বগুড়ায় ব্রিজ ভাঙ্গার চেষ্টায় জামায়াতের ১০ নেতাকর্মী গ্রেফতার



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা ২৪.কম,বগুড়া
বগুড়ায় ব্রিজ ভাঙ্গার চেষ্টায় জামায়াতের ১০ নেতাকর্মী গ্রেফতার

বগুড়ায় ব্রিজ ভাঙ্গার চেষ্টায় জামায়াতের ১০ নেতাকর্মী গ্রেফতার

  • Font increase
  • Font Decrease

বগুড়ায় মহাসড়কের নাশকতার উদ্দেশ্যে ব্রীজ ভাঙ্গার চেষ্টার অভিযোগে জামায়াতে ইসলামীর ১০ নেতা কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রোববার (৩১ জুলাই) বিকেলে এতথ্য জানিয়েছেন বগুড়ার শাজাহানপুর থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাসান হাফিজুর।

এর আগে রোববার ভোরে বগুড়া-ঢাকা মহাসড়কে শাজাহানপুর থানা এলাকায় ফটকী ব্রীজ হাতুড়ি ও শাবল দিয়ে ভেঙ্গে ফেলার চেষ্টা করছিল। গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ককটেল, হাতুড়ি, লোহার শাবল, ছেনিসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশ বাদী হয়ে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করেছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- শাজাহানপুর উপজেলার সাজাপুর দক্ষিণপাড়ার আঃ মতিন (৬৭), সুজাবাদ বালাপাড়ার আবু বকর সিদ্দিক ঠান্ডু (৫০), সুজাবাদ রাজধানীপাড়ার মোকাদ্দেসুর রহমান মোস্তাকিম (২৭), সুজাবাদ উত্তরপাড়ার বিল্লাল হোসেন (৪২), জামুন্না বগুড়াপাড়ার আমিনুল ইসলাম (৫৫),বগুড়া শহরের লতিফপুর মধ্যপাড়ার নজরুল ইসলাম (৫২), আনছার আলী (৫৮), বেজোড়া দক্ষিণপাড়ার আরাফ (২৭), কলতা গ্রামের শফিকুল ইসলাম (৫০) এবং কালশিমাটি গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ জানতে পারে- শাজাহানপুর থানার সাজাপুর এলাকায় ঢাকা - বগুড়া মহাসড়কের ফটকী ব্রীজের উত্তর পার্শ্বের ফাঁকা জায়গায় একদল জামাত-শিবিরের লোকজন লোহার শাবল, হাতুড়ি, ছেনি, বাঁশ ও কাঠের লাঠিসোটা নিয়ে সরকার বিরোধী নাশকতামূলক কর্মকান্ডের জন্য মহাসড়কে ব্যারিকেড দিয়ে যান চলাচল ব্যহত করা এবং ব্রীজ ভাঙ্গা ও বিভিন্ন সরকারী, বেসরকারী গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাসমূহে ক্ষতি সাধন করার লক্ষ্যে সমবেত হয়ে গোপন বৈঠক করছে। শাজাহানপুর থানার পুলিশ রবিবার ভোরে ঘটনাস্থলে পৌঁছিলে অনেকেই দৌড়ে পালিয়ে যায়। এসময় ১০ জনকে আটক কর। আটকের পর তাদের তাছ থেকে পুলিশ ৪টি তাজা ককটেল, ৪টি লোহার শাবল, ৫টি লোহার হাতুড়ী, ৫টি ছেনি, ১৫টি লাঠি উদ্ধার করে।

শাজাহানপুর থানার এস আই হাসান হাফিজুর রহমান বাদী হয়ে গ্রেফতারকৃতদের নামে মামলা করেছেন।

এদিকে, জামায়াতে ইসলামী শাজাহানপুর উপজেলা শাখার সেক্রেটারী মাওঃ শহিদুল ইসলাম বলেন, কেন্দ্রিয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে শনিবার সকালে জামাতে ইসলামীর উদ্যোগে শাজাহানপুর থানার বনানীতে একটি বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এরপর থেকেই পুলিশ শাজাহানপুরে জামায়াত নেতাকর্মীদের বাড়িতে অভিযান শুরু করে। ব্রীজ ভাঙ্গা এবং নাশকতা চেষ্টার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট বলে তিনি দাবি করেন।

