রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবাসনে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সক্রিয়তার আহ্বান



স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন ও জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন ও জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি

  • Font increase
  • Font Decrease

 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবাসনের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সক্রিয় অংশগ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন

বুধবার (২৫ মার্চ) রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় সফররত জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনার এবং আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডির সঙ্গে সাক্ষাতে এ-সব কথা বলেন।

তিনি বলেন,বাংলাদেশ আশা করে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, বিশেষ করে ইউএনএইচসিআর, রাখাইনে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবাসনের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টিতে রাখাইনে তাদের তৎপরতা বাড়াবে। টেকসই প্রত্যাবাসনের জন্য রোহিঙ্গা জনগণের মধ্যে আস্থা তৈরিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সক্রিয় অংশগ্রহণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তিনি জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক কার্যক্রমে অব্যাহত নিয়োজিত থাকার জন্য ইউএনএইচসিআরকে ধন্যবাদ জানান।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী কক্সবাজার ও ভাসান চরে মিয়ানমারের পাঠ্যক্রমের আওতায় রোহিঙ্গা শিশুদের জন্য মিয়ানমার ভাষায় অনানুষ্ঠানিক শিক্ষার প্রবর্তন, দক্ষতা উন্নয়ন কার্যক্রম, জীবিকার সুযোগ, স্বাস্থ্য সুবিধা ইত্যাদির কথা তুলে ধরেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে এই উদ্যোগগুলো প্রত্যাবর্তনের পরে মিয়ানমারের সমাজে তাদের পুনর্মিলনকে সহজতর করবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন রাখাইন রাজ্যে দ্রুত প্রত্যাবাসনের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে মিয়ানমারের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার জন্য ইউএনএইচসিআর হাইকমিশনারকে আহ্বান জানান। হাইকমিশনার জানান যে তার সংস্থা এ বিষয়ে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এবং আশ্বস্ত করেছেন যে তিনি এটি আরও জোর দেবেন। তিনি বলেন তারা রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে স্বেচ্ছায় এবং টেকসই প্রত্যাবাসনের বিষয়ে বাংলাদেশের সাথে একই পথের সঙ্গী।  পররাষ্ট্রমন্ত্রী বিপুল সংখ্যক নির্যাতিত ও বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের উপস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন, যা সমগ্র অঞ্চলে বহুমুখী প্রভাব ফেলতে পারে। তিনি উল্লেখ করেন যে, রোহিঙ্গারা সময়ের সাথে সাথে প্রত্যাবাসন নিয়ে অনিশ্চয়তার কারণে হতাশ হয়ে পড়ছে এবং এভাবে মাদক ও মানব পাচারের মতো অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছে। এছাড়াও বাস্তুচ্যুত জনসংখ্যার দীর্ঘস্থায়ী অবস্থান স্থানীয় জনগণের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি করছে, তিনি স্থানীয় জনগণের কল্যাণের জন্য প্রকল্প গ্রহণের প্রয়োজনীয়তার উপর জোর দেন।

হাইকমিশনার এত বিপুল সংখ্যক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের সাময়িকভাবে আশ্রয় এবং উদারভাবে প্রদানের জন্য বাংলাদেশের প্রশংসা করেন। কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্প এবং ভাসান চর পরিদর্শনের অভিজ্ঞতা শেয়ার করার সময়, তিনি দ্রুততম সময়ে মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার জন্য যে সমস্ত রোহিঙ্গাদের সাথে তার দেখা হয়েছিল তাদের প্রবল আকাঙ্ক্ষার কথা উল্লেখ করেন। রাখাইনে রোহিঙ্গাদের টেকসই প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে তিনি বাংলাদেশকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন। তিনি আরও জানান, ইউএনএইচসিআর এবং অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্থা কক্সবাজারে স্থানীয় জনগণের সুবিধার্থে বেশ কিছু প্রকল্প হাতে নিচ্ছে।

ভাসানচরের বিভিন্ন দিক তুলে ধরে পররাষ্ট্রমন্ত্রী দ্বীপে স্থানান্তরিত সকল রোহিঙ্গাদের জন্য মানবিক সহায়তা প্রদানের জন্য ভাসানচরে জাতিসংঘের ব্যবস্থার পূর্ণ সম্পৃক্ততার ওপর জোর দেন। হাইকমিশনার গ্র্যান্ডি ভাসান চরের জন্য বাংলাদেশ সরকারকে প্রয়োজনীয় সহায়তা অব্যাহত রাখার কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। তিনি জোর দিয়ে বলেন, ভাসানচর প্রকল্পের টেকসইতা নিশ্চিত করা গুরুত্বপূর্ণ এবং এ বিষয়ে সকলের একসঙ্গে কাজ করা উচিত।

 ফিলিপ্পো গ্র্যান্ডি ২১ মে বাংলাদেশে আসেন। তিনি ২১ মে থেকে ২৩ মে কক্সবাজার ভ্রমণ করেন এবং ২৪ মে ভাসানচর পরিদর্শন করেন। তিনি আজ জেনেভার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন। এটি তার বাংলাদেশে পঞ্চম সফর।

