পদ্মা সেতুর সুবাতাস সুন্দরবনেও



উপজেলা করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, মংলা (বাগেরহাট)
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

চালু হয়েছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু। এতে পাল্টে যেতে শুরু করেছে সবকিছুই। সেতুতে সময় সাশ্রয়ের সঙ্গে কমছে ভোগান্তি। যার সুবাতাস বইতে শুরু করেছে বিশ্বখ্যাত ম্যানগ্রোভ ফরেস্ট সুন্দরবনের পর্যটন শিল্পে।

ভৌগলিক দিক দিয়ে সুন্দরবনের কোলে অবস্থান হওয়ায় একমাত্র সড়ক পথে মোংলা থেকেই যেতে হয় সুন্দরবনে। তাই স্বল্প সময় ও খরচে সুন্দরবনকে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন রূপে দেখার সুযোগ কেবল মোংলাতেই রয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় এখন সড়ক পথে দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে মোংলা হয়ে সরাসরি যাওয়া যাবে সুন্দরবনে। যে সুযোগ আর কোথাও পাওয়া যাবে না। এটি ভ্রমণ পিপাসু পর্যটকদের জন্য একটি আকর্ষণীয় বিষয়। ফলে ভ্রমণ মৌসুমে সুন্দরবনে পর্যটকদের সংখ্যা বাড়বে। সমৃদ্ধ হবে সুন্দরবনের অর্থনীতি।

পূর্ব সুন্দরবনের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে সুন্দরবনে পর্যটক এসেছে ১ লাখ ২০ হাজার। এখান থেকে সুন্দরবনের রাজস্ব আয় হয়েছে ১ কোটি ২৫ লাখ টাকা। পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় সুন্দরবনে ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। পর্যটকদের সংখ্যা যেমন বাড়বে তেমনি রাজস্বও বাড়বে।

তিনি বলেন, ইতিমধ্যে পর্যটকদের চাপ সামলাতে পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের করমজল, হাড়বাড়িয়া, কটকা, কচিখালী ও দুবলা ও পশ্চিম বিভাগের হিরণপয়েন্ট ও কলাগাছিয়া এই সাতটি ইকোট্যুরিজমের সাথে নতুন আরও চারটি ইক ট্যুরিজম কেন্দ্র যোগ করা হচ্ছে। সুন্দরবন ইকো ট্যুরিজম প্রকল্পের আওতায় ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে পূর্ব সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের আন্ধারমানিক, শরণখোলা রেঞ্জের আলীবান্দা ও পশ্চিম বিভাগের সাতক্ষীরা রেঞ্জের শেখের টেক ও কালাবগিতে নতুন এই ট্যুরিজমগুলো নির্মাণ করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এসব ইকোট্যুরিজমে পর্যটকদের সুব্যবস্থার জন্য গোলঘর, ফুট ট্রেইলার, পাবলিক শৌচাগার, ওয়াচ টাওয়ার ও রাস্তা করা হচ্ছে। গত সপ্তাহে এ সকল প্রকল্পের অগ্রগতি কার্যক্রম পরিদর্শন করেছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার।

বন কর্মকর্তা মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন বলেন, যে কোন পর্যটন হোক বা ইকোট্যুরিজম হোক তারমধ্যে অন্যতম সুবিধা হচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি। দীর্ঘদিন সুন্দরবন কেন্দ্রিক যে ইকোট্যুরিজমে পর্যটকরা আসতো, তারা সব সময় যোগযোগ ব্যবস্থা উন্নত না থাকার কারণে এখানে আসার অনীহা প্রকাশ করতো। কিন্তু এখন সেতু যেহেতু চালু হয়েছে তাই অতিরিক্ত পর্যটকদের ঢল নামবে। তাই পর্যটকদের চাপ সামলাতে নতুন চারটিসহ মোট ১১টি ইকোট্যুরিজম কেন্দ্র থেকে সেবা দেওয়া যাবে বলেও জানান তিনি।

