অচিরেই সংলাপে বসার আহ্বান জানাবো: সিইসি



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, সাভার (ঢাকা)
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, অচিরেই বিএনপিসহ সকল রাজনৈতিক দলগুলোকে আহ্বান জানাবো সংলাপে বা আলোচনায় বসার জন্য। ঠিক করে বলতে পারছি না, হয়ত দুই-এক মাসের মধ্যেই আমরা আলোচনায় বসতে পারি।

শুক্রবার (২০ মে) সকাল ১০টায় সাভার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে এসব কথা বলেন তিনি। উদ্বোধনী আয়োজন করেন ঢাকা জেলা নির্বাচন অফিস ও সাভার উপজেলা প্রশাসন। এর আগে আলোচনা সভায় তিনি ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, 'আমরা যদি ক্ষমতায় যেতে পারি' কথাটা রাজনীতিবিদরা প্রায়ই বলে থাকেন। আমি অনেক রাজনীতিবিদকে বলেছিলাম, কথাটা এভাবে না বলে আপনি তো এভাবে বলতে পারেন যে 'আমরা যদি সরকারের দায়িত্বে যেতে পারি'। আগের কথাটার মধ্যে একটা অহংবোধ আছে- ক্ষমতায় গিয়ে আমরা দেখাবো বা দেশ চালাবো। ক্ষমতা নয়, এটা দায়িত্ব। ক্ষমতা বলে কোনো কিছু নেই। আমরা যদি ক্ষমতাকে দায়িত্বের অর্থে বুঝতে ও পালন করতে পারি তাহলে আমাদের দায়িত্ববোধ ও সাংস্কৃতিক মনস্তত্ত্ব আরো উজ্জীবিত হবে।

তিনি আরও বলেন, ইভিএমের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। ইভিএমের সক্ষমতা কতটুকু দরকার, আরো কী কী করা যায়, তা নিয়ে আমরা আরো কিছু সভা করবো। এরপরে আমরা ইভিএমের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য কাজ করবো। আমি একা কোনো সিদ্ধান্ত নিতে পারবো না। ৩০০ আসনে সক্ষমতা সম্ভব কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, এখন বলা সম্ভব নয়। নির্বাচন কমিশনকে সর্বোচ্চ স্বাধীনতা দেওয়া হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

সিইসি বলেন, আমরা নতুন একটি কমিশন। আমাদের আন্তরিক প্রত্যাশা যে, একটি অংশগ্রহণমূলক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হোক। গণতন্ত্র বিকশিত হোক। ভোটের মাধ্যমে একটি দায়িত্বশীল পার্লামেন্ট গঠিত হোক। পার্লামেন্টে তর্ক-বির্তকের মাধ্যমে জনগণের অধিকার সংরক্ষিত হোক।

এ আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন নির্বাচন কমিশনের সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার। তিনি বলেন, ভোটার তালিকা হালনাগাদ আজকে শুরু হয়েছে যা বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের সাংবিধানিক ম্যান্ডেট। ভোটার তালিকা প্রণয়ন এটি অন্যতম মূল কাজ। ভোটার তালিকা প্রণয়নের জন্য আমরা তিন ধরনের তথ্য গ্রহণ করছি। ভোটার তালিকা প্রণয়ন হবে ২০২৩ সালের ২ মার্চ। এই ভোটার তালিকা দিয়েই কিন্তু আগামী জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তাই এই ভোটার তালিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সরকারের এক্সিকিউটিভ যারা আছেন, তারা নির্বাচন কমিশনকে সহযোগিতা করতে বাধ্য। আপনারা অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে ভোটার তালিকা প্রণয়নের কাজ করবেন। ট্রান্সজেন্ডার ও নিষিদ্ধ পল্লীর মা-বোনদেরও কিন্তু এই তালিকায় আনার জন্য আমরা নির্দেশনা দিয়েছি। কীভাবে নিয়ে আসবেন সে বিষয়ে আমরা প্রশিক্ষণও দিয়েছি।