শিক্ষক হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত ছাত্রের বাবা গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকার আশুলিয়ায় নিজ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীর স্ট্যাম্পের আঘাতে শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারের মৃত্যুর ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষার্থীর বাবাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৯ জুন) রাতে কুষ্টিয়ার কুমারখালী এলাকা তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ওই শিক্ষার্থীর বাবা উজ্জল হাজী আশুলিয়ার চিত্রাশাইল এলাকার বাসিন্দা।

শিক্ষক উৎপলকে হত্যার ঘটনায় ওই স্কুলছাত্রকে প্রধান আসামি করে এবং অজ্ঞাত আরও তিন-চার জনের বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন নিহত শিক্ষকের ভাই অসীম কুমার।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজে মেয়েদের ক্রিকেট খেলা চলছিল। শিক্ষক উৎপল কুমার মাঠের পাশে দাঁড়িয়ে খেলা দেখছিলেন। দুপুরের দিকে হঠাৎ এক ছাত্র মাঠ থেকে ক্রিকেট খেলার স্ট্যাম্প নিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি আঘাত করে পালিয়ে যায়। উৎপলকে দ্রুত উদ্ধার করে গণস্বাস্থ্য সমাজভিত্তিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে সাভারের এনাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসিউতে রাখা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ভোরে তার মৃত্যু হয়। হত্যায় অভিযুক্ত ছাত্রকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।

;

প্রেমিকা নিয়ে পালিয়েছে ছেলে, মাকে পুড়িয়ে মারল প্রেমিকার পরিবার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ময়মনসিংহ
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহ নগরীর চর ঈশ্বরদিয়া এলাকায় লাইলী বেগম (৩৮) নামে এক নারীকে হাত-পা বেঁধে পেট্রোল ঢেলে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার ছেলের প্রেমিকার পরিবারের বিরুদ্ধে।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) সন্ধ্যার দিকে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত লাইলী বেগম নগরীর ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের চর ঈশ্বরদিয়া এলাকার আব্দুর রশিদের স্ত্রী।

নিহত লাইলী বেগমের স্বামী আব্দুর রশিদ বলেন, প্রতিবেশী খোকন ওরফে কাজল মিয়ার মেয়ে খুকি আক্তারের সঙ্গে আমার ছেলে সিরাজুল ইসলামের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। সম্প্রতি ওই মেয়ের বিয়ের কথাবার্তা চলতে থাকে। বিষয়টি মেয়ে জানতে পেরে রোববার আমার ছেলের সঙ্গে পালিয়ে যায়। তারা ফিরে না এলেও বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছিল।

তিনি আরও বলেন, এ ঘটনায় মঙ্গলবার সালিস হওয়ার কথা ছিল। সকাল ৮টার দিকে আমি কাজের উদ্দেশ্যে বেরিয়ে গেলে মেয়ের মা কনা আক্তার, চাচি নাসরিন, আসমা ও রুমা বাড়িতে এসে আমার স্ত্রীর হাত-পা বেঁধে একটি ঘরে নিয়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে তাকে উদ্ধার করে। খবর পেয়ে বাড়িতে ফিরে দগ্ধ অবস্থায় লাইলীকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে স্থানান্তর করেন। সন্ধ্যার দিকে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় লাইলীর মৃত্যু হয়।

ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল আকন্দ বলেন, মরদেহ ঢাকা থেকে আনার প্রক্রিয়া চলছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী আটজনকে আসামি করে মামলা করেছেন। আসামি গ্রেফতারে একাধিক টিম কাজ করছে।

;

রাজধানীতে ট্রাকের ধাক্কায় কলেজশিক্ষার্থী নিহত



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর শাহবাগে শিক্ষা ভবনের সামনে দ্রুতগামী একটি ট্রাকের ধাক্কায় মো. মোহাইমিনুল ইসলাম সিফাত (২১) নামে এক কলেজ শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৮ জুন) দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত আড়াইটার দিকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের বন্ধু ফুয়াদ জানান, মোটরসেইকেলে করে যাওয়ার সময় শাহবাগের গনি রোড সংলগ্ন শিক্ষা ভবনের সামনে দ্রুতগামী একটি ট্রাক মোহাইমিনুলকে ধাক্কা দেয়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢামেকে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) মো. বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় জানানো হয়েছে।

;

এক ঘণ্টা পর ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ময়মনসিংহ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলার আউলিয়ানগরে ঢাকাগামী ভাওয়াল এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল বন্ধ ছিল। এক ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর স্বাভাবিক হয়েছে ট্রেন চলাচল।

বুধবার (২৯ জুন) সকাল পৌনে ৮টার দিকে আউলিয়ানগর স্টেশনের আউটার সিগন্যালের কাছে এ ঘটনা ঘটে।

ময়মনসিংহ রেলওয়ে থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মির্জা মো. মূসা বলেন, ময়মনসিংহের কেওয়াটখালী লোকোশেড থেকে একটি উদ্ধারকারী রিলিফ ট্রেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিকল ইঞ্জিন সরিয়ে নিলে ঘণ্টা খানেক পর আবারও শুরু হয় ট্রেন চলাচল।

;