পরিবহন ব্যবসায়ী মো. জামাল হোসেন ও প্রদীপ কুমার বলেন, সেতু চালুর আগে ঢাকা থেকে শুধু মোংলায় আসতে পুরো একদিন অর্থাৎ সকাল ৬টায় ছাড়লে এখানে পৌঁছাতো বিকেল ৩টা/৪টায়। ১০ ঘণ্টা সময় লাগতো। আর ফেরি ঘাটে জটলা থাকলে তা আরও কয়েক ঘণ্টা বেড়ে যেতো। এখন সেতু চালু হওয়ায় মাত্র তিন থেকে সোয়া তিন ঘণ্টায় মোংলায় চলে আসছে। মোংলায় নামার পর মাত্র ৩০/৪০ মিনিটে পৌঁছে যাওয়া যাবে সুন্দরবনের সবচেয়ে কাছাকাছি ও আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র করমজলে। সুতরাং আগে শুধু ঢাকা থেকে আসতে যে সময় লাগতো সেই সময়ের চেয়েও কম সময়ের মধ্যেই ঢাকা থেকে মোংলা হয়ে সুন্দরবন ঘুরে ঢাকায়ই ফিরে যেতে পারবেন।

সুন্দরবনের ট্যুরিজম ব্যবসায়ী গোলাম রহমান বিটু বলেন, যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো না থাকায় অধিকাংশ সময় পর্যটকরা সুন্দরবনে আসতে চাইতো না। এখন যেহেতু পদ্মা সেতু চালু হয়েছে তাই সেই চিরচেনা চিত্র একেবারেই পাল্টে যাবে। যোগাযোগ ব্যবস্থার দূরত্ব কমে সহজ হওয়ায় এখন পর্যটকদের আকর্ষণও বাড়বে বলে মনে করেন তিনি।

সেভ দ্য সুন্দরবন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান লায়ন ড. শেখ ফরিদুল ইসলাম বলেন, পদ্মা সেতু চালু হওয়ায় উচ্ছ্বসিত সুন্দরবন সংলগ্ন স্থানীয়রাও। তিনি বলেন, সুন্দরবনের কাছেই আমাদের বসবাস। ফলে বন কেন্দ্রিক পর্যটন শিল্পের সঙ্গে আমাদের অনেকেই জড়িত। পদ্মা সেতুর দ্বার উন্মোচনের পাশাপাশি সুন্দরবনের বিভিন্ন পয়েন্টে অবকাঠামো ও যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নতি হলে দর্শনার্থীরাও আনন্দ পাবেন।

পূর্ব সুন্দরবনের করমজল বণ্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আজাদ কবির বলেন, সুন্দরবনের ৬ হাজার ১৭ বর্গ কিলোমিটার বাংলাদেশ অংশে জলভাগের পরিমাণ ১ হাজার ৮৭৪ দশমিক ১ বর্গ কিলোমিটার। যা সমগ্র সুন্দরবনের আয়তনের ৩১ দশমিক ১৫ ভাগ। এই বনে বাঘ, হরিণ, বানরসহ ৩১৫ প্রজাতির বণ্যপ্রাণী ও সুন্দরি, বাইন, গরানসহ ৩৩৪ প্রজাতির উদ্ভিদ রয়েছে। মূলত এসব দেখতেই প্রতি বছর দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ভ্রমণ পিপাসুরা ছুটে আসেন। তবে যোগাযোগ ব্যবস্থা অনুন্নত হওয়ায় মাঝে মাঝে মৌসুমেও পর্যটকদের ভাটা পড়তো। এখন সেতু চালু হওয়ায় পর্যটক বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সুন্দরবনের এ খাত থেকে রাজস্ব আয় হবে চার থেকে পাঁচ গুণ।

নৌযানে ভাড়া সমন্বয়ে আট প্রস্তাব ওয়ার্কিং কমিটির



সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জ্বালানি তেলের দাম পুনর্নির্ধারণের পরিপ্রেক্ষিতে নৌযানে যাত্রী ভাড়া সমন্বয়ের লক্ষ্যে আটটি প্রস্তাব দিয়েছে ওয়ার্কিং কমিটি। কমিটি ১৯, ২২, ২৫, ৩০, ৩৫, ৪০, ৪২ অথবা ৫০ শতাংশ ভাড়া বাড়ানোর জন্য সরকারের কাছে প্রস্তাব দিয়েছে।

সোমবার (৮ আগস্ট) রাতে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. জাহাঙ্গীর আলম খান সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে, দুপুরে সাত সদস্যের ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করেন নৌ পরিবহন সচিব মো. মোস্তফা কামাল।

