বাসাইল পৌর যুবলীগের সভাপতি শাওন গ্রেফতার



ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, টাঙ্গাইল
বাসাইল পৌর যুবলীগের সভাপতি শাওন গ্রেফতার

বাসাইল পৌর যুবলীগের সভাপতি শাওন গ্রেফতার

  • Font increase
  • Font Decrease

টাঙ্গাইলের বাসাইলে চাচাতো ভাইকে মারধরের মামলায় পৌর-যুবলীগের সভাপতি রাফাত আলম শাওনকে গ্রেফতার করেছে বাসাইল থানা পুলিশ।

রোববার(৩১ জুলাই) সকালে পৌর এলাকার শহিদ ক্যাডেট স্কুলের সামনে থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাকে টাঙ্গাইল আদালতে প্রেরণ করা হয়।

গ্রেফতারকৃত শাওন পৌর এলাকার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শাহ আলম ভেবলের ছেলে। 

জানা যায়, গত সোমবার (২৫ জুলাই) উপজেলার ফুলকী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন শেষ করে বাড়ি ফেরার পথে নথখোলা ব্রিজের উপর গাছ ফেলে শাওন ও তার বাহিনীরা উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য তোফায়েল হোসেন (বেনু), উপ-দপ্তর সম্পাদক ফরিদ মিয়া, উপজেলা যুবলীগের নেতা প্রিন্স মাহমুদের পথ আটকে দেয়।

এ সময় দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি আক্রমণ করে স্থান ত্যাগ করে। আহতদের ডাক-চিৎকারে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে বাসাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। পরে তাদের অবস্থার অবনিত হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ওই তিনজনকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করেন।

মারধরের শিকার প্রিন্স মাহমুদের বাবা মামলার বাদী তোফায়েল হোসেন ওরফে বেনু জানান, দীর্ঘদিন যাবত জমি-জমার বিষয় নিয়ে কাউন্সিলর ভেবল এবং তার ছেলে শাওন আমাদেরকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করে আসছিলো। দলীয় পদ পাওয়ার পর এবং আমার ছেলে প্রিন্স ৬নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর নিবার্চন করার বিষয়টি চূড়ান্ত হওয়ায় তারা আমাদের উপর আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে।

এ ব্যাপারে বাসাইল উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মশিউর রহমান বিদ্যুত জানান, বিষয়টি নিয়ে জেলা যুবলীগের সাথে কথা বলেছি। শাওনের সম্পর্কে পূর্বে কোন অভিযোগ আসেনি। আমরা এই ঘটনার তদন্ত করে সত্যতা পেলে দলীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

বাসাইল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কর্মকর্তা আবু হানিফ সরকার জানান, মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

‘খুনিরা বিদেশেও শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করেছিল’



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

প্রধানমন্ত্রীর আন্তর্জাতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী বলেছেন, পনের আগস্ট ১৯৭৫ সালে সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পিছনে যেসব খুনিরা ছিলো, তারা বিদেশেও শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করেছিল। কিন্তু তখন তারা যে দেশে ছিলেন, সে দেশের সরকার তা প্রতিহত করে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে লন্ডনে বাংলাদেশ হাই কমিশন আয়োজিত স্মারক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়।

ড. গওহর রিজভী বলেন, জাতির পিতাকে হত্যার ষড়যন্ত্র বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার আগে মুক্তিযুদ্ধের সময় থেকেই শুরু হয়েছিল। কোনো কোনোটি ছিল ব্যক্তি বিশেষের ষড়যন্ত্র, কোনোটির পিছনে ছিল সম্মিলিত পরিকল্পনা ও উদ্যোগ। বঙ্গবন্ধুকে বন্দি করে পাকিস্তানে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তাকে জীবিত অবস্থায় ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য নয়।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু একটি প্রগতিশীল, ধর্মনিরপেক্ষ ও বাঙালি জাতীয়তাবাদ ভিত্তিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার গোড়াপত্তন করেছিলেন। তাকে নৃশংসভাবে হত্যার মাধ্যমে বাংলাদেশকে স্বাধীনতার পূর্বাবস্থায় ফিরিয়ে নেওয়াই ছিলো খুনিদের চূড়ান্ত লক্ষ্য। এসবের পর্যাপ্ত প্রমাণ পাওয়া গেছে। যথাযথ সময়ে সেসব প্রকাশ করা হবে।

যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম সোমবার রয়্যাল বা’রা অব কেনজিংটনের একটি হোটেলে আয়োজিত এই হাই-প্রোফাইল অনুষ্ঠানে স্মারক বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন এশিয়া ও প্যাসিফিক বিষয়ক শ্যাডো মন্ত্রী ক্যাথরিন ওয়স্ট এমপি এবং অল পার্টি পার্লামেন্টারি গ্রুপ অন বাংলাদেশের ভাইস চেয়ার লর্ড শেখ । অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্বপক্ষে গঠিত স্টুডেন্ট একশন কমিটির অন্যতম সদস্য সৈয়দ মোজাম্মেল আলী।

হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম তার স্মারক বক্তব্যে বলেন, বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার মাধ্যমে তার অসাম্প্রদায়িক, প্রগতিশীল ও ধর্মনিরপেক্ষ মূল্যবোধকে নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র ছিলো পূর্বপরিকল্পিত। এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড মানব ইতিহাসের নজিরবিহীন বর্বরতার ঘটনা এবং আন্তর্জাতিক মানবিক আইনের চরম লঙ্ঘন যা আব্রাহাম লিঙ্কন, মহাত্মা গান্ধী, মার্টিন লুথার কিং এবং জন এফ কেনেডি’র মতো অন্যান্য সমসাময়িক নেতাদের রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড থেকে সম্পূর্ণ আলাদা।

অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর ওপর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের বার্তা পাঠ করে শোনানো হয় এবং জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দেওয়া বিরোধীদলীয় ও লেবার পার্টির নেতা স্যার কেয়ার স্টারমারের ভিডিও বার্তা এবং বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নির্মীত বঙ্গবন্ধুর ওপর তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

হাইকমিশনার অতিথিদের নিয়ে বাংলাদেশ হাইকমিশনের স্মারক প্রকাশনা ‘বঙ্গবন্ধু-দ্য ফ্রেন্ড অব বেঙ্গল’-এর মোড়ক উন্মোচন করেন। অনুষ্ঠানে বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক কর্মী ঊর্মি মাজহার এবং বাংলাদেশ হাইকমিশনের কাউন্সিলর (পলিটিক্স) দেওয়ান মাহমুদুল হক বঙ্গবন্ধু ও ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের শহীদদের প্রতি নিবেদিত বিশিষ্ট কবি নির্মলেন্দু গুণের প্রখ্যাত কবিতা “সেই রাত্রির কল্পকাহিনী” আবৃত্তি করেন।

;

ওয়াসা কর্মীদের ‘পারফরম্যান্স বোনাসে’ তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

ঢাকা পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশনের (ওয়াসা) কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পারফরম্যান্স বোনাস হিসেবে প্রণোদনা দেওয়ার ওপর তিন মাসের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে বিধি প্রণয়ন না করে পানির দাম নির্ধারণ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বিচারপতি মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি কাজী ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়।

এর আগে, গত ২৫ জানুয়ারি ২৮৬তম সভায় কর্মীদের একটি মূল বেতনের অর্ধেক অন্তর্বর্তীকালীন ও গত ২৭ এপ্রিল ঢাকা ওয়াসা বোর্ডের ২৯১তম সভায় ‘উৎসাহ বোনাস’ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। যেখানে বলা হয় ২০২০-২১ অর্থবছরের ঢাকা ওয়াসার স্থায়ী, চুক্তিভিত্তিক ও প্রেষণে নিয়োজিত কর্মরতদের এক বছরের মূল বেতনের তিন গুণ সমপরিমাণ অর্থ বোনাস দেওয়া হবে।

এছাড়া গত ৩১ জুলাই ঢাকা ওয়াসার এই উৎসাহ বোনাস দেওয়ার সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে জনস্বার্থে রিট করেন কনজুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সভাপতি স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন। রিটে ‘উৎসাহ বোনাসে’ প্রণোদনা দেওয়ার কার্যক্রম বাতিলের নির্দেশনা চাওয়া হয়।

রিটে বলা হয়, ঢাকা ওয়াসা ভোক্তাদের কাছে অতিরিক্ত দামে পানি বিক্রি করে সেই টাকায় বিশেষ প্রণোদনা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যা জনস্বার্থবিরোধী।

উল্লেখ্য, ২০২০-২১ অর্থবছরে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তিতে ঢাকা ওয়াসা প্রথম স্থান অর্জন করায় এই বোনাস দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। এ দুই বোনাস বাবদ ব্যয় হবে ১৯ কোটি টাকা।

সরকারের ভর্তুকিতে চলা ঢাকা ওয়াসার নিয়মিত বেতন-ভাতার বাইরে এমন বোনাস ঘোষণা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যার কারণে ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে রিট দায়ের করা হয়।

;

যাত্রাবাড়ীতে আ. লীগ নেতাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: বার্তা২৪.কম

ছবি: বার্তা২৪.কম

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর যাত্রাবাড়ী ইউনিট আওয়ামী লীগ সভাপতি আবু বকর সিদ্দিক হাবুকে (৩৭) ছুরিকাঘাতে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

মঙ্গলবার (১৬ জানুয়ারী) সন্ধ্যা ৭টার দিকে যাত্রাবাড়ী থানা এলাকার শহীদ ফারুক সড়কে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসলে রাত সাড়ে ৮টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত আবু বক্করের খালাতো ভাই মো. মিঠু জানান, তার ভাই কাঁচামাল ব্যবসায়ী ছিলেন। দোকান থেকে বাসায় ফেরার পথে শহীদ ফারুক সড়ক এলাকায় পৌঁছালে ফাহিমসহ কয়েকজন তাকে ছুরি দিয়ে আঘাত করেন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

যাত্রাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাজাহারুল ইসলাম জানান, একটি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা শুনেছি। যে ব্যক্তি মারা গেছেন, তিনি আওয়ামী লীগ নেতা ছিলেন। বিস্তারিত জানার জন্য আমরা কাজ করছি।

;

এবার ফেরি ভাড়া বাড়ছে ২০ শতাংশ



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে বাস, লঞ্চের পর এবার ভাড়া বাড়ানো হলো ফেরি পারাপারে। সারা দেশে সব রুটের ফেরিতে যানবাহন পারাপারের ভাড়া ২০ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৮ আগস্ট) থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যান শামীম আল রাজী মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

বিআইডব্লিউটিসি বর্তমানে ছয়টি রুটে ফেরিতে যানবাহন পারাপার করছে। রুটগুলোর মধ্যে রয়েছে- পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া, আরিচা-কাজিরহাট, শিমুলিয়া-বাংলাবাজার/মাঝিরকান্দি, চাঁদপুর-শরীয়তপুর, ভোলা-লক্ষ্মীপুর এবং লাহারহাট-ভেদুরিয়া।

গত ৫ আগস্ট রাত ১২টার পর জ্বালানি তেলের নতুন দাম কার্যকর করে সরকার। ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ৩৪ টাকা বাড়িয়ে ১১৪ টাকা, পেট্রোলের দাম ৪৪ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা এবং অকটেনের দাম ৪৬ টাকা বাড়িয়ে ১৩৫ টাকা করা হয়।

;