আন্তঃ ক্যান্টনমেন্ট বিতর্ক প্রতিযোগিতা- ২০২২ এর উদ্বোধন



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
আন্তঃ ক্যান্টনমেন্ট বিতর্ক প্রতিযোগিতা- ২০২২ এর উদ্বোধন

আন্তঃ ক্যান্টনমেন্ট বিতর্ক প্রতিযোগিতা- ২০২২ এর উদ্বোধন

  • Font increase
  • Font Decrease

‘তর্কে নয়, বিতর্কে হোক সমাধান’ এই শ্লোগান নিয়ে আন্তঃ ক্যান্টমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২০২২ শুরু হয়েছে। আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুলের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুলের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল মহিবুল আকবর মজুমদার। সংসদীয় ধারার এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্পীকার ছিলেন ডিবেট ফর ডেমোক্রেসির চেয়ারম্যান হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ।

প্রতিযোগিতায় ঢাকা অঞ্চলের বিভিন্ন ক্যান্টনমেন্টের অধীনে পরিচালিত স্কুল পর্যায়ের ৮টি এবং কলেজ পর্যায়ের ৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহন করছে। উদ্বোধনী প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, নির্ঝরকে পরাজিত করে মিরপুর ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের বিতার্কিকরা বিজয়ী হয়। উদ্বোধনী দিন ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহনে ৪টি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিযোগিতায় বিচারক ছিলেন জাতীয় বির্তকে চ্যাম্পিয়ন ঢাকা বিশ^বিদ্যালয়ের বির্তক দলের সাবেক বিতার্কিক উত্তম রয়, সময় টেলিভিশনের জেষ্ঠ্য সংবাদ উপস্থাপক ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ের সাবেক বিতার্কিক জাফর সাদিক এবং শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক বিতার্কিক কৃষিবিদ ফাল্গুনী মজুমদার।

প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারী অন্যান্য দলসমূহ হচ্ছে- ঢাকা ক্যান্ট গালর্স পাবলিক স্কুল ও কলেজ, শেখ রাসেল ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ও কলেজ, আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল, শহীদ বীর উত্তম লে: আনোয়ার গার্লস কলেজ এবং জলসিঁড়ি ক্যান্টনমেন্ট স্কুল ও কলেজ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিল ছিলেন আদমজী ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুলের উপাধ্যক্ষ (প্রভাতী) আব্দুল জলিল, উপাধ্যক্ষ (দিবা) দিলীপ কুমার রায়, মডারেটর ফিরোজ আহমদ এবং সিনিয়র শিক্ষক নাহিদ হোসেন নোবেল।

;

গার্ডার দুর্ঘটনা: ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট



স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
গার্ডার দুর্ঘটনা: ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

গার্ডার দুর্ঘটনা: ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

  • Font increase
  • Font Decrease

রাজধানীর উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের ক্রেন থেকে গার্ডার ছিটকে পড়ে প্রাইভেটকারের পাঁচ যাত্রী নিহত হওয়ার ঘটনায় ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে একটি রিট আবেদন দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী জাকারিয়া খানের পক্ষে আইনজীবী শাহজাহান আকন্দ মাসুম এ রিট দায়ের করেন। রিটে সড়ক ও জনপথ সচিব, বিআরটিএর চেয়ারম্যানসহ ৫ জনকে বিবাদী করা হয়েছে।

রিটকারী আইনজীবী বলেন, উত্তরায় মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় নিহত পাঁচজনের মৃত্যুর ঘটনায় প্রত্যেকের জন্য ১ কোটি টাকা করে ক্ষতিপূরণ চাওয়া হয়েছে। পাশাপাশি বেশ কিছু নির্দেশনা চেয়েছি আমরা।

সোমবার (১৫ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর উত্তরায় বিআরটি প্রকল্পের ফ্লাইওভারের গার্ডার চাপায় প্রাইভেটকারে থাকা শিশুসহ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। আহত হন নবদম্পতি।

নিহতরা হলেন আইয়ুব আলী হোসেন রুবেল (৫৫), ফাহিমা আক্তার (৩৮), ঝর্না আক্তার (২৭), ঝর্না আক্তারের দুই শিশু সন্তান জান্নাত (৬) ও জাকারিয়া (৪)। মঙ্গলবার বিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে তাদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

