আড়াইহাজারে মা ও ছেলেকে গলা কেটে হত্যা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, নারায়ণগঞ্জ
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে মা ও ছেলেকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

রোববার (০৩ জুলাই) সকাল ৮টার দিকে আড়াইহাজার উপজেলার গোপিন্দি এলাকা থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হলেন- উজান গোবিন্দপুর এলাকার মৃত আওয়াল নবীর স্ত্রী রাজিয়া সুলতানা কাকলী (৪২) ও তার ছেলে তালহা (৮)।

স্থানীয়রা জানান, ঘরে মা-ছেলে একাই বসবাস করতো। অজ্ঞাত লোকজন রাতের যেকোনো সময় মা-ছেলেকে গলাকেটে হত্যা করে। সকালে ঘরের দরজা খোলা থাকায় আশপাশের মানুষ গিয়ে তাদের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। পরে পুলিশে খবর দিলে তারা মরদেহ উদ্ধার করে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল হক হাওলাদার জানান, নিহতদের পরিচিত কেউ এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে কী কারণে তাদের হত্যা করা হয়েছে এখনই বলা যাচ্ছে না।

লক্ষ্মীপুরে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার মৃত্যু



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, লক্ষ্মীপুর
আবদুর রহিম শুভ

আবদুর রহিম শুভ

  • Font increase
  • Font Decrease

লক্ষ্মীপুরে মোটরসাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আবদুর রহিম শুভ (৩২) নামে এক স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতার মৃত্যু হয়েছে। বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে লক্ষ্মীপুর-রামগঞ্জ সড়কের সাহাপুর শিশু কল্যাণ পরিবারের সামনে এ ঘটনা ঘটেছে।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তফা কামাল আজ বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

নিহত শুভ লক্ষ্মীপুর পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম আহবায়ক এবং শহরের একটি টেইলার্সে কাটিংয়ের কাজ করতেন। তিনি সাহাপুর মিজি বাড়ির আবদুল আজিজের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, রাতে শুভ মোটরসাইকেল চালিয়ে লক্ষ্মীপুর শহর থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন। সাহাপুর শিশু কল্যাণ পরিবার এলাকায় পৌঁছলে গর্তে পড়ে মোটর সাইকেলটি নিয়ন্ত্রণ হারায়। এতে শুভ গুরুতর আহত হয়। তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

লক্ষ্মীপুর জেলা শ্রমিক লীগের আহবায়ক ইউসুফ পাটওয়ারী জানান, গর্তে পড়ে মোটর সাইকেল নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে শুভ মারা গেছেন। ওই সড়কে গর্ত থাকায় এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে জানান তিনি।

;

লালমনিরহাট এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ৬ ঘণ্টা



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
লালমনিরহাট এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল

লালমনিরহাট এক্সপ্রেস ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা লালমনিরহাটগামী লালমনিরহাট আন্ত:নগর এক্সপ্রেক্স ট্রেনের ইঞ্জিল বিকল হয়ে টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব রেল স্টেশনে প্রায় ৬ ঘণ্টা আটকে ছিল। ফলে ঢাকা ও উত্তর-দক্ষিণ অঞ্চলের সাথে ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ থাকে এই ৬ ঘণ্টা। ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় যাত্রীরা ভোগান্তিতে পড়েন।

বুধবার (১০ আগস্ট) রাত ১২ টা ৩৩ মিনিটে ট্রেন বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব রেলস্টেশন বিকল হয়ে পড়ে। পরে বিকল ইঞ্জিন পরিবর্তন শেষে আজ বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) সকাল ৬ টা ২৬ মিনিটের দিকে লালমনিরহাটের উদ্দ্যেশে ছেড়ে যায়।

এ বিষয়টি বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব রেলস্টেশন মাস্টার (বুকিং) রেজাউল করিম নিশ্চিত করে জানান, ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা ওই ট্রেনটি লালমনিরহাট যাচ্ছিল। পথিমধ্যে বুধবার রাত ১২ টা ৩৩ মিনিটের দিকে সেতু পূর্ব রেলস্টেশনে পৌঁছলে ইঞ্জিন বিকল হয়ে যায়।

তিনি আরও জানান, পরে ঢাকা থেকে আরেকটি ইঞ্জিন আনা হয়। ইঞ্জিন পরিবর্তন শেষে বৃহস্পতিবার সকাল ৬ টা ২৫ মিনিটে লালমনিরহাটের উদ্দেশ্যে ট্রেনটি ছেড়ে গেছে। এখন ঢাকা ও উত্তর-দক্ষিণ অঞ্চলের সাথে সব ধরণের ট্রেন চলাচল সচল হয়েছে।

;

কাপ্তাই হ্রদে মাছ আহরণ শুরু ১৮ আগস্ট



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, রাঙামাটি
কাপ্তাই হ্রদে মাছ আহরণ শুরু ১৮ আগস্ট

কাপ্তাই হ্রদে মাছ আহরণ শুরু ১৮ আগস্ট

  • Font increase
  • Font Decrease

তিন মাস ১৭ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে আগামী ১৮ আগস্ট রাঙামাটির কাপ্তাই হ্রদে মৎস্য আহরণ ও বিপণন শুরু হচ্ছে। গত ১ মে মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন নিশ্চিত করতে এবং কার্প জাতীয় মাছের আধিক্য বাড়াতে তিন মাসের জন্য হ্রদের মাছ শিকার ও বিপণনের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে জেলা প্রশাসন।

