামলার আসামি পিকে হালদারকে দেশে ফেরাতে আইনি বাধা দ্রুত নিরসনের উপায় বের করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।

এদিকে, গত মঙ্গলবার (১৭ মে) তিন দিনের রিমান্ড শেষে পি কে হালদারকে ব্যাঙ্কশাল সিবিআই স্পেশাল কোর্টে হাজির করে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) আরও ১৪ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। পরে আদালত ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

গত শনিবার (১৪ মে) উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার অশোকনগর থেকে পি কে হালদারের সঙ্গে তার দুই ভাইসহ গ্রেফতার হয় আরও ৫ জন।

বাংলাদেশের এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং অর্থপাচার মামলার পলাতক আসামি পি কে হালদারের বিরুদ্ধে বাংলাদেশের চারটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগে অন্তত ৩৪টি মামলা রয়েছে।

;

বাজারে জিনিসপত্রের দাম সহসাই কমার লক্ষণ নেই: বাণিজ্যমন্ত্রী



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি

  • Font increase
  • Font Decrease

বাজারে জিনিসপত্রের দাম সহসাই কমার কোনও লক্ষণ নেই বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম না কমলে কিছুই করতে পারবো না।

বুধবার (১৮ মে) দুপুরে সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে দ্রব্যমূল্য ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনা সংক্রান্ত টাস্কফোর্স কমিটির সভায় তিনি এ কথা বলেন।

নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের  দাম কবে নাগাদ মানুষের নাগালে আসবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, এ প্রশ্নের উত্তর আমার জানা নেই। এটির উত্তর জানতে হলে আমার আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলে যেতে হবে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম না কমা পর্যন্ত আমরা কিছুই করতে পারবো না। কলকাতায় খবর নিন সেখানে কত দামে তেল বিক্রি হচ্ছে। মানুষকে বৈশ্বিক অবস্থা জানাতে হবে।

টিসিবির পণ্য বিক্রির বিষয়ে টিপু মুনশি বলেন, সরকারের তো বহন করার একটা ক্ষমতা আছে। তাই এক কোটি মানুষকেই এখন টিসিবির পণ্য দেওয়া হবে। যার সুবিধা পাবে পাঁচ কোটি মানুষ। এর পরিমাণ আর বাড়ানো হবে না। জুন মাস থেকে শুরু হবে এই প্রক্রিয়া।

পেঁয়াজের দাম বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ২৫ থেকে ৩০ টাকার মধ্যে পেঁয়াজের দাম হলে সেটা যৌক্তিক। ২০২৫ সালের পর আমাদের আর পেঁয়াজ আমদানি করতে হবে না, সেভাবেই উৎপাদন প্রক্রিয়া চলছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত পেঁয়াজের যথেষ্ট মজুত রয়েছে।

;

সাত দিনেও সন্ধান মেলেনি নির্যাতনের শিকার কিশোর মুন্নার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, পটুয়াখালী
নির্যাতনের শিকার কিশোর মুন্না

নির্যাতনের শিকার কিশোর মুন্না

  • Font increase
  • Font Decrease

পটুয়াখালীর গলাচিপায় চুরির অপবাদ দিয়ে ১৪ বছরের এক কিশোরকে নির্যাতনের ঘটনার পর নিখোঁজ হওয়ায় কিশোর মুন্নাকে সাত দিনেও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

এ ঘটনার প্রধান অভিযুক্ত হজরত আলী এখনও পলাতক রয়েছেন। ঘটনার পর পুলিশ তিন জনকে গ্রেফতার করলেও তাদের মধ্যে দুই জনকে জামিন দিয়েছেন আদালত। তবে নির্যাতিত ওই কিশোর এখনও উদ্ধার না হওয়ায় তার পরিবারের সদস্যরা উদ্বেগ উৎকন্ঠার মধ্যে রয়েছেন।

গলাচিপা সদর ইউনিয়নের বোয়ালিয়া গ্রামের কিশোর মুন্না (১৪)। পরিবারের অন্য সদস্যরা ঢাকায় যাওয়ায় সাময়িকভাবে সে মামার বাড়িতে থাকতো। তবে গত ৯ মে টাকা চুরির অপবাদ এনে মামা বাড়ির লোকজন মুন্নাকে গাছের সাথে বেঁধে তিন দিন যাবত নির্যাতন করে। আর ১১ মে মধ্যরাত থেকে মুন্নাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। মুন্নাকে নির্যাতনের একাধিক ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত হলে, এনিয়ে পুলিশের তৎপরতা শুরু হয়।

গত ১৩ মে মুন্নার মা হাসিনা বেগম বাদী হয়ে গলচিপা থানায় ৫ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করলে পুলিশ ওই দিনই নির্যাতিত মুন্নার মামি মমতাজ বেগম (৪৫), মামাতো বোন তানিয়া (৩০) ও প্রতিবেশী শামীমকে (৪০) গ্রেফতার করে। তবে আদালত মানবিক দিক বিবেচনা করে মমতাজ ও তানিয়াকে জামিন প্রদান করে। তবে এখনও মামলার প্রধান অভিযুক্ত হজরত আলীকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তাইতো ছেলের সন্ধানে আদালত আর থানার বারান্দায় ঘুরছেন নিখোঁজ মুন্নার বাবা-মা।

মুন্নার বাবা শাহজাহান কমান্ডার বলেন, আমার পোলাডারে গাছের লগে বাইন্দা দুই তিন জনে মিল্লা মারছে, আমি মোবাইলে দেখছি সজ্য করতে পারি নাই। এহন পোলাডার মুকটাও দেখতে পারি নাই। কই আছে কি করছে আল্লায় জানে। আমার পোলাডারে আমমেরা ফেরত দেন। পুলিশের কাছে গেছি হেরাও কিছু কইতে পারে না।

গলচিপা আদালতের সিনিয়র আইনজীবী এড. শামীম আহম্মেদ বলেন, এটি একটি অমানবিক কাজ হয়েছে। এভাবে কোন মানুষ কোন মানুষকে মারতে পারে না। আমরা চাই দ্রুত আসামিদের গ্রেফতার করে তাদের বিচারের মুখোমুখি করা হোক।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে গলচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ এম আর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। পাশাপাশি ভিকটিমকেও উদ্ধারেও চেষ্টা চলছে।

;