তিনি আরও বলেন, সাভারে প্রায় ৩৮০ জন তথ্যসংগ্রহকারী, ৭৬ জন সুপারভাইজার, সরকারি কর্মকর্তা ও রেজিস্ট্রেশন অফিসার আছেন। সংবিধানে বলা আছে, ভোটার তালিকা হালনাগাদ করতে বাড়ি বাড়ি যেতে হবে। আমরা মনে করি, এই কাজটি সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে এবং আমরা জাতিকে একটি সুন্দর পরিচ্ছন্ন ভোটার তালিকা উপহার দিতে পারবো।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. শহীদুল ইসলাম, ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মারুফ হোসেন সরদার, ঢাকা জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মো. মনির হোসেন, সাভার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম রাজীব, সাভার পৌর মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল গণি, সাভার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মাজহারুল ইসলাম সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

দীর্ঘসূত্রিতা অপচয় ও দুর্নীতির সুযোগ সৃষ্টি করে: প্রাথমিক প্রতিমন্ত্রী



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, উন্নয়নের মহাসড়কে দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলা বাংলাদেশকে নতুন গন্তব্যে নিয়ে যেতে সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের সঠিক পরিকলন্পনা গ্রহণ ও যথাসময়ে এর বাস্তবায়নে জোর দিতে হবে। দীর্ঘসূত্রিতা উন্নয়নের অন্তরায়; এটি অপচয় ও দুর্নীতির সুযোগ সৃষ্টি করে। 

তিনি বলেন, সরকারি কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার দক্ষতা অর্জন করতে হবে পাশাপাশি দেশপ্রেম, সততা ও কর্তব্যনিষ্ঠার সাথে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে হবে; তবেই দেশের জন্য আমাদের পূর্বসূরীদের জীবন বিসর্জন দেয়া স্বার্থক হবে।

রোববার সকালে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণলায়ের সভাকক্ষে মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক কর্মসম্পাদক চুক্তি (এপিএ) স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন তিনি।

সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ২০২২-২৩ অর্থ বছরে মন্ত্রণালয়ের সাথে এপিএ চুক্তি স্বাক্ষর করেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মুহিবুর রহমান, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর মহাপরিচালক আতাউর রহমান, জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমির মহাপরিচালক মো. শাহ আলম ও শিশু কল্যাণ ট্রাস্টের পরিচালক আবুল বাশার।

অনুষ্ঠানে ২০২১-২২ অর্থবছরে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শুদ্ধাচার পুরস্কার বিজয়ী কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পুরস্কার প্রদান করা হয়।

;

দেশ টিভিকে পূর্ণতা দিতে জন্মদিনে প্রত্যয়দীপ্ত আরিফ হাসান



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
দেশ টিভিকে পূর্ণতা দিতে জন্মদিনে প্রত্যয়দীপ্ত আরিফ হাসান

দেশ টিভিকে পূর্ণতা দিতে জন্মদিনে প্রত্যয়দীপ্ত আরিফ হাসান

  • Font increase
  • Font Decrease

১৪ বছরে পদার্পনকারী দেশ টেলিভিশনকে নতুন করে সাজানো শুরু হয়েছে। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন মাত্রা যুক্ত হচ্ছে এই টেলিভিশনে। সর্বশেষ পদ্মা সেতু উদ্বোধনকে ঘিরে মাসব্যাপি নানা আয়োজন, কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে ব্যতিক্রমধর্মী বিভিন্ন আয়োজন দর্শক-শ্রোতারা প্রত্যক্ষ করেছেন। সাম্প্রতিক ঘটনা নিয়ে বিশেষ আলোচনা ছাড়াও বিভিন্নমুখি উদ্যোগে নতুন নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে এই টেলিভিশনে। দেশ টিভিকে আরো গুছিয়ে ও পরিপূর্ণ করে তুলতে পর্যাপ্ত জনবল নিয়োগের জন্য সম্প্রতি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হয়েছে । বার্তা বিভাগসহ সব বিভাগে দেশ টিভি তারুণ্যের মেধাকে সঙ্গে নিয়ে আরো এগোতে চায় সামনে দিকে।