এর আগে, নৌপরিবহন সচিব জানিয়েছিলেন, মালিকদের প্রস্তাবিত ভাড়ার হার বেশি। এজন্য কমিটি করা হয়েছে। কেউ যাতে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সেজন্য কাজ করবে ওয়ার্কিং গ্রুপ। আজ কমিটি পুনরায় বসবে। যা ১০ তারিখের মধ্যে গেজেট প্রকাশ করা হবে।

তিনি আরও বলেন, প্রজ্ঞাপন হওয়ার আগ পর্যন্ত আগের ভাড়াতেই লঞ্চে যাত্রী পরিবহন করবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-চলাচল (যাত্রী পরিবহন) সংস্থার পক্ষ থেকে লঞ্চ ভাড়া ১০০ ভাগ বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রস্তাবনা নিয়ে মালিক সমিতির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে।

প্রস্তাবে বলা হয়েছে, সরকার কর্তৃক জ্বালানি তেলের (ডিজেল) মূল্য লিটার প্রতি ৩৪ টাকা বৃদ্ধি করায় এবং বিশ্ববাজারে ডলারের মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় বাংলাদেশের খোলা বাজারে মবিলের মূল্য ৫০ শতাংশ, প্লেট, এঙ্গেল, ইঞ্জিনের খুচরা যন্ত্রাংশ, ওয়েল্ডিং রড ও গ্যাস সহ স্প্রে পার্সের মূল্য প্রায় ২০০ গুণ বৃদ্ধি পাওয়ায় লঞ্চের বর্তমান যাত্রীভাড়া ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত দূরত্বের জন্য প্রতি কিলোমিটার ২.৩০ টাকার স্থলে ২.৩০ টাকা বৃদ্ধি করে ৪.৬০ টাকা এবং ১০০ কিলোমিটারের ঊর্ধ্বে প্রতি কিলোমিটার দূরত্বের জন্য বর্তমান ২.০০ টাকার স্থলে ২.০০ টাকা বৃদ্ধি করে ৪.০০ টাকা নির্ধারণ করা।

;

অসুবিধা না হলে আইজিপি যুক্তরাষ্ট্রে যেতে পারবেন: পররাষ্ট্রসচিব



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন

পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন

  • Font increase
  • Font Decrease

যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিতব্য পুলিশ প্রধানদের সম্মেলনে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে জাতিসংঘ। মার্কিন নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও বেনজীর আহমেদ নিউইয়র্কের এই সম্মেলনে যেতে পারবেন কি-না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, কোনো রকম অসুবিধা না হলে আইজিপি সম্মেলনে অংশ নিতে পারবেন।

সোমবার (৮ আগস্ট) রাজধানীর ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে ঢাকা সফররত মার্কিন আন্তর্জাতিক সংস্থাবিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিশেল জে সিসনের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রসচিব বলেন, এ রকম জাতিসংঘের মিটিংয়ে যেতে গেলে একটি কনভেশন আছে। তবে অতীতে আমরা এ নিয়মের ব্যতিক্রমও দেখেছি। আগে থেকে বলা মুশকিল।

আইজিপি যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন কি না, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, এ বিষয়ে আমরা এখনও যোগাযোগ করিনি। তবে সামনের দিনগুলোতে যোগাযোগ করব।

গত ৪ আগস্ট স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে বলা হয়েছে, ওই সম্মেলনে অংশ নেবেন বেনজীর আহমেদসহ ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দল। আগামী ৩১ আগস্ট থেকে ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত এ সম্মেলন হবে। ৩০ আগস্ট তাদের ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের নেতৃত্বে ৬ সদস্যের এই দলে আরও রয়েছেন- স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের যুগ্ম সচিব আবু হেনা মোস্তফা জামান, মন্ত্রীর একান্ত সচিব (উপসচিব) মু. আসাদুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি) নাশিয়ান ওয়াজেদ ও সহকারী পুলিশ মহাপরিদর্শক (এআইজি) মোহাম্মদ মাসুদ আলম।

উল্লেখ্য, গত বছরের ডিসেম্বরে র‍্যাবের সাবেক মহাপরিচালক (ডিজি) ও বর্তমান আইজিপি বেনজীর আহমেদসহ ৭ কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয় মার্কিন পররাষ্ট্র ও রাজস্ব বিভাগ।