;

বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজ বিজয়ী সেগুফতার সাথে সাক্ষাৎ সুইডেনের রাষ্ট্রদূতের



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম
বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজ বিজয়ী সেগুফতার সাথে সাক্ষাৎ সুইডেনের রাষ্ট্রদূতের

বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজ বিজয়ী সেগুফতার সাথে সাক্ষাৎ সুইডেনের রাষ্ট্রদূতের

  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজের এ বছরের বিজয়ী সেগুফতা মেহজাবীন, প্রতিযোগিতা্টির আয়োজক ও পার্টনারদের সাথে  দেখা করে বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইডেনের রাষ্ট্রদূত অ্যালেক্স বার্গ ফন লিন্ড।

এ বছর ১৭ বছর বয়সী সেগুফতা মেহজাবীন স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজ  ২০২২ এর আর্ন্তজাতিক রাউন্ডে বাংলাদেশেকে প্রতিনিধিত্ব করতে সুইডেন যাচ্ছে । স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজ শিক্ষার্থীদের জন্য একটি মর্যাদাপূর্ণ বৈশ্বিক প্রতিযোগিতা, যেখানে শিক্ষার্থীরা বিশ্বের পানি সম্পর্কিত  বড় চ্যালেঞ্জগুলি সমাধান করতে গবেষণা প্রকল্প তৈরি করে। প্রতিযোগিতাটিতে  ৪০ টিরও বেশি দেশ অংশগ্রহণ করে।  প্রতি বছর আগস্টের শেষে স্টকহোমে অনুষ্ঠিত বিশ্ব পানি সপ্তাহে, সুইডেনের ক্রাউন প্রিন্সেস হার রয়্যাল হাইনেস ভিক্টোরিয়া এ প্রতিযোগিতায় বিজয়ী দলকে পুরস্কার প্রদান করেন।

এই সাক্ষাতের উদ্দেশ্য ছিল রাষ্ট্রদূতের সামনে এবছরের বিজয়ী প্রকল্পটি উপস্থাপন করা ও  তা নিয়ে আলোচনা করা এবং 'স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজ বাংলাদেশ' আয়োজনে হাউস অফ ভলান্টিয়ার্স (এইচওভি) এর বছরব্যাপী কার্যক্রম সম্পর্কে ধারণা ও চিন্তা বিনিময় করা।

সাক্ষাতের এক অংশে অ্যালেক্স বার্গ ফন লিন্ডে ব্যক্ত করেন যে "বাংলাদেশের তরুণদের অনেক সম্ভাবনা রয়েছে, এবং আমরা যে প্রধান পানির চ্যালেঞ্জগুলির মুখোমুখি হয়েছি তা মোকাবেলায় তাদের অংশগ্রহণ দেখে আমি সত্যিই মুগ্ধ। সেগুফতার বিজয়ী প্রকল্পটি এরই একটি  গুরুত্বপূর্ণ সংযোজন। আমি তাকে শুভকামনা জানাই তার ফাইনাল রাউন্ডের জন্য। এছাড়াও, আমি বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজের আয়োজক, এর পার্টনার এবং অংশগ্রহণকারীদের স্বাগত জানাই যারা বাংলাদেশে এই প্রতিযোগিতাকে সম্ভব করে তুলেছে।''

রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজের এর আয়োজক হাউস অফ ভলান্টিয়ার্স ফাউন্ডেশন এবং এর সাথে যুক্ত সকল পার্টনারদের প্রতিযোগিতায় অর্থপূর্ণ অবদানের জন্য স্বাগত জানান। রাষ্ট্রদূত প্রতি বছর এই প্রতিযোগিতায়  নিযুক্ত সারা দেশের তরুণ  স্বেচ্ছাসেবকদেরকেও  তার শুভেচ্ছা জানান। রাষ্ট্রদূতকে পুরো অনুষ্ঠানে তার উদার সমর্থনের জন্য প্রশংসার স্বরূপ একটি ক্রেস্ট তুলে দেওয়া হয়। 