বুধবার (১০ আগস্ট) রাঙামাটি জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কাপ্তাই হ্রদে মৎস্য আহরণ ও বিপণন বিষয়-সংক্রান্ত জরুরি বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান, বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন (বিএফডিসি) রাঙামাটি বিপণনকেন্দ্রের ব্যবস্থাপক লেফটেন্যান্ট কমান্ডার তৌহিদুল ইসলাম, জেলা মৎস্য কর্মকর্তা শ্রীবাস চন্দ্র চন্দ, বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই) রাঙামাটি নদী উপকেন্দ্রের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা লিপন মিয়া, মৎস্য ব্যবসায়ী উদয়ন বড়ুয়া, আব্দুর শুক্কুর, হারুন, মজিদ, মান্না সওদাগর প্রমুখ।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মিজানুর রহমান বলেন, হ্রদে পানি বৃদ্ধি না পাওয়ায় নিষেধাজ্ঞার সময়সীমা ১৭ দিন বৃদ্ধি করে ১৮ আগস্ট নির্ধারণ করা হয়েছিল। হ্রদে বর্তমানে পানির উচ্চতা পরিমাণ ৯৬ এমএসএল (মেইন সি লেভেল) রয়েছে। সামনের কদিনে বৃষ্টিপাত হলে হ্রদে পানি বাড়বে বলে আশা করছি।

রাঙামাটিস্থ বিএফডিসি’র ব্যবস্থাপক নৌবাহিনীর কর্মকর্তা লে. কমান্ডার তৌহিদুল ইসলাম জানান, হ্রদে পানির পরিমাণ কিছুটা কম থাকলেও ধীরে ধীরে বাড়ছে। সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে হ্রদে মৎস্য আহরণ ও বিপণন শুরু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

;

মেয়েকে দিয়ে অপহরণ নাটক সাজিয়ে ধরা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, বগুড়া
মেয়েকে দিয়ে অপহরণ নাটক সাজিয়ে ধরা

মেয়েকে দিয়ে অপহরণ নাটক সাজিয়ে ধরা

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রবাসী স্বামীর পাঠানো টাকা আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে তার নানির বাড়িতে লুকিয়ে রেখে অপহরণ নাটক সাজাতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা খেয়েছেন স্কুল ছাত্রীর মা ও তার নানি।

বুধবার (১০ আগস্ট) বগুড়ার গাবতলী উপজেলার দুর্গাহাটা গ্রামে অপহরণ নাটকের ঘটনা ঘটে।

জানাগেছে, বুধবার বিকেলে দুর্গাহাটা গ্রামের ইরাক প্রবাসী উকিল আহম্মেদের স্ত্রী ফারজানা বেগম গাবতলী থানায় অভিযোগ করেন যে, সার্ক মডেল স্কুলে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া তার মেয়ে মঞ্জিলাকে স্কুল ছুটির পর কে বা কারা অপহরণ করে তিন লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করছে। এমন অভিযোগ পেয়ে গাবতলী থানা পুলিশের একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে যান। এরপর স্কুলের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে পুলিশ দেখতে পান মঞ্জিলা স্কুল থেকে বের হয়ে বাড়ির দিকে না গিয়ে উল্টো দিকে যাচ্ছে এবং বোরকা পরিহিত একজন নারী পিছনে যাচ্ছেন। এরপর যে অটোরিকশায় মঞ্জিলা এবং বোরকা পরিহিত নারী যায় সেই অটোরিকশা শনাক্ত করে পুলিশ। পরে পুুুুলিশ জানতে পারে পার্শ্ববর্তী ফুলবাড়ি বাজারে মঞ্জিলার নানি নাজমা বেগম অপেক্ষা করছিলেন। সেখান থেকে মঞ্জিলার মা ফারজানা তার মেয়েকে শেরপুর থানার উলিপুর গ্রামে নানি নাজমার বোনের বাড়িতে রেখে আসেন। এরপর গাবতলী থানায় অভিযোগ করে যে, তার মেয়েকে অপহরণ করে ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হচ্ছে।

মঞ্জিলার মা ফারজানার কথাবার্তায় পুলিশের সন্দেহ হলে জিজ্ঞাসাবাদে ফারজানা তার মেয়েকে নিয়ে অপহরণ নাটকের সাজানো কাহিনী খুলে বলেন।

ফারজানা পুলিশকে জানায়, তার স্বামী উকিল আহমেদ দীর্ঘদিন ইরাক প্রবাসী। উকিল আহমেদ প্রবাস থেকে বিভিন্ন সময় টাকা পাঠাতো। সেই টাকার মধ্যে ইতিপূর্বে দেড় লাখ টাকা হারিয়ে গেছে বলে স্বামীকে জানায়। এছাড়াও আরও ৩ লাখ টাকা ফারজানা আত্মসাৎ করার লক্ষ্যে শিশু মেয়েকে শিখিয়ে দিয়ে অপহরণ নাটক সাজায় । ফারজানা পুলিশকে আরও জানায় তার স্বামী উকিল আহমেদ আগামী দুই এক দিনের মধ্যে ইরাক থেকে বাংলাদেশে আসবে। স্বামী আসলে বলবে মেয়েকে অপহরণ করেছিল ৩ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিয়ে উদ্ধার করা হয়েছে।

গাবতলী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, পুলিশের তাৎক্ষণিক পদক্ষেপে প্রকৃত সত্য বের হয়ে আসে। বর্তমানে ফারজানা ও ফারজানার মা নাজমা বেগম ও শিশু মেয়ে মঞ্জিলা গাবতলী মডেল থানা ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টার হেফাজতে আছে।

;