২৭ জুন (সোমবার) দেশ টেলিভিশন লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফ হাসানের শুভ জন্ম দিন। এই জন্মদিন উপলক্ষে দেশ টিভি নিয়ে তাঁর প্রত্যয় আরো দীপ্ত ও দীপ্র। তিনি বলেন, ২০০৯ সালের ২৬ মার্চ দেশ টিভির যাত্রা শুরু হয়েছিল। ওই দিনে মহান স্বাধীনতার ডাক দিয়েছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। দেশ টিভি গত ২৬ মার্চ ১৪ তম বর্ষে পদার্পণ করেছে। এই অতিক্রান্ত সময়ে বছর, ঘণ্টা, মিনিট, সেকেন্ড হিসাব করলে অনেক সময়। প্রতি সেকেন্ড যেন দর্শকের মন জয় করতে পারে, সে চ্যালেঞ্জ থাকে টেলিভিশনের। দেশ টিভিও সেই চ্যালেঞ্জ নিয়ে পথ চলছে। তার মতে, প্রযুক্তির চরম উৎকর্ষের এই সময়েও টেলিভিশন কেবল তার অবস্থান ধরেই রাখেনি বরং দিন দিন সম্প্রসারিত হয়েছে এর আবেদন। এই মাধ্যমকে ঘিরে সৃষ্টি হয়েছে সৃজনশীল, শিক্ষিত ও প্রশিক্ষিত অসংখ্য মানুষের কর্মসংস্থান। উদীয়মান অর্থনীতি ও শিল্পায়নের এই সময়ে পণ্যের পরিচিতি ও ব্র্যান্ড তৈরিতে টেলিভিশন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

দেশ টিভিকে নতুন করে সাজানোর বিষয়ে প্রতিষ্ঠানটির ব্যাবস্থাপনা পরিচালক আরিফ হাসান বলেন, গণমাধ্যম জাতির বিবেক, সমাজের দর্পণ। দেশের সংস্কৃতি ও চরিত্রের ধারক, পরিচায়ক ও মুখপাত্র হিসেবে কাজ করে টেলিভিশন চ্যানেল। দেশ টিভি শুরু থেকেই মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রেখে বিভিন্ন অনুষ্ঠান নির্মাণ ও প্রচার করে আসছে। গণমানুষের বঞ্চনা ও চাওয়া-পাওয়ার কথা তুলে ধরে তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় দেশ টিভি সব সময় সচেষ্ট। সে প্রচেষ্টা আরও ত্বরান্বিত করতে চায় এই চ্যানেল। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন, নির্মল বিনোদন ও শিক্ষামুলক অনুষ্ঠান প্রচারে দেশ টিভি তার প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছে। সকল বিভাগে নতুন জনবল নিয়োগের বিষয়ে তিনি বলেন, দেশ টিভি পথ চলা শুরু করেছে ১৩ বছর আগে। পথ চলতে চলতে , চলার অভিজ্ঞতা থেকে নতুন পরিকল্পনা চলে আসে। পূর্ণতার শেষ নেই, পরিকল্পনার শেষ নেই। নতুনভাবে পথ চলার পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতেই আমি আরো জনবল নিয়োগের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছি। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর থেকেই ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি আমরা। যোগ্য ও মেধাবীদের যুক্ত করতে নিয়োগ প্রক্রিয়া সুসম্পন্ন করা হবে।

জন্মদিনে নতুন প্রত্যয় ও আশা ব্যক্ত করে আরিফ হাসান বলেন, আমি দর্শক-শ্রোতাদের বলবো-দেশের সঙ্গে থাকুন, দেশকে এগিয়ে রাখুন।