হাউস অফ ভলান্টিয়ার্স ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজের জাতীয় সংগঠক, যেখানে ওয়াটারএইড বাংলাদেশ সহ-সংগঠক এবং নেসলে বাংলাদেশ লিমিটেড স্পনসর। টেক্সটাইল ইন্ডাস্ট্রিজে এনভায়রনমেন্টাল সাসটেইনেবিলিটি (ESTex)- বুয়েট এর প্রতিযোগিতার টেকনিকাল পার্টনার, মিয়াকি মিডিয়া লিমিটেড প্রযুক্তি পার্টনার এবং বিডি নিউজ২৪ ডট কম  প্রতিযোগিতার মিডিয়া পার্টনার।

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) এর সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ও আইটিএন, বুয়েটের পরিচালক ড. তানভীর আহমেদ, বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) এর ইণ্ডাস্ট্রিয়াল এন্ড প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ও বিভাগীয় প্রধান, ড. ফেরদৌস সারওয়ার; নেসলে বাংলাদেশ লিমিটেড এর ডিরেক্টর লিগ্যাল, আরএসএ, কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড কোম্পানি সেক্রেটারি দেবব্রত রায় চৌধুরী, ওয়াটারএইড বাংলাদেশ কারিগরি উপদেষ্টা মো. তাহমিদুল ইসলাম, হাউস অব ভলান্টিয়ার্স ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ এর  নির্বাহী পরিচালক জাফরুল হাসান ও নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম আফিক হাসান, বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজ ২০২২ এর সেরা শিক্ষার্থী এম্বাসেডর পুষ্পিতা ঘোষ।

বাংলাদেশ স্টকহোম জুনিয়র ওয়াটার প্রাইজ ২০২৩ -এর কার্যক্রম অক্টোবর ২০২২- এ শুরু হবে। প্রতিযোগিতার বিস্তারিত www.sjwpbd.org ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে।

;

৬৩ জেলায় সিরিজ বোমা হামলার ১৭ বছর আজ



নিউজ ডেস্ক, বার্তা২৪.কম, ঢাকা
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

  • Font increase
  • Font Decrease

দেশের ৬৩ জেলায় সিরিজ বোমা হামলার ১৭ বছর আজ বুধবার। ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট জামআতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশ (জেএমবি) নামের একটি জঙ্গি সংগঠন পরিকল্পিতভাবে দেশের ৬৩ জেলায় একই সময়ে বোমা হামলা চালায়।

মুন্সীগঞ্জ ছাড়া সব জেলায় প্রায় ৫শ’ পয়েন্টে বোমা হামলায় দু’জন নিহত ও অন্তত ১০৪ জন আহত হন।

পুলিশ সদর দফতর ও র‌্যাবের তথ্য অনুযায়ী, ঘটনার পরপরই সারাদেশে ১৫৯টি মামলা দায়ের করা হয়। এরমধ্যে ডিএমপিতে ১৮টি, সিএমপিতে ৮টি, আরএমপিতে ৪টি, কেএমপিতে ৩টি, বিএমপিতে ১২টি, এসএমপিতে ১০টি, ঢাকা রেঞ্জে ২৩টি, চট্টগ্রাম রেঞ্জে ১১টি, রাজশাহী রেঞ্জে ৭টি, খুলনা রেঞ্জে ২৩টি, বরিশাল রেঞ্জে ৭টি, সিলেট রেঞ্জে ১৬টি, রংপুর রেঞ্জে ৮টি, ময়মনসিংহ রেঞ্জে ৬টি ও রেলওয়ে রেঞ্জে ৩টি। যারমধ্যে ১৪২টি মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। বাকি ১৭টি মামলায় ঘটনার সত্যতা থাকলেও আসামি শনাক্ত করতে না পারায় চূড়ান্ত রিপোর্ট দেওয়া হয়। এসব মামলায় এজাহারভূক্ত আসামি ছিল ১৩০ জন। গ্রেফতার করা হয় ৯৬১ জনকে। ১ হাজার ৭২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়।