;

ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রংপুর
ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ

ঘাঘটে ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধের মরদেহ

  • Font increase
  • Font Decrease

 

রংপুরের পীরগাছায় ঘাঘট নদী থেকে খবির উদ্দিন(৮০) নামে এক বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তিনি মানসিকভাবে ভারসাম্যহীন ছিলেন বলে দাবি করেছে পরিবারের লোকজন।

সোমবার(৮ আগস্ট) সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন পীরগাছা থানার ওসি মাসুমুর রহমান। এর আগে দুপুরে উপজেলার কৈকুড়ী ইউনিয়নের মকসুদ খাঁ গ্রামে ঘাঘট নদীর মান্নানের ঘাট এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়

নিহত খবির উদ্দিন পার্শ্ববর্তী মিঠাপুকুর উপজেলার জারুল্যাপুর সর্দারপাড়া গ্রামের মৃত বাসারত উল্ল্যার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সকালে ঘাঘট নদীতে স্রোতে ভেসে যাচ্ছিল এক ব্যক্তির মরদেহ । এ সময় মরদেহটি মান্নানের ঘাট এলাকায় নদীর কিনারায় ভিড়িয়ে নেয় স্থানীয়রা। পরে তারা ৯৯৯ এ ফোন করে বিষয়টি জানালে দুপুরে অজ্ঞাত পরিচয়ের মরদেহটি উদ্ধার করে পীরগাছা থানা পুলিশ।  বিষয়টি জানাজানি হলে বিকেলে নিহতের ছেলে থানায় এসে পরিচয় সনাক্ত করেন।

নিহতের ছেলে রফিকুল ইসলাম বলেন, আমার বাবা মানসিক ভারসাম্যহীন ছিলেন। সকালেও পাশের বাড়ির লোকজনের সঙ্গে গল্পে মেতেছিলেন। কখন ঘাঘট নদীতে গেছেন আমরা বুঝতে পারিনি।

পীরগাছা থানার ওসি মাসুমুর রহমান বলেন, মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

;

সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক

সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন, পাঁচজন আটক

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলের সখীপুরে জমি নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে মারামারির ঘটনায় ছোট ভাই ফালু মিয়ার (৬০) খুন হয়েছে।

সোমবার(০৮ আগস্ট) সকালে উপজেলার কামালিয়াচালা মধ্যে পাড়ায় এ সংঘর্ষ ঘটেছে। এ সময় ফালু মিয়ার স্ত্রী আজিবন (৫০), ছেলে রিপন মিয়া (২৮), প্রতিবেশী মুঙ্গল আলী (৫২) ও তার স্ত্রী হালিমা আক্তার (৩৮) আহত হয়ে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছে।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বড় ভাই বাবর আলী (৬৫) ও ছেলে নাজিম (৩৮) সখীপুর থানায় উল্টো ভাইয়ের বিরুদ্ধে মামলা করতে আসলে রোকেয়া (২৭), রহিম (৪০) ও তাহেরা (৪০)সহ পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানিয়ে খুন হওয়ার বিষয়ে মামলা দেয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানায় পুলিশ।

এলাকাবাসী জানায়, ক্রয়কৃত জমিতে কাটা তারের বেড়া দিয়ে ফালু ও তার ছোট ভাই টিপু বাড়ি নির্মান করে। সেই জমির কাটা তার ভেঙ্গে বড় ভাই বাবর আলী ও তার ছেলে নাজিম ২০/২৫ জনের একটি সংঘবদ্ধ চক্র নিয়ে জমি দখলের চেষ্টা চালায়। এ সময় বাঁধা দিতে গেলে সংবদ্ধ চক্রের দা, শাবলের আঘাতে ছোট ভাই ফালু মিয়া গুরুতর আহত হয়। তাকে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার সময় মারা যায়। এ সংঘর্ষে ফালুর মিয়া স্ত্রীর আজিবন নেছার হাত ভেঙ্গে যায়, তার ছেলে রিপনের মাথা ফেটে যায়। এ সময় প্রতিবেশী মুঙ্গল আলী ও তার স্ত্রী হালিমা গুরুতর আহত হয়ে সখীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সখীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় পাঁচজনকে আটক করা হয়েছে।

;