পাকিস্তানি হায়েনার কাছে বন্দি হওয়ার আগে একাত্তরের ২৬ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। বাঙালি জাতির স্বাধীন ভূখণ্ডে যাত্রা শুরুর এমন মহান দিনটিতেই নিজের যাত্রাও শুরু করেছিল দেশ টিভি। প্রতিষ্ঠার শুরু থেকেই তাই দেশ টিভি তার প্রতিটি আয়োজনে, সম্প্রচারে, বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে লালন করে চলেছে। সংশ্লিষ্টরা জানান, সেই আলোকেই প্রণীত হয়েছে দেশ টিভির প্রতিটি অনুষ্ঠান। বাউল সংহতি থেকে শুরু করে রবীন্দ্রনাথ, নজরুলসহ পঞ্চকবির গান, ঐতিহ্যের পুতুল নাচ, যাত্রা, কবির গান-পালা বা কিংবদন্তিদের শ্রদ্ধা জানিয়ে ট্রিবিউট টু  লিজেন্ড ও কনসার্ট ফর বাংলাদেশ- সংস্কৃতির সব আঙিনা থেকেই বাঙালির প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করতে চেয়েছে দেশ টিভি। সরাসরি সম্প্রচারিত কল-এর গান বা প্রিয়জনের গান জনপ্রিয়তা পেয়ে চলেছে বছরের পর বছর।

২০১১তে দেশব্যাপী আলোচিত ছিল দেশ টেলিভিশনের ‘কে হতে চায় কোটিপতি’র আয়োজন। এবার দেশ টিভি প্রবেশ করতে চায়, জনগণের কাছে তথ্য সেবার আরো প্রসারিত দরজা নিয়ে, পুরো দায়বদ্ধতায়। ২০০৮ সালের জাতীয় নির্বাচনের পর আওয়ামী লীগ সরকারের টানা ধারাবাহিকতায় বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণের ফলে টেলিভিশন সম্প্রচারে নতুন মাত্রা যুক্ত হয়েছে। তথ্যপ্রযুক্তির সেই অগ্রযাত্রায় দেশ টিভি আরো গোছানো হচ্ছে বলে জানান দেশ টেলিভিশন লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফ হাসান।

বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশন, নির্মল বিনোদন ও শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান প্রচারে দেশ টিভি তার প্রয়াস চালিয়ে যাবে বলে তিনি প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

;

বন্যায় ৭ কোটি টাকার বেশি নগদ বরাদ্দ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় সাম্প্রতিক বন্যায় তাৎক্ষণিকভাবে মানবিক সহায়তা হিসেবে ১৪টি জেলায় জেলা প্রশাসকগণের অনুকূলে ১ এপ্রিল থেকে ২৬ জুন পর্যন্ত ৭ কোটি ১১ লাখ নগদ টাকা বরাদ্দ প্রদান করেছে।

এছাড়াও ৫ হাজার ৮২০ মেট্রিক টন চাল, এক লাখ ২৩ হাজার ২০০ প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, শিশু খাদ্য ক্রয় বাবদ ৪০ লাখ টাকা এবং গো-খাদ্য ক্রয় বাবদ ৪০ লাখ টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।

বরাদ্দকৃত জেলাসমূহের মধ্যে সিলেট জেলায় ২ হাজার মেট্রিক টন চাল, ২ কোটি ১৫ লাখ নগদ টাকা, ৪৩ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, শিশু-খাদ্য ক্রয় বাবদ ১০ লাখ টাকা এবং গো-খাদ্য ক্রয় বাবদ ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

সুনামগঞ্জ জেলায় ১ হাজার ৩২০ মেট্রিক টন চাল, ২ কোটি ৮ লাখ নগদ টাকা, ৩৮ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট/বস্তা,শিশু-খাদ্য ক্রয় বাবদ ১০ লাখ টাকা এবং গো-খাদ্য ক্রয় বাবদ ১০ লাখ টাকা, নেত্রকোনা জেলায় ৪০০ মেট্রিক টন চাল,৮০ লাখ নগদ টাকা, ৯ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, শিশু-খাদ্য ক্রয় বাবদ ১০ লাখ টাকা এবং গো-খাদ্য ক্রয় বাবদ ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

রংপুর জেলায় ৩ হাজার ৫০০ প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, নীলফামারী জেলায় ৫ লাখ নগদ টাকা এবং ৩ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, কুড়িগ্রাম জেলায় ২০০ মেট্রিক টন চাল, ৩০ লাখ নগদ টাকা এবং ১ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, হবিগঞ্জ জেলায় ১০০ মেট্রিক টন চাল, ৩০ লাখ নগদ টাকা এবং ৪ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, মৌলভীবাজার জেলায় ৩০০ মেট্রিক টন চাল, ৬২ লাখ ৫০ হাজার নগদ টাকা,২ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, শিশু-খাদ্য ক্রয় বাবদ ১০ লাখ টাকা এবং গো-খাদ্য ক্রয় বাবদ ১০ লাখ টাকা, শেরপুর জেলায় ১৫০ মেট্রিক টন চাল, ১১ লাখ নগদ টাকা এবং ৪ প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, জামালপুর জেলায় ৩০০ মেট্রিক টন চাল, ২২ লাখ নগদ টাকা এবং ৮ প্যাকেট/ স্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, কিশোরগঞ্জ জেলায় ১০০ মেট্রিক টন চাল, ১০ লাখ নগদ টাকা এবং ৪ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় ৪০০ মেট্রিক টন চাল, ১১ লাখ ৫০ হাজার নগদ টাকা এবং ২ হাজার প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

লালমনিরহাট জেলায় ৩৫০ মেট্রিক টন চাল এবং ৯ লাখ নগদ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। কুমিল্লা জেলায় ২০০ মেট্রিক টন চাল, ১৭ লাখ নগদ টাকা এবং ১ হাজার ৭০০ প্যাকেট/বস্তা শুকনো ও অন্যান্য খাবার বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে।

;

সোনাইমুড়ীতে আ.লীগের দু'গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৯



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নোয়াখালী
সোনাইমুড়ীতে আ.লীগের দু'গ্রুপের সংঘর্ষ

সোনাইমুড়ীতে আ.লীগের দু'গ্রুপের সংঘর্ষ

  • Font increase
  • Font Decrease

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ৯ জন আহত হয়েছেন।

রোববার (২৬ জুন) বিকেল ৫টার দিকে উপজেলার চাষীরহাট ইউনিয়নের পোরকরা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- রবিউল হাসান (২৭), ইয়াছিন আরাফাত বাদশা (২৬),সাব্বির (১৮),রাকিব (২০),শামিম (২০)সাইফুল (২৪), মোখলেছ (২৬) সহ ৯ জন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার বিকেলে ব্যালটের মাধ্যমে চাষীরহাট ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলন চলছিল। এ সময় ওই ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি পদপ্রার্থী মহসিন মেম্বারের অনুসারীদের সাথে আরেক সভাপতি পদপ্রার্থী মুনাফের অনুসারীদের ব্যালট নিয়ে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে উভয় প্রার্থীর অনুসারীরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়ায়। এতে উভয় পক্ষের ৯ জন আহত হয় এবং চেয়ার-টেবিল ভাঙচুর করে হামলাকারীরা। খবর পেয়ে সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

এ বিষয়ে জানতে উভয় প্রার্থীর মোবাইল ফোনে কল করা হলেও তারা ফোন রিসিভ করেন নি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি ) হারুন অর রশিদ জানান, ব্যালটের মাধ্যমে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সম্মেলন চলছিল। ওই সময় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের দুটি গ্রুপ সংঘর্ষে জড়ায়। এতে উভয় পক্ষের ৩-৪ জন আহত হয়। তবে এ ঘটনায় এখনও কোনো পক্ষ থানায় লিখিত কোন অভিযোগ দায়ের করেনি।

;