পুলিশ জানায়, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সিরিজ বোমা হামলার ঘটনায় সারাদেশে ১৫৯টি মামলার মধ্যে ৯৪টি মামলার বিচার সম্পন্ন হয়েছে। এসব মামলায় ৩৩৪ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দেওয়া হয়েছে। এখন ৫৫টি মামলা বিচারের অপেক্ষায় রয়েছে। যার আসামি সংখ্যা হচ্ছে ৩৮৬ জন। এই সিরিজ বোমা হামলার রায় প্রদান করা মামলাগুলোর ৩৪৯ জনকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। আসামিদের মধ্যে ২৭ জনের বিরুদ্ধে ফাঁসির রায় দেয়া হয়। এরমধ্যে ৮ জনের ফাঁসি ইতিমধ্যে কার্যকর করা হয়েছে।

এসব মামলায় খালাস পেয়েছে ৩৫৮ জন, আর জামিনে রয়েছে ১৩৩ জন আসামি। এছাড়া ঢাকায় বিচারাধীন ৫টি মামলা সাক্ষ্য গ্রহণের শেষ পর্যায়ে রয়েছে। ঝালকাঠি জেলার দুই বিচারককে হত্যার জন্য ২০০৭ সালের ৩০ মার্চ ছয় জঙ্গি নেতা শায়খ আবদুর রহমান, তার সেকেন্ড-ইন-কমান্ড সিদ্দিকুল ইসলাম বাংলা ভাই, সামরিক কমান্ডার আতাউর রহমান সানি, চিন্তাবিদ আব্দুল আউয়াল, খালেদ সাইফুল্লাহ এবং সালাউদ্দিনকে ফাঁসি দেওয়া হয়।

বিএনপি-জামায়াতের শাসন আমলে (২০০১ থেকে ২০০৬) সরকারি এমপি মন্ত্রীদের সরাসরি মদদে সারাদেশে শক্ত অবস্থান তৈরি করে জঙ্গিরা।২০০৫ সালের পরবর্তী সময়ে কয়েকটি ধারাবাহিক বোমা হামলায় বিচারক ও আইনজীবীসহ ৩০ জন নিহত হন। আহত হন ৪ শতাধিক। ওই বছরের ৩ অক্টোবরে চট্টগ্রাম, চাঁদপুর এবং লক্ষ্মীপুরের আদালতে জঙ্গিরা বোমা হামলা চালায়। এতে তিনজন নিহত এবং বিচারকসহ কমপক্ষে ৫০ জন আহত হন।

এর কয়েকদিন পর সিলেটে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক বিপ্লব গোস্বামীর ওপর বোমা হামলার ঘটনায় তিনি এবং তার গাড়িচালক আহত হন। ১৪ নভেম্বর ঝালকাঠিতে বিচারক বহনকারী গাড়ি লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালায় আত্মঘাতী জঙ্গিরা। এতে নিহত হন ঝালকাঠি জেলা জজ আদালতের বিচারক জগন্নাথ পাড়ে এবং সোহেল আহম্মদ। এই হামলায় আহত হন অনেক মানুষ।

সবচেয়ে বড় জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে ২৯ নভেম্বর গাজীপুর বার সমিতির লাইব্রেরি এবং চট্টগ্রাম আদালত প্রাঙ্গণে। গাজীপুর বার লাইব্রেরিতে আইনজীবীর পোশাকে প্রবেশ করে আত্মঘাতী এক জঙ্গি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এই হামলায় আইজনজীবীসহ ১০ জন নিহত হন। আত্মঘাতী হামলাকারী জঙ্গিও নিহত হয় ।

একই দিন চট্টগ্রাম আদালত চত্বরে জেএমবির আত্মঘাতী জঙ্গিরা বিষ্ফোরণ ঘটায়। সেখানে রাজিব বড়ুয়া নামের এক পুলিশ কনস্টেবল এবং একজন সাধারণ মানুষ নিহত হন। পুলিশসহ প্রায় অর্ধশত আহত হন ।

১ ডিসেম্বর গাজীপুর ডিসি অফিসের গেটে আবারও বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। সেখানে নিহত হন গাজীপুরের কৃষি কর্মকর্তা আবুল কাশেম। এই ঘটনায় কমপক্ষে ৪০ জন আহত হন। ৮ ডিসেম্বর নেত্রকোনায় ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। নেত্রকোনা শহরের বড় পুকুর পাড় উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর অফিসের সামনে বোমা বিস্ফোরণ ঘটায় আত্মঘাতী জঙ্গিরা। সেখানে স্থানীয় উদীচীর দু’নেতাসহ ৮ জন নিহত হন। শতাধিক আহত